বরিশালে কমছে ডেঙ্গুর প্রকোপ, বাড়িতে মিলছে লার্ভা

জহির রায়হান, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, বরিশাল
জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত, ছবি: সংগৃহীত

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বরিশালে গত কয়েক দিন ধরে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা কমতে শুরু করেছে। কিন্তু নগরীর বাসা-বাড়ি আর নির্মাণাধীন ভবনে প্রায়ই মিলছে এডিস মশার লার্ভা। একই সঙ্গে বাড়ছে এডিস মশার বিস্তার। তবে বাসায় বাসায় গিয়ে মশার লার্ভা শনাক্ত ও বংশবিস্তার রোধে কঠোর অবস্থানে রয়েছে বরিশাল সিটি কর্পোরেশন (বিসিসি) কর্তৃপক্ষ। এছাড়াও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই সাথে মশার লার্ভা খোঁজ পাওয়া বাড়ির মালিকদের আর্থিক জরিমানা করা হচ্ছে।

নগরীর সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজ, জর্ডন রোড, অক্সফোর্ড মিশন রোডসহ বিভিন্ন এলাকায় বেশ কয়েকটি বাসায় এডিস মশার লার্ভার খোঁজ পাওয়া গেছে। সর্বশেষ শুক্রবার (৩০ আগস্ট) পবিত্র জুম্মার নামাজের পর নগরীর অক্সফোর্ড মিশন এলাকায় বিসিসি'র কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সাতটি বাড়িতে তল্লাশি করা হয়। এর মধ্যে একটি বাড়িতে মশার লার্ভা পাওয়া যায়।

এছাড়া গত ২৯ আগস্ট নগরীর জর্ডন রোড এলাকায় ৩টি বাড়িতেও মেলে মশার লার্ভা। জেলা প্রশাসনের ৪টি ভ্রাম্যমাণ আদালত বাড়ির মালিকদের মোট ১৩ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

এছাড়াও কয়েকদিন আগে ডেঙ্গুর বিভিন্ন দিক এবং এডিস মশার উৎপত্তি ও ঘনত্ব, মশার প্রাদুর্ভাবের কারণ ইত্যাদি বিষয়ে জরিপ ও গবেষণার জন্য বরিশালে আসে স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) ১৯ সদস্য বিশিষ্ট প্রতিনিধি দল।

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের (শেবাচিম) পরিচালক ডাক্তার মো. বাকির হোসেন বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন, ‘শুক্রবার (৩০ আগস্ট) রাত পর্যন্ত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন ১৪৭ জন ডেঙ্গু রোগী। গত ২৯ আগস্ট চিকিৎসাধীন ছিলেন ১৫৫ জন রোগী।’

উল্লেখ্য, গত ১৬ জুলাই থেকে ৩০ আগস্ট পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন এক হাজার ৮০১ জন। যাদের মধ্যে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন এক হাজার ৬৪৮ জন। এছাড়াও চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেবাচিমে ডেঙ্গু আক্রান্ত ছয়জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :