নিরাপদ জলবায়ুর দাবিতে হিজড়াদের শোভাযাত্রা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
নিরাপদ জলবায়ুর দাবিতে রাজধানীতে শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করেন হিজড়ারা/ ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

নিরাপদ জলবায়ুর দাবিতে রাজধানীতে শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করেন হিজড়ারা/ ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্বজুড়ে জলবায়ু বিপযর্য় ঠেকাতে কার্বন নিঃসরণ কমানোর দাবি নিয়ে শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করেছেন হিজড়ারা। অংশগ্রহণকারী হিজড়া বলছেন, বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে আগামী ২০৫০ সালের মধ্যে বাংলাদেশের ২০ ভাগ পানিতে ডুবে যাবে।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) রাজধানীর ধানমণ্ডিতে আয়োজিত 'নিরাপদ জলবায়ুর দাবিতে হিজড়া জনগোষ্ঠী' শীর্ষক এক শোভাযাত্রায় বিশ্ববাসীর প্রতি কার্বন নিঃসরণ কমানোর দাবি জানান অংশগ্রহণকারীরা।

শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণকারী হিজড়া আরশি জাহান বলেন, ‘এই বিশ্ব আমাদের। যদি এর ক্ষতি হয়, আমরা সবাই ক্ষতিগ্রস্ত হব। তাই এখনি বিশ্বনেতাদের কার্বন নিসঃরণ কমিয়ে আনতে বাধ্য করতে হবে।’

রায়ের বাজার থেকে আগত আরেক হিজড়া হাসনা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী হিজড়া জনগোষ্ঠীকে স্বীকৃতি দিয়েছে বলে আমরা জলবায়ু বিষয়ক শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করতে পেরেছি। যদি আমরা পারি, তাহলে আপনারা পারবেন না কেন?’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/23/1563869244711.gif

শোভাযাত্রা থেকে জানানো হয়, জলবায়ু বিপর্যয়ের ফলে গত ২০ বছরে এর প্রভাব আমেরিকা মহাদেশ থেকে শুরু করে এশিয়া, ইউরোপ ও আফ্রিকা মহাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে। জলবায়ু বিপর্যয়ের অন্যতম কারণ হচ্ছে জীবাশ্ম জ্বালানির ব্যবহার। শিল্প বিপ্লবের পর থেকে বায়ুমণ্ডলে তাপ ধরে রাখতে সক্ষম গ্যাসগুলোর পরিমাণ বাড়ছে। যার ফলে খরা, ঘূর্ণিঝড়, রেকর্ড পরিমাণ তাপমাত্রা বৃদ্ধি, বন্যা, জলোচ্ছ্বাস শিলাবৃষ্টি ও টর্নেডোর মাত্রা আশঙ্কাজনক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে।

শোভাযাত্রার উদ্যোক্তা ইনস্টিটিউট অব ওয়েলবিয়িং বাংলাদেশ-এর সাইফুল ইসলাম শোভন বলেন, ‘জলবায়ু বিপর্যয়ের কারণে বাংলাদেশের গড় তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাচ্ছে, ভূগর্ভস্থ পানির স্তর নিচে নেমে যাচ্ছে, নষ্ট হচ্ছে ক্ষেতের ফসল। লবণাক্ততার কারণে উপকূলীয় এলাকায় প্রয়োজনীয় সুপেয় পানির তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/23/1563869269825.gif

ইনস্টিটিউট অব ওয়েলবিয়িং-এর উপদেষ্টা ডেবরা বলেন, ‘পরিবর্তন সহজ নয়, সময় লাগবে। কিন্তু আমাদের সবাইকে একসাথে এগিয়ে যেতে হবে জলবায়ু বিপর্যয়ের হাত থেকে পৃথিবীকে রক্ষা করতে।’

শোভাযাত্রায় উপস্থিত ছিলেন, শান্তনু বিশ্বাস, মাহমুদুল হাসান, মাহমুদুল ইসলাম মিথুন, সানজিদা আক্তার, মাসুম বিল্লাহ সহ ইনস্টিটিউট অব ওয়েলবিয়িংয়ের বিদেশি শিক্ষানবিশরা।

আপনার মতামত লিখুন :