১১ বছর পর খুলনা মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটি হচ্ছে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, খুলনা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

দীর্ঘ ১১ বছর পর খুলনা মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হচ্ছে। এ কমিটিতে আহ্বায়ক হচ্ছেন শফিকুর রহমান পলাশ ও যুগ্ম আহ্বায়ক শেখ শাহজালাল হোসেন সুজন।

মঙ্গলবার (১৭ সেপ্টেম্বর) কেন্দ্রীয় কমিটি স্বাক্ষরিত অনুমোদনের কপি পাওয়া যাবে বলে জানা গেছে।

খুলনা মহানগর যুবলীগের এ আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন হওয়ার খবরে তৃণমূল থেকে শুরু করে শীর্ষ পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উচ্ছ্বসিত। সোমবার রাত থেকেই আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা নতুন আহ্বায়ক কমিটির নেতাদের শুভেচ্ছা জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুভেচ্ছা বার্তা পোস্ট করেছেন।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, এ কমিটির আহ্বায়ক শফিকুর রহমান পলাশ ২০০৩ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত খুলনা মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। এর আগেও নগর ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও নির্বাহী সদস্যের দায়িত্বে ছিলেন তিনি। ছাত্রলীগের নেতৃত্ব ছাড়ার পর যুবলীগের কর্মকাণ্ডে নিজেকে সক্রিয় রাখেন নিজেকে।

এছাড়া যুগ্ম আহ্বায়ক শেখ শাহাজালাল হোসেন সুজন খুলনায় পরিচ্ছন্ন ছাত্ররাজনীতির প্রতীক হিসেবে পরিচিত। শেখ সুজন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের কাছে গ্রহণযোগ্য নাম। তিনি ২০১০ সালে খুলনা মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছিলেন। ২০১১ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের উপ-পাঠাগার সম্পাদক, ২০১৫ সালে মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি এবং পরবর্তীতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন। পারিবারিক দিক থেকেও শেখ শাহাজালাল হোসেন সুজনের খ্যাতি রয়েছে। তার বাবা বীরমুক্তিযোদ্ধা শেখ শহিদুল হক ষাটের দশকের তুখোড় ছাত্রনেতা হিসেবে পরিচিত। যিনি খুলনা মহানগর শ্রমিক লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। ৭৫ পরবর্তী সময়ে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার আস্থাভাজন হিসেবে তিনি দক্ষিণাঞ্চলের আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করতে আমৃত্যু কাজ করে গেছেন।

উল্লেখ্য, সবশেষ ২০০৮ সালের ৬ জানুয়ারি নগর যুবলীগের ৫১ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছিল। ওই কমিটিতে অ্যাড. সরদার আনিসুর রহমান পপলুকে আহ্বায়ক এবং মনিরুজ্জামান সাগর ও হাফেজ মো. শামীম যুগ্ম-আহ্বায়ক ছিলেন। দীর্ঘ ১১ বছর পর নতুন কমিটির খবরে খুলনার যুবলীগের তৃণমূল থেকে শুরু করে শীর্ষ পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উচ্ছ্বসিত।

আপনার মতামত লিখুন :