৩০ ঘন্টা পর লাইনচ্যুত বগি উদ্ধার, ট্রেন চলাচল শুরু

স্টাফ করেসপন্ডেণ্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, রাজশাহী
দুর্ঘটনাকবলিত স্থান দিয়ে সাবধানতার চলছে বনলতা এক্সপ্রেস, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

দুর্ঘটনাকবলিত স্থান দিয়ে সাবধানতার চলছে বনলতা এক্সপ্রেস, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

৩০ ঘন্টার তৎপরতায় রাজশাহীর চারঘাটে লাইনচ্যুত তেলবাহী ট্রেনের সবক’টি বগি উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) রাত ১১টার দিকে লাইনচ্যুত বগি উদ্ধার করে রেলরুট সংস্কারের কাজ শেষ হয়। রাজশাহীর সঙ্গে সারাদেশের ট্রেন চলাচলে আর কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক খোন্দকার শহিদুল ইসলাম।

তিনি বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘বুধবার (১০ জুলাই) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ট্রেনটি লাইনচ্যুত হয়। রিলিফ ট্রেন ঘটনাস্থলে পৌঁছে রাত ৯টা থেকে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করে। তবে প্রচণ্ড বৃষ্টির কারণে উদ্ধার কাজ বিলম্ব হয়। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বৃষ্টি কম থাকায় উদ্ধার কাজে গতি আসে।’

মহাব্যবস্থাপক শহিদুল ইসলাম আরও বলেন, ‘বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে ফের বৃষ্টি হওয়ায় আবার উদ্ধার কাজে বিলম্বিত হয়। তবে বৈরি আবহাওয়াকে উপেক্ষা করে রেলওয়ের প্রকৌশলীসহ উদ্ধারকর্মীরা রাত ১১টার দিকে বগিগুলো উদ্ধার করে লাইন ক্লিয়ার করতে সক্ষম হন। এখন ট্রেন চলাচলে আর কোনো বাধা নেই। তবে শিডিউল বিপর্যয় হতে পারে। আমরা চেষ্টা করবো দ্রুত শিডিউল বিপর্যয় কাটিয়ে ওঠার।’

এদিকে, ১০টি ট্রেনের যাত্রা বাতিলের পর রাত ১১টা ২০ মিনিটে ধূমকেতু এক্সপ্রেস ট্রেন চলার মধ্য দিয়ে যাত্রা স্বাভাবিক করার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন রাজশাহী রেলওয়ে কর্মকর্তা (সিএসটি) অসিম কুমার তালুকদার।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/12/1562868956880.jpg
লাইন ক্লিয়ার হওয়ার পর রাজশাহী স্টেশন অভিমুখে যাত্রা শুরু করে আড়ানী স্টেশনে আটকে থাকা বনলতা এক্সপ্রেস, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

তিনি বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘লাইন পুরোপুরি ক্লিয়ার।বগিগুলো উদ্ধার এবং লাইন মেরামত কাজ শেষ। ওই রুট দিয়ে ট্রেন যেতে আর কোনো সমস্যা নেই।

অসিম কুমার তালুকদার আরও বলেন, ‘রাত ১১টা ২০ মিনিটের ধূমকেতু ট্রেনটি ছেড়ে যেতে বেশ দেরি হবে। ঠিক কখন ধূমকেতুর যাত্রা সম্ভব হবে তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। তবে আগামীকাল সকালের ট্রেনগুলো যথাসম্ভব নির্ধারিত সময়ে ছেড়ে যাবে।’

রাত পৌনে ১২টায় এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ধূমকেতু ট্রেনটি রাজশাহী স্টেশনের প্লাটফরমে আসেনি। যাত্রীরা স্টেশনে এসে ট্রেনের অপেক্ষায় রয়েছেন। তবে রাজশাহীর বাঘার আড়ানী থেকে বনলতা ও ধূমকেতু এবং নাটোরের আব্দুলপুর স্টেশনে আটকে পড়া সিল্কসিটি এক্সপ্রেস রাজশাহীর উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছে।

রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, খুলনা থেকে বুধবার (১০ জুলাই) সকালে তেলবাহী একটি ট্রেন ছেড়ে আসে। বিকালে ঈশ্বরদী স্টেশন থেকে রাজশাহী অভিমুখে যাত্রা করে ট্রেনটি। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে চারঘাটের হলিদাগাছী স্টেশনের কাছে দীঘলকান্দি এলাকায় ট্রেনের ৯টি বগি লাইনচ্যুত হয়। খবর পেয়ে সাড়ে ৭টার দিকে ঈশ্বরদী স্টেশন থেকে একটি রিলিফ ট্রেন ঘটনাস্থলে যায়। রাত সাড়ে ৯টা থেকে শুরু হয় উদ্ধারকাজ। ওই সময় দুর্ঘটনার শিকার ট্রেনটি সামনের বগিগুলো নিয়ে রাজশাহীর হরিয়ান স্টেশনে চলে যায়।

এদিকে, দুর্ঘটনার পর পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুর রশিদকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। আর ঘটনা তদন্তে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের প্রধান পরিবহন কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুনকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে কমিটির সদস্যদের প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রধান প্রাথমিকভাবে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, মূলত সংস্কার কাজের সময় ত্রুটি রেখে কাজ শেষ করায় এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।

আপনার মতামত লিখুন :