Barta24

মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

১০৯-এ কল, তানোরে বাল্য বিয়ে বন্ধ করল ইউএনও

১০৯-এ কল, তানোরে বাল্য বিয়ে বন্ধ করল ইউএনও
বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেল বিথি, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
রাজশাহী


  • Font increase
  • Font Decrease

রাজশাহীর তানোরের মুন্ডুমালা পৌর এলাকার বাসিন্দা অরুণ হালদার। তার মেয়ে বিথি হালদার (১৩) স্থানীয় একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী। মেয়ের মতামত না নিয়ে পাশের গ্রামের এক যুবকের সঙ্গে মেয়ের বিয়ে ঠিক করেন তিনি। বিয়ের সব আয়োজন সম্পন্ন।

রোববার (৭ জুলাই) রাতে বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক রেখে বর ও কনে পক্ষ প্রস্তুতি নিয়েছিল।

তবে বাল্য বিয়ে হতে দেখে সকালে মহিলা বিষয়ক অধিদফতরের হেল্পলাইন ১০৯ নম্বরে কল করে বিষয়টি অবগত করেন। মহিলা অধিদফতর থেকে সঙ্গে সঙ্গে রাজশাহীর তানোর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাসরিন বানুকে ঘটনাস্থলে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

দুপুরে পুলিশ ফোর্সসহ মেয়ের বাড়িতে গিয়ে উপস্থিত হন ইউএনও। বাড়িতে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে কনের বাবাসহ সবাই পালিয়ে যান। পরে ইউএনও দুই পক্ষকে বিয়ে থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেন।

জানতে চাইলে তানোর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাসরিন বানু বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'বেলা ১১টার দিকে মহিলা বিষয়ক অধিদফতর থেকে আমাকে ফোনে বিষয়টি জানানো হয়। খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে যায়। তবে বাড়ির সব পুরুষ আমাদের উপস্থিতি টের পেয়ে সরে পড়ে। পরে তাদেরকে অভয় দিয়ে বাড়িতে ডেকে আনা হয়। দুই পক্ষকে নিয়ে বসে বিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তাদেরকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।'

মেয়ের মা দিপালী হালদার ও বাবা অরুণ হালদার বলেন, 'আমাদের ভুল হয়েছিল। তবে বিয়ে হয়নি, এটা ভালো হয়েছে। মেয়ের বয়স না হলে আমরা আর বিয়ে দেব না।'

এদিকে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পাওয়া বিথি বলেন, 'আমি পড়াশোনা করতে চাই। লেখাপড়া করে অনেক বড় হতে চাই। সরকার আমার বাবা-মাকে ভুল থেকে শুধরে দিয়েছি, আমি খুব খুশি'

আপনার মতামত লিখুন :

রেনু হত্যার প্রধান আসামি হৃদয় গ্রেফতার

রেনু হত্যার প্রধান আসামি হৃদয় গ্রেফতার
তাসলিমা বেগম রেনু হত্যার মূল আসামি হৃদয়/ ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় ছেলেধরা সন্দেহে তাসলিমা বেগম রেনু হত্যা মামলার প্রধান আসামি হৃদয়কে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পূর্ব বিভাগের মাদক উদ্ধার টিম।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জের ভূলতা থেকে তাকে আটক করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম-কমিশনার মাহবুব আলম। তিনি বলেন, ‘আজ সন্ধার দিকে তাসলিমা বেগম রেনু হত্যা মামলার প্রধান আসামি হৃদয়কে গ্রেফতার করে ডিবির একটি টিম।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/23/1563900973518.jpg

এর আগে মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর গুলিস্তানের গোলাপ শাহর মাজার থেকে উত্তর বাড্ডায় গণপিটুনিতে নিহত তাসলিমা বেগম রেনু হত্যা মামলার প্রধান আসামি হৃদয় সন্দেহে এক যুবককে শাহবাগ থানা পুলিশের কাছে তুলে দেয় সাধারণ মানুষ।

এ বিষয়ে শাহবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল হাসান বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন, ‘গুলিস্তানের গোলাপ শাহর মাজার থেকে তাসলিমা বেগম রেনু হত্যা মামলার প্রধান আসামি হৃদয় সন্দেহে এক যুবককে আটক করে সাধারণ মানুষ আমাদের কাছে নিয়ে আসে। সে হৃদয় কিনা তা আমরা জানি না। আমরা বাড্ডা থানা পুলিশের কাছে তাকে পাঠিয়ে দিয়েছি। এখন তারা নিশ্চিত করবেন আটক যুবক হৃদয় কিনা।’

আরও পড়ুন: রেনু হত্যার প্রধান আসামি হৃদয় সন্দেহে যুবক আটক

চট্টগ্রামে দগ্ধ হয়ে মা-মেয়ের মৃত্যু

চট্টগ্রামে দগ্ধ হয়ে মা-মেয়ের মৃত্যু
আগুন

চট্টগ্রাম নগরীর ইপিজেড এলাকায় একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ হয়ে মা-মেয়ের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) রাত সাড়ে আটটায় কলসী দীঘির বস্তিতে আগুনের সূত্রপাতহয়।

এ অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ হয়ে মারা গেছেন নাসিমা বেগম (৩৫) ও তার মেয়ে লামিয়া (৭)।

চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক জসিম উদ্দীন বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে জানান, অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিটের দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনাস্থল থেকে মা-মেয়ের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র