মানি এক্সচেঞ্জ ব্যবসার আড়ালে কোটি টাকার স্বর্ণ পাচার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, বগুড়া
আটককৃত আব্দুর রাজ্জাক শেখ ও মো. আনোয়ার হোসেন, ছবি: সংগৃহীত

আটককৃত আব্দুর রাজ্জাক শেখ ও মো. আনোয়ার হোসেন, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মানি এক্সচেঞ্জ ব্যবসার কারণ দেখিয়ে অবাধে মালয়েশিয়া যাতায়াত করত আব্দুর রাজ্জাক শেখ ও মো. আনোয়ার হোসেন। কিন্তু তারা মানি এক্সচেঞ্জ ব্যবসার আড়ালে মালয়েশিয়ায় অবস্থানরত এক ব্যক্তির কাছ থেকে কোটি কোটি টাকার অবৈধ স্বর্ণ বাংলাদেশে নিয়ে আসত।

চোরাই পথে আনা স্বর্ণর ব্যবসা করে নামে-বেনামে অঢেল সম্পদের মালিক হোন উল্লেখিত দুইজন। আর এসব অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার (১৫ জুলাই) তাদের গ্রেফতার করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সিআইডির মুখপাত্র সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার শারমিন জাহান এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

শারমিন জাহান বলেন, 'গত রোববার (১৪ জুলাই) মালয়েশিয়া থেকে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে করে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে নিয়ে আসা ১২টি স্বর্ণর বারসহ দুইজনকে আটক করে শুল্ক গোয়েন্দা। এই বিষয়ে বিমান বন্দর থানায় একটি মামলা রুজু হয়। পরে মামলার তদন্তভার সিআইডির কাছে হস্তান্তর করা হয়। মামলার গ্রেফতার হওয়া ২ আসামিকে জিজ্ঞেসবাদ করে স্বর্ণ চোরাচালান চক্রের মূল হোতাসহ বেশ কয়েকজনের নাম জানতে পারে সিআইডি। এছাড়া এই চক্রটির বিষয়ে এবং মালয়েশিয়া থেকে দেশে আসা অবৈধ স্বর্ণর চালান সম্পর্কেও অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানতে পারে সিআইডি।'

তিনি বলেন, 'এসব তথ্যের ওপর ভিত্তি করে সোমবার রাজধানীর মালিবাগ এলাকায় অভিযান চালিয়ে এই চক্রের মূল হোতা আব্দুর রাজ্জাক শেখ ও তার সহযোগী মো. আনোয়ার হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা দীর্ঘদিন ধরে মানি এক্সচেঞ্জের ব্যবসার আড়ালে মালয়েশিয়া অবস্থানরত এক ব্যক্তির কাছ থেকে স্বর্ণ অবৈধভাবে দেশে নিয়ে আসতেন। পরে এসব স্বর্ণ বিভিন্ন কায়দায় বিক্রি করে তারা অঢেল অর্থ সম্পত্তির মালিক হয়েছেন। এছাড়া তাদের নামে বিভিন্ন ব্যাংকে কোটি কোটি টাকার লেনদেনের তথ্য পাওয়া গিয়েছে। উক্ত চক্রের সঙ্গে জড়িত অন্যান্যদের আইনের আওতায় আনার জন্য মামলাটি সিআইডি কর্তৃক তদন্তাধীন আছে।'

আপনার মতামত লিখুন :