loader
Foto

রোহিঙ্গাদের জঙ্গিবাদে উদ্বুদ্ধ করত ইসহাক

 

ঢাকা: কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে যাতায়াত ছিল মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক খানের (৩২)। রোহিঙ্গাদের বিভিন্ন সময় আর্থিক সহায়তাও করতেন তিনি।

এসব সামাজিক কাজের আড়ালে রোহিঙ্গাদের মধ্যে জঙ্গি মতাদর্শ ছড়িয়ে দেওয়ার উদ্দেশ্য ছিল ইসহাকের। তবে রোহিঙ্গাদের মধ্যে জঙ্গিবাদ ছড়িয়ে দেওয়াই একমাত্র লক্ষ্য ছিল না ইসহাকের।

নিজের প্রকাশনা সংস্থা তৈরি করে শত শত জিহাদি বই ছাপিয়ে বিভিন্ন মাদ্রাসায় গিয়ে বিলি করত সে। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে উগ্রপন্থী মতাদর্শ প্রচার করত ইসহাক।

বুধবার (১১ জুলাই) রাজধানীর কাওরানবাজারে অবস্থিত র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-৩ এর পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. এমরানুল হাসান।

এর আগে ১০ জুলাই র‌্যাব-৩ এর এক বিশেষ অভিযানে মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক খানকে মানিকগঞ্জের ইরতা গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ও বিভিন্ন গোয়েন্দা প্রতিবেদনে ইসহাক সম্পর্কে এসব তথ্য জানা যায় বলেও তিনি জানান।

/uploads/files/eY77VtjPYUapf3cesXbzHmClI0bbIyVirNFuWSK6.jpeg

সংবাদ সম্মেলনে লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. এমরানুল হাসান বলেন, নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের মিডিয়া উংয়ের অন্যতম সমন্বয়ক এই ইসহাক খান। তার দায়িত্ব ছিল বিভিন্ন উগ্রবাদী লিখনি ও প্রচার প্রচারণার মাধ্যমে যুব সমাজকে উদ্বুদ্ধ করা। আনসার আল ইসলামের আধ্যাত্মিক নেতা জসীমুদ্দীন রহমানীর নির্দেশে সে এসব কাজ করত।

তিনি বলেন, এ সময় খান প্রকাশনী নামে একটি নিজস্ব প্রকাশনী সংস্থা ছিল ইসহাকের। এই প্রকাশনী সংস্থার মাধ্যমে জসীমুদ্দীন রহমানীর বিভিন্ন উগ্রবাদী লেকচার ও মতাদর্শের শত শত বই ছাপিয়ে বিতরণ করত। পরে ২০১৩ সালে জসীমুদ্দীন রহমানী গ্রেফতার হওয়ার পড়া আত্মগোপনে চলে যায় ইসহাক। পরে সে আত্মগোপন অবস্থায় বিভিন্ন উগ্রবাদী বই সংকলন করে প্রকাশ করত।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের ইসহাক র‌্যাব সদস্যদের জানায়, সে আনওয়ার আল আওলাকী ও জসীমুদ্দিন রাহমানীর মতবাদে বিশ্বাসী। গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যবস্থায় সে বিশ্বাসী নয়, সে সরিয়া আইনে রাষ্ট্র পরিচালনায় বিশ্বাসী। এছাড়া সেই গাজাওতুল হিন্দেও বিশ্বাসী ছিল। সেই লক্ষ্যে উগ্রবাদী বই সংকলিত করে কোমলমতি যুবকদের জঙ্গিবাদের আগ্রহ বাড়াতে ইন্টারনেটে বিভিন্ন পেইজে পোস্ট করত।

লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. এমরানুল হাসান সংবাদ সম্মেলনে আরও বলেন, ইউটিউবে এমডি ইসহাক খান নামে বিভিন্ন জঙ্গিবাদী লেকচারের অডিও ক্লিপ রয়েছে। লাইট হাউজ ডট কম নামীয় ব্লগ পেইজে সে তার উগ্রবাদী মতবাদ প্রচারণা করত। এছাড়া উগ্র মতবাদ ছড়িয়ে দেওয়ার লক্ষ্যে মানিকগঞ্জে একটি মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করে।

এছাড়া ইসহাকের দুই ভাই আরও দুইটি নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সগঠনের সক্রিয় সদস্য বলেও তিনি জানান।         

Author: স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম

জাতীয়

এ সম্পর্কিত আরও খবর

barta24.com is a digital news outlet

© 2018, Copyrights Barta24.com

Emails:

[email protected]

[email protected]

Editor in Chief: Alamgir Hossain

Email: [email protected]

+880 173 0717 025

+880 173 0717 026

8/1 New Eskaton Road, Gausnagar, Dhaka-1000, Bangladesh