খুলনায় উদ্বোধনের অপেক্ষায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য

  ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

খুলনা: বাংলাদেশ বেতার খুলনা কেন্দ্রে নির্মিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের নান্দনিক স্মৃতি ভাস্কর্যটি উদ্বোধনের অপেক্ষায়। ইতোমধ্যে ভাস্কর্যের সব কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। বাংলাদেশ বেতারের সহযোগিতায় তথ্য মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে আট কোটি ২৯ লাখ ৯১ হাজার টাকা ব্যয়ে ভাস্কর্যটি নির্মাণ করেছে গণপূর্ত বিভাগ। ভাস্কর্যটির মূল নকশা করেছেন প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে স্বর্ণপদক প্রাপ্ত শিল্পী লিটন পাল রনি। আর পরামর্শক ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের সহকারী অধ্যাপক ড. মুকুল কুমার বাড়ৈ।

শিল্পী লিটন পাল রনি বলেন, ‘ভাস্কর্যটিতে মূলত ৭ মার্চের ভাষণসহ জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর সেই ভাষণটি অমরত্ব লাভ করেছে। ব্যাকগ্রাউন্ডে ৭ মার্চে উপস্থিত জনতার মুখচ্ছবিও প্রতিফলিত হয়েছে। সবমিলেই খুলনায় বঙ্গবন্ধুর এ স্মৃতি ভাস্কর্যটি দেশবাসীর কাছে ভালো লাগবে।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/08/1533703804849.jpg

জানা গেছে, খুলনা-যশোর লোয়ার রোডের নূর নগর এলাকায় ছয় ফুট ফাউন্ডেশনের উপরে ১৫ ফুট দৈর্ঘ্যের ভাস্কর্যে ৭ মার্চের ভাষণের চিত্র ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। যা জাতিকে স্মরণ করিয়ে দেবে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালিকে। ভাস্কর্যের ফাউন্ডেশনের বাম দিকে জাতীয় চার নেতা ও ডান দিকে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পীদের প্রতিচ্ছবি প্রস্ফুটিত হয়েছে নান্দনিক ভাবে। সমগ্র ভাস্কর্যটির ব্যাকগ্রাউন্ডে রয়েছে ঢাকার রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ভাষণকালের শৈল্পিক নিদর্শন। এছাড়াও বঙ্গবন্ধু ভাস্কর্য কমপ্লেক্সের মধ্যে রয়েছে আরও চারটি ছোট আকৃতির ভাস্কর্য। যেগুলোতে জাতির পিতার ঐতিহাসিক সব মুহূর্ত ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। যা অতীতকে স্মরণ করিয়ে দেবে প্রজন্মের পর প্রজন্মকে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/08/1533703830620.jpg

ভেতরের ছোট ভাস্কর্যের একটিতে সংবিধানে বঙ্গবন্ধুর প্রথম স্বাক্ষর করার দৃশ্য, দ্বিতীয়টিতে ১৯৭৪ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘে বাংলায় ভাষণ দেওয়ার ঐতিহাসিক মুহূর্ত, তৃতীয়টিতে ছয়দফা ঘোষণাকালীন চিত্র এবং চতুর্থটিতে ১৯৭১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ঢাকার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে জাতীয় ও প্রাদেশিক পরিষদের নবনির্বাচিত এমএনএ এবং এমপিদের সমাবেশে স্বাধীকার আন্দোলনে শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করার দৃশ্য ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।

বাংলাদেশ বেতার খুলনার আঞ্চলিক পরিচালক মো. বশির উদ্দিন বলেন, ‘২০১০ সালে সদ্য সাবেক আঞ্চলিক পরিচালক শামসুর আলী বিশ্বাস বঙ্গবন্ধু স্মৃতি ভাস্কর্যটি নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করেছিলেন। সে অনুযায়ী আমাদের সহযোগিতায় তথ্য মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে গণপূর্ত বিভাগ এটির বাস্তবায়ন করেছে। তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু প্রধান অতিথি হিসেবে আজ ( ৮ আগস্ট) ভাস্কর্যটির উদ্বোধন করার কথা ছিল। অনিবার্য কারণবশত কর্মসূচি স্থগিত করা হয়েছে। পরবর্তীতে উদ্বোধনের তারিখ জানানো হবে বলে মন্ত্রণালয় থেকে আমাদের জানিয়েছে।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/08/1533703850871.jpg

সূত্রমতে, খুলনা বেতারের সামনে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি ভাস্কর্যে স্কাল্পচার (ভাস্কর্য) বেইজ, এক্সিবিশন গ্যালারি, এমপি থিয়েটার, ফাউন্টেন, গ্রিন্ডল্যান্ড স্কেপিং, ইন্টারনাল রোড, প্লান্টার বক্স, ফ্লাওয়ার বেড, মডেