'হায় হোসেন হায় হোসেন' মাতমে খুলনায় তাজিয়া মিছিল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, খুলনা
খুলনায় তাজিয়া মিছিল, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

খুলনায় তাজিয়া মিছিল, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

‘হায় হোসেন, হায় হোসেন’ মাতমের মধ্য দিয়ে খুলনায় পবিত্র আশুরা পালন করেছে শিয়া সম্প্রদায়ের মুসলমানরা।

মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এ উপলক্ষে খুলনায় আলোচনা সভা ও তাজিয়া মিছিল করা হয়েছে।

বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

এসব কর্মসূচিতে ৬১ হিজরির ১০ই মহররম ঘটে যাওয়া কারবালার তপ্ত মরুপ্রান্তরে হযরত মোহাম্মদ (সাঃ)-এর দৌহিত্র ইমাম হোসাইন (রাঃ) ও তাঁর সাথীদের তৃষ্ণার্ত ও ক্ষুধার্ত অবস্থায় নির্মমভাবে শাহাদাত বরণের ঘটনাকে স্মরণ করা হয়।

মহররম উপলক্ষে শিয়া মুসলমানদের খুলনাস্থ সর্ববৃহৎ সংগঠন আঞ্জুমান-এ-পাঞ্জাতানী ট্রাস্ট শোক সভার আয়োজন করে। আলোচনায় অংশ নেন ইসলামী শিক্ষা কেন্দ্রের অধ্যক্ষ হুজ্জাতুল ইসলাম সৈয়দ ইব্রাহিম খলিল রাজাভী।

বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

ইসলামী শিক্ষা কেন্দ্রের অধ্যক্ষ হুজ্জাতুল ইসলাম সৈয়দ ইব্রাহীম খলীল রাজাভী আশুরার শোক সমাবেশে বলেন, ‘৬১ হিজরির ১০ই মহররম নবী (সা.) এর দৌহিত্র ইমাম হোসাইন (আ.) পরিবার-পরিজন নিয়ে কারবালার মরুপ্রান্তরে পাপিষ্ঠ এজিদ সেনাদের হাতে নির্মমভাবে শাহাদাত বরণ করেছিলেন। তিনি এজিদের হাতে যদি বায়াত করতেন তাহলে এ নির্মম পরিণতির সম্মুখীন হতে হতো না। কিন্তু ইমাম হোসাইনের (আ.) মতো একজন মহান ও নিষ্পাপ ব্যক্তিত্ব কখনও এজিদের মতো একজন মদ্যপ, কুলাঙ্গার শাসককে মেনে নিতে পারেন না। তাই আমরা সেদিনকে স্মরণ করে মজলুমের সপক্ষে এবং জালিমের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে সকলকে আহবান জানাই।’

তিনি বলেন, ‘আশুরার শিক্ষাই হলো জালিমদের বিরুদ্ধে মজলুমদের পক্ষে অবস্থান নেওয়া।’

আলোচনা শেষে একটি শোক ও মাতম মিছিল নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় ইমামবাড়িতে গিয়ে শেষ হয়। এ শোক মিছিলে খুলনা ও অন্যান্য এলাকা থেকে আগত শিয়া মুসলমান নারী ও পুরুষরা অংশগ্রহণ করেন।

আপনার মতামত লিখুন :