Barta24

বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

সেরা ৬ স্টার্টআপ নির্বাচন করল বাংলালিংকের ‘আইটি ইনকিউবেটর

সেরা ৬ স্টার্টআপ নির্বাচন করল বাংলালিংকের ‘আইটি ইনকিউবেটর
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা: সেরা ৬ ডিজিটাল স্টার্টআপ নির্বাচন করে তাদের আগামী এক বছর অবকাঠামো উপকরণ ও প্রশিক্ষণ দেবে বাংলালিংকের ‘আইটি ইনকিউবেটর’।

বৃহস্পতিবার (১২ জুলাই) সন্ধ্যায় হোটেল লে মেরিডিয়ানে বাংলালিংক ও হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের যৌথ উদ্যোগে  ‘আইটি ইনকিউবেটর-এর গ্রান্ড গালা অনুষ্ঠানে নির্বাচিত ডিজিটাল উদ্যোক্তাদের অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়।

অসুস্থতার জন্য অনুষ্ঠানে উপস্থিত হতে পারেননি ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার।

নির্বাচিত ৬ ডিজিটাল স্টার্ট আপ হলো জিনি আইওটি, ছবির বাক্স, হোমফুডসকো, পাকলি, টিচ ইট, এবং ইজি সেন্স।

অনুষ্ঠানে বাংলালিংক এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এরিক এস বলেন, আইটি ইনকিউবেটরের সম্ভাবনাময় ডিজিটাল স্টার্টআপগুলোর প্রয়োজনীয় একটি প্লাটফর্ম তৈরিতে সক্ষম হয়েছে।

প্রতিভাবান উদ্যোক্তাদের পাশে দাঁড়িয়ে  উদ্ভাবনী পরিকল্পনাকে সফল উদ্যোগে পরিণত করার ক্ষেত্রে সাহায্য করবে বাংলালিংক।

২০১৬ সালের জুলাই মাসে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য প্রযু্ক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় আইটি ইনকিউবেটর উদ্বোধন করেন।

২০০ এর বেশি স্টাটআপ এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিলো। এর মধ্যে সেরা ছয়টি স্টার্টআপ বাছাই সম্পন্ন করে ইনকিউবেটর রাজধানীর কাওরান বাজারে জনতা টাওয়ারে অবকাঠামোসহ প্রশিক্ষণ ও অন্যান্য সহযোগিতা প্রদান করবে।

আপনার মতামত লিখুন :

বোর্ড সেরার মুকুট চট্টগ্রাম কলেজের

বোর্ড সেরার মুকুট চট্টগ্রাম কলেজের
এইচএসসি পরীক্ষায় কাঙ্ক্ষিত ফল পেয়ে উচ্ছ্বসিত চট্টগ্রাম কলেজের শিক্ষার্থীরা

গৌরব আর ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায় এবারও চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলে সেরা কলেজের মুকুট অর্জন করেছে চট্টগ্রাম কলেজ। ঘোষিত ফলাফলে সর্বাধিক জিপিএ-৫ পাওয়ার পাশাপাশি বিজ্ঞান শাখায় শতাধিক পাশের কৃতিত্ব দেখিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

বুধবার (১৭ জুলাই) দুপুরে চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের আনুষ্ঠানিক ফলাফল ঘোষণা করেন পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাহবুবুর রহমান। এরপরে স্ব স্ব কলেজের ফল প্রকাশিত হয়। দুপুর ২টা নাগাদ চট্টগ্রাম কলেজের ফল পাওয়া যায়।

ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, এবারের পরীক্ষায় প্রতিষ্ঠানটির ৮৩৯ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিয়েছেন। এর মধ্যে বিজ্ঞান শাখা থেকে শতাধিক পাশের সাথে ৫৪৯ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৪৯৩ শিক্ষার্থী। এছাড়া মানবিক বিভাগ থেকে অংশ নেওয়া ২৯০ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৬২ জন শিক্ষার্থী।
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/17/1563367361242.jpg
ফল জানার পরে কলেজ ক্যাম্পাসে বন্ধু আর সহপাঠিদের নিয়ে আনন্দ উৎসবে মেতে ওঠেন শিক্ষার্থীরা। তাদের আনন্দে ভিন্ন মাত্রা যোগ করে অভিভাবকদের অংশগ্রহণ।

মানবিক বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থী তানজিয়া বিনতে কবির এক প্রতিক্রিয়ায় বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, এমন মুহূর্তকে ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না। আম্মু, ভাইয়া আর শিক্ষকদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কারণে আকাঙ্ক্ষিত ফল অর্জন করেছি।

একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন তানজিয়া। অপরদিকে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ অর্জন করা শিক্ষার্থী ইরতিসাম উচ্চ শিক্ষা সম্পন্ন শেষে দেশের জন্য কিছু করার স্বপ্ন দেখেন বলে জানান।

