রাজশাহী সিটি করপোরেশনের আয়তন বাড়ছে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, রাজশাহী
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

নাগরিক সেবার পরিধি বৃদ্ধি এবং পরিকল্পিত নগরায়ণের লক্ষ্যে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) আয়তন বাড়ানোর জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছে কর্তৃপক্ষ। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে পর্যবেক্ষণ শেষে চূড়ান্ত অনুমোদন দেবে মন্ত্রণালয়।

সীমানা বৃদ্ধির আবেদন অনুমোদন হলে বর্তমান সীমানার সঙ্গে যোগ হবে পবা উপজেলার নওহাটা ও কাটাখালী পৌরসভা এবং দামকুড়া ও কর্ণহার থানা। আর মহানগরীর আয়তন বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়াবে ৩৫০ বর্গ কিলোমিটারে। যা বর্তমানে রয়েছে ৯৬ দশমিক ৭২ বর্গ কিলোমিটার।

রাসিকের প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফুল হক বার্তা২৪.কমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘সীমানা বৃদ্ধির লক্ষ্যে স্থানীয় সরকার বিভাগে আমরা আবেদন করেছি। তারা জানিয়েছে- দ্রুত কমিটি গঠন করে তাদের পর্যবেক্ষণে রাজশাহী পাঠানো হবে। আর প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে নিটার নামের একটি কমিটি রয়েছে, তারাও বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করবে। তাদের জমা দেওয়া প্রতিবেদনের উপর নির্ভর করে চূড়ান্ত অনুমোদন হতে পারে।’

সিটি করপোরেশন সূত্র জানায়, ১৮৭২ সালে রাজশাহীতে পৌরসভা হয়। পরে ১৯৮৭ সালে তা সিটি করপোরেশনে রূপান্তরিত হয়। ১৯৯৪ সালে প্রথম নির্বাচিত মেয়র সিটি করপোরেশনের দায়িত্ব পালন করে। ওই সময় ৯৬ দশমিক ৭২ বর্গ কিলোমিটার জায়গা নিয়ে যাত্রা শুরু হয়। তারপর আর কখনো সীমানা বাড়েনি।

রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘আধুনিক নগরায়ণের বিষয়টি মাথায় রেখে সিটি এলাকার সীমানা বৃদ্ধির পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। নগরীর পার্শ্ববর্তী যে অঞ্চলগুলোকে আরও উন্নয়ন করা যায়, সেগুলো আমরা চিহ্নিত করেছি। অপরিকল্পিত নগরায়ণ হতে রক্ষা পেতে আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এটি বাস্তবায়ন হলে নাগরিক সেবার মান বৃদ্ধি পাবে।’

মেয়র আরও বলেন, ‘ইতোমধ্যে চীনের ‘পাওয়ার চায়না’ নামে একটি কোম্পানির সঙ্গে রাসিকের চুক্তি হয়েছে। তারা ২০৫০ সাল পর্যন্ত নগরীর কী কী উন্নয়ন করা যায় সেগুলোর পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করবে। চলতি বছরের মধ্যেই তারা পরিকল্পনা দাঁড় করাবে এবং সেখানে ইনভেস্টও করবে। তাদের সঙ্গে সিটি করপোরেশন ও রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (আরডিএ) একত্রে পরিকল্পিত নগরী গড়ে তোলার জন্য কাজ করবে।’

আপনার মতামত লিখুন :