বরিশালে বাড়ছে ডেঙ্গু: শেবাচিমে এন্টিজেন্টের সংকট

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, বরিশাল
শেবাচিমে বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

শেবাচিমে বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বরিশাল তথা গোটা দক্ষিণাঞ্চলেই প্রতিদিনই বাড়ছে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। এ অঞ্চলের বেশিভাগ রোগীই আবার ভর্তি হচ্ছে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (শেবাচিম)। এর মধ্যে শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে শিশুসহ ১৩৯ জন ডেঙ্গু রোগী। যাদের মধ্যে শিশু আট, নারী ৩৯ এবং পুরুষ ৯২ জন রোগী রয়েছে।

বিষয়টি শনিবার (৩ আগস্ট) দুপুরে বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে নিশ্চিত করেছেন শেবাচিমের পরিচালক ডাক্তার মো: বাকির হোসেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘শুক্রবার (২ আগস্ট) রোগীর সংখ্যা ছিল ১১৪ জন। গত ১৬ জুলাই থেকে শনিবার (৩ আগস্ট) পর্যন্ত শেবাচিমে ভর্তি হয়েছেন মোট ২১৬ জন ডেঙ্গু রোগী। এর মধ্যে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে ৭৫ জন বাড়ি ফিরে গেছেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২ জন রোগী মারাও গেছেন।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/03/1564830869102.JPG

তিনি আরও বলেন, ‘শেবাচিম হাসপাতালে প্রতিদিনই নতুন করে ৩০ থেকে ৩৫ জন ভর্তি হচ্ছে। ফলে ডেঙ্গু শনাক্তকরণের জন্য ব্লাড প্লাটিলেটসের এন্টিজেন্ট ও স্যালাইনের সংকট দেখা দিয়েছে। তবে শনিবার সকালে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে চাহিদা পত্র পাঠানো অনুযায়ী পর্যাপ্ত স্যালাইন আসলেও এখনো আসেনি এন্টিজেন্ট। ঢাকায় এন্টিজেন্টের সংকট। তবুও দ্রুতই শেবাচিম এন্টিজেন্টের আনার ব্যবস্থা চলছে।

পরিচালক বলেন, ‘ডেঙ্গু রোগীদের সুবিধার্থে শেবাচিম হাসপাতালে একটি কন্ট্রোলরুম খোলা হয়েছে। পাশাপাশি ডেঙ্গু রোগীদের জন্য হাসপাতালে শীঘ্রই একটি আলাদা একটি ওয়ার্ড চালু করা হবে।’

এদিকে, শেবাচিমে ভর্তি হওয়া ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের জন্য আলাদা ওয়ার্ড, বিনামূল্যে ওষুধ এবং প্রতীকী মূল্যে রোগ পরীক্ষা-নিরীক্ষার কথা থাকলেও অন্যান্য রোগীদের চাপে এ সেবা অনেকটাই ব্যাহত হচ্ছে। দেখা দিয়েছে জায়গার সংকট। রোগীদের অনেকেই জায়গা না পেয়ে হাসপাতালের মেঝে, বারান্দাতে থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন।

আপনার মতামত লিখুন :