দুর্গোৎসবে ভোটগ্রহণ পেছানোর দাবি পূজা উদযাপন পরিষদের



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, রংপুর
দূর্গোৎসবের কারণে ভোটগ্রহণ পেছানোর দাবি জানিয়েছে পূজা উদযাপন পরিষদ, ছবি: সংগৃহীত

দূর্গোৎসবের কারণে ভোটগ্রহণ পেছানোর দাবি জানিয়েছে পূজা উদযাপন পরিষদ, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণের তারিখ পরিবর্তনের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ রংপুর জেলার নেতৃবৃন্দ।

মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রংপুর জেলা প্রশাসক ও আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা বরাবর দেওয়া আবেদনপত্রের মাধ্যমে এ দাবি জানান পূজা উদযাপন পরিষদ।

শারদীয় দুর্গোৎসব চলাকালীন রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ভোট প্রদানে বিঘ্ন ঘটতে পারে, এমন আশঙ্কা করছে পরিষদ।

এ ব্যাপারে পরিষদের রংপুর জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক শ্রী ধীমান ভট্টাচর্য্য বলেন, ‘আগামী ৪ অক্টোবর থেকে ষষ্ঠীর মধ্য দিয়ে শারদীয় দুর্গোৎসব শুরু হবে। পরের দিন পূজার সপ্তমী। ওই দিন উপ-নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হলে রংপুর সদর ও মহানগরীর হিন্দু সম্প্রদায়ের ৭০ হাজার ভোটারের ভোট প্রদানে বিঘ্ন ঘটবে।’

আরও পড়ুন: রংপুরে উপ-নির্বাচন প্রশ্নে আ.লীগ কোনো সিদ্ধান্ত জানায় নি

তিনি আরও বলেন, ‘ভোটের দিন (৫ অক্টোবর) হিন্দু ধর্মাবলম্বীগণ পূজা মণ্ডপে অঞ্জলি প্রদান করবেন। ওই দিন ভোট হলে যানবাহন বন্ধ থাকবে। হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা সবাই পূজা অর্চনা নিয়ে ব্যস্ত থাকবে। এছাড়া রংপুরের অনেক স্থানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পূজা মণ্ডপ থাকে। যদি ভোটের দিন কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে এর প্রভাব কী হবে, তা তো বলার অপেক্ষা রাখে না।’

এ সময় তিনি বলেন, ‘আমরা চাই দুর্গোৎসবের কারণে যাতে ভোট প্রদানে বিঘ্ন না ঘটে এমন তারিখ নির্ধারণ করা হোক। এতে সবাই ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারে।’

এদিকে, নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন প্রসঙ্গে রংপুর অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা জি.এ. সাহাতাব উদ্দিন বলেন, ‘পূজা উদযাপন পরিষদ একটি লিখিত আবেদন করেছে। আমি তাদের আবেদনের বিষয়টি নির্বাচন কমিশনারসহ সংশ্লিষ্টদের অবগত করব।’

উল্লেখ্য, গত ১৪ জুলাই এরশাদের মৃত্যুতে আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ৫ অক্টোবর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। মনোনয়ন দাখিলের শেষ তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর। যাচাই-বাছাই ১১ সেপ্টেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহার ১৬ সেপ্টেম্বর।

আরও পড়ুন: সাদ এরশাদের পক্ষে মাঠে থাকবে না রংপুর জাতীয় পার্টি!

রংপুর সদর উপজেলা ও সিটি করপোরেশন নিয়ে গঠিত এ আসনের মোট ভোটার ৪ লাখ ৪২ হাজার ৭২জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ২১ হাজার ৩১০ জন এবং ২ লাখ ২০ হাজার ৭৬২ জন নারী ভোটার।