সন্তানদের এমন অর্জনে অভিভাবকরা খুশি। নুরুল আবছার নামে এক অভিভাবক বলেন, মেয়েটা গতকাল থেকে চিন্তায় খাওয়া-দাওয়া ছেড়ে দিয়েছিল। রাত দিন অনেক পরিশ্রম করেছে, আজ ভালো রেজাল্ট পেয়ে অনেক খুশি।

অভিভাবক, শিক্ষক আর শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে এমন ফল ধরা দিয়েছে বলে জানালেন চট্টগ্রাম কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. আবুল হাসান। তিনি বলেন, শিক্ষক, অভিভাবক আর আমার সহকর্মীদের কারণে এমন ফল অর্জন করা সম্ভব হয়েছে। একটি চারাগাছকে সঠিকভাবে নার্সিং না করলে সেটি মারা যাবে। আমিও চেষ্টা করেছি শিক্ষার্থীদের চেষ্টার মূল্যায়ন করার।

এদিকে সেরা কলেজের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা মহসিন কলেজের ১ হাজার ৭৬৯ জন পরীক্ষার মধ্যে ৫৩৪ জন জিপিএ-৫, তৃতীয় স্থানে থাকা সিটি কলেজের ২ হাজার ১৫৪ জনের মধ্যে ৩২১ জন, চতুর্থ স্থানে থাকা ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক কলেজের ৯৫৩ জনের মধ্যে ২৫০ জন, পঞ্চম থানে থাকা সরকারি মহিলা কলেজের ১ হাজার ২৮০ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১৭৩ জন জিপিএ-৫ পেয়েছেন।

ঢাকায় ‘এডুকেশন ইউএসএ’ প্রি-ডিপারচার ওরিয়েন্টেশন

ঢাকায় ‘এডুকেশন ইউএসএ’ প্রি-ডিপারচার ওরিয়েন্টেশন
ওরিয়েন্টেশনে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল আর. মিলার, ছবি: সংগৃহীত

ঢাকায় অবস্থিত মার্কিন দূতাবাস বুধবার (১৭ জুলাই) আমেরিকান সেন্টারে শিক্ষার্থীদের জন্য ২০১৯ ‘এডুকেশন ইউএসএ’ প্রি-ডিপারচার ওরিয়েন্টেশনের আয়োজন করে।

বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল আর. মিলার এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাস থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

গত শিক্ষাবর্ষে যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৪.৯ শতাংশ বেড়ে ৭ হাজার ৪৯৬ জন হয়েছে। ২০১৮ সালের আন্তর্জাতিক শিক্ষা বিনিময় বিষয়ক ‘ওপেন ডোরস’ রিপোর্টে এ কথা বলা হয়েছে। বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের সংখ্যা বৃদ্ধির হার আন্তর্জাতিক গড় ১.৫ শতাংশকে পেছনে ফেলেছে।

যুক্তরাষ্ট্রে অধ্যয়নরত বিদেশি শিক্ষার্থীদের সংখ্যার দিক থেকে বাংলাদেশ বিশ্বের শীর্ষ ২৫টি দেশের একটি। যুক্তরাষ্ট্রে স্নাতক পর্যায়ে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের সংখ্যার দিক থেকেও এখন বাংলাদেশ বিশ্বে নবম স্থানে রয়েছে। ২০১৩ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের সংখ্যা বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে।

গত তিন বছরে যুক্তরাষ্ট্রের কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে বিদেশি শিক্ষার্থী ছিল ১০ লাখেরও বেশি। এবার এ সংখ্যা ১১ লাখ, যা একটি রেকর্ড। পরিসংখ্যান আরও বলছে, যুক্তরাষ্ট্রে উচ্চশিক্ষায় বিদেশি শিক্ষার্থীর সংখ্যা বৃদ্ধি টানা ১২ বছরের মতো অব্যাহত রয়েছে।

বাংলাদেশের কয়েকটি স্থানে ‘এডুকেশন ইউএসএ’র পরামর্শ সেবা ও রেফারেন্স সামগ্রী পাওয়া যায়। এর মধ্যে রয়েছে বারিধারায় অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের আমেরিকান সেন্টার, ধানমন্ডির ইএমকে সেন্টার ফর পাবলিক সার্ভিস অ্যান্ড দ্য আর্টস এবং চট্টগ্রামের আমেরিকান কর্নার। এসব স্থানে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত উপদেষ্টারা দলভিত্তিক তথ্য সেশন পরিচালনা করেন এবং শিক্ষার্থী ও তাদের বাবা-মায়েদের পরামর্শ দেন। এছাড়া সিলেট, খুলনা ও রাজশাহীর আমেরিকান কর্নারেও এডুকেশন ইউএসএ’র রেফারেন্স লাইব্রেরি এবং পরামর্শ সেবা নেওয়ার সুযোগ রয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র