Barta24

সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ৪ ভাদ্র ১৪২৬

English

দেশে ফিরেছেন ওবায়দুল কাদের

দেশে ফিরেছেন ওবায়দুল কাদের
ওবায়দুল কাদের, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম


  • Font increase
  • Font Decrease
সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফিরেছেন।
 
বুধবার (১৭ জুলাই) রাতে সেতুমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। বিষয়টি সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের উপপ্রধান তথ্য অফিসার মো. আবু নাছের নিশ্চিত করেছেন।
 
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/17/1563384878481.jpg
 
অপারেশন পরবর্তী চেক আপের জন্য রোবাবর দুপুরে সিঙ্গাপুরে যান কাদের। সেখানে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়। অপারেশন পরবর্তী স্বাস্থ্যের উন্নতিতে সন্তোষ প্রকাশ করেন তাঁর চিকিৎসার জন্য গঠিত কমিটির প্রধান ডা. ফিলিপ কোহ।
 
উল্লেখ্য, গত ২ মার্চ শ্বাসকষ্ট শুরু হলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন ওবায়দুল কাদের। সেখানে দ্রুত এনজিওগ্রাম করার পর তার হৃৎপিণ্ডের রক্তনালিতে তিনটি ব্লক ধরা পড়ে।
 
৪ মার্চ এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে ওবায়দুল কাদেরকে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে নেওয়া হয়। ২০ মার্চ ওই হাসপাতালে তার বাইপাস সার্জারি হয়। দুই মাস ১১ দিন সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা শেষে গত ১৫ মে দেশে ফেরেন ওবায়দুল কাদের।
আপনার মতামত লিখুন :

রুয়েট ছাত্রীকে উত্যক্ত করে অটো থেকে ফেলে দিল ৪ যুবক!

রুয়েট ছাত্রীকে উত্যক্ত করে অটো থেকে ফেলে দিল ৪ যুবক!
রাজশাহীর মানচিত্র ছবি: সংগৃহীত

রাজশাহীতে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকের স্ত্রীকে যৌন হয়রানির ঘটনার রেশ না কাটতেই এবার বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে উত্যক্ত করে অটোরিকশা থেকে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার (১৯ আগস্ট) রাজশাহী নগর ভবনের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর সন্ধ্যায় ওই শিক্ষার্থী নিজের ফেসবুকে দেওয়া স্ট্যাটাসে এ তথ্য জানান। সেখানে তিনি উল্লেখ করেন, অটোতে তুলে চার যুবক তার শরীরের বিভিন্নস্থানে হাত দিয়ে যৌন হয়রানি করে। ভুক্তভোগী সানজানা তাহসীন রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী। রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত তিন ঘণ্টায় ওই স্ট্যাটাসে সাড়ে তিন হাজারের বেশি লাইক ও রিয়্যাক্ট পড়ে। বিভিন্ন মন্তব্য করেছেন দেড় শতাধিক ফেসবুক ব্যবহারকারী। এছাড়া শেয়ার হয়েছে প্রায় এক হাজার।

বিষয়টি নিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরাসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ তীব্র নিন্দা জানিয়ে প্রশাসনের গাফিলতিকে দায়ী করেছেন।

ওই ছাত্রীর ফেসবুক পোস্টটি হুবহু পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো:

‘আমার বাসা উপশহর। বাসা দূর বলে আমি সাধারণত রুয়েট থেকে রেইলগেট পর্যন্ত অটোতে করে আসি। আজকেও প্রতিদিনের মতো অটো নিলাম, সাথে ছিল দুইজন অপরিচিত রুয়েটিয়ান ভাইয়া আর একজন ভদ্রলোক। রুয়েটিয়ান ভাই দুইজন চিশতিয়ার সামনে নেমে গেলেন। ভদ্রা পার হয়ে কিছুদূর যাওয়ার পর হঠাৎ অটোওয়ালা অটো থামায় দিল, সামনে থাকা ভদ্রলোককে বললো, ‘আপনি নেমে যান, আমি নিজস্ব লোক তুলবো!’ আমি কিছু বুঝে ওঠার আগেই ওই ভদ্রলোককে জোরপূর্বক নামিয়ে চারজন গুণ্ডা উঠে অটো চালানো শুরু হয়ে গেলো! ভদ্রা থেকে রেলস্টেশন পর্যন্ত রাস্তা মোটামুটি নির্জন, ইচ্ছামত সেই চারজন আমাকে স্পর্শ করা শুরু করলো। হাজারবার অটো থামানোর জন্য চিৎকার করার পরও অটোওয়ালা পশুর মত হাসতে থাকলো....! পরে নগরভবনের সামনে পুলিশ দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে ভয় পেয়ে তারা অটো থেকে ধাক্কা মেরে আমাকে ফেলে দিয়ে দ্রুত চলে গেলো!!! যতক্ষণে নিজের পায়ে দাঁড় হতে পেরেছি, ততক্ষণে অটো বহুদূর....” কাহিনীটা শুধু শেয়ার করলাম। এইটা বাংলাদেশ, কোনো বিচারের আশা আমি করছিনা। বি.দ্র: অনেকের মনে প্রশ্ন থাকতে পারে আমার পোশাক কি ছিল? সাধারণ বাঙালি নারীর মতো সালোয়ার কামিজ!”

ওই পোস্টের নীচে নন্দিতা স্বপন মন্তব্য করেছেন, ‘বছর খানেক আগে এই রাজশাহীতে অটোতে আমিও একই রকম বিশ্রী অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হই। আমার বান্ধবী সাথে ছিল। সেও দেখেছিল। অথচ আমি যখন বিষয়টি জানিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করি। তখন রুয়েটের দুই-একজন সেই পোস্ট শেয়ার করে আমার ত্রুটি খোঁজা শুরু করেছিল।’

জাহিদুল ইসলাম মামুন নামে একজন লিখেছেন, ‘যতটুকু মনে পড়ে, নগরভবনের চারপাশে সিসি ক্যামেরা আছে। পুলিশের সাহায্য চাইলে- সাহায্য পেতে পারো। তবে সেটা কেবল আশা করার মধ্যেই সীমাবদ্ধ। বাংলাদেশে সব সিস্টেমই খুব ভাল তো! হাজার ঘাটে চক্কর মেরে একসময় মনে হবে, ঘটনাটা জানাজানি না হলে ভালো হতো। তবুও চেষ্টা করা যায়। আমরা শিক্ষার্থীরা তোমার সাথে আছি।

জানতে চাইলে নগরীর মতিহার থানার ওসি (তদন্ত) ওলিউর রহমান বলেন, ‘এ বিষয়ে এখনও আমাদেরকে কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। তারপরও আমরা বিষয়টি জানার পর খোঁজ-খবর নিচ্ছি।’

এর আগে গত ১০ আগস্ট রাজশাহী নগরীর মনিচত্ত্বর এলাকায় স্ত্রীকে যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় রুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক মো. রাশিদুল ইসলামকে প্রকাশ্যে মারধর করে বখাটেরা। পরে ঘটনায় তিনি ফেসবুকে নিজের অসহায়ত্বের কথা প্রকাশ করে স্ট্যাটাস দিলে তা ভাইরাল হয়ে যায়। পরে ১৬ আগস্ট ওই ঘটনায় শিক্ষকের স্ত্রী তাবাসসুম ফারজানা মামলা দায়ের করেন।

‘দুই দেশের সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় নিতে কাজ করব’

‘দুই দেশের সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় নিতে কাজ করব’
ঢাকায় আসেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

বাংলাদেশ ও ভারতের সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় নিয়ে যেতে এক সঙ্গে কাজ করে যাবেন বলে জানিয়েছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।

সোমবার (১৯ আগস্ট) রাত ৯টায় ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছে তিনি এ কথা জানান।

এ সময় তাকে স্বাগত জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন। তিনি বলেন, ‘তিনি (জয়শঙ্কর) আসাতে আমরা খুব আনন্দিত। কালকের (মঙ্গলবার) বৈঠকে দু’দেশের স্বার্থ বিষয়ক আলোচনা হবে।’

তিস্তা চুক্তির বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘এ বিষয়ে কালকের (মঙ্গলবার) বৈঠকে জয়শঙ্কর বলবেন।’

আরও পড়ুন: ঢাকায় ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর

এদিকে, মিয়ানমারে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের বিষয়ে পররাষ্টমন্ত্রী বলেন, ‘আশা করি ২২ আগস্ট রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে প্রত্যাবাসন শুরু হবে। সবাই দোয়া করবেন।’

পররাষ্ট্র সচিব হিসেবে এস জয়মঙ্কর বাংলাদেশে এলেও পররাষ্ট্রমন্ত্রী হওয়ার পর এটাই তার প্রথম সফর। এ সফরে বাংলাদেশ ও ভারতের দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন বিষয় আলোচনা হবে। তবে কোনো চুক্তি হবে না বলে জানা গেছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/19/1566230318696.jpg
এস জয়শঙ্করকে স্বাগত জানান একে আবদুল মোমেন

 

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) বেলা ১১টায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন যমুনায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন এবং ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে অংশ নেবেন। এর আগে তিনি ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করবেন।

দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকে অবৈধ অভিবাসন ও অনুপ্রবেশ, যোগাযোগ, নিরাপত্তা, আন্তর্জাতিক সন্ত্রাস, কাশ্মির ইস্যু, রোহিঙ্গা সংকট এবং দীর্ঘদিনের অমীমাংসিত তিস্তাসহ সকল অভিন্ন নদীর পানির বণ্টন নিয়ে আলোচনা হতে পারে। একই দিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন জয়শঙ্কর।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২ অক্টোবর দিল্লি যাচ্ছেন। ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের ইন্ডিয়ান চ্যাপ্টার বা রিজিওনাল এজেন্ডা ইন্ডিয়ান ইকোনমিক সামিটে অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে তার। এই ফোরামের যোগদানের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর সফরে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর দ্বিপক্ষীয় বৈঠক হবার সম্ভাবনা রয়েছে। সে বিষয়ে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শংকর বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেনের সঙ্গে বৈঠকে আলোচনা করতে পারেন বলে জানা গেছে। ২১ আগস্ট নয়া দিল্লি ফিরে যাওয়ার কথা রয়েছে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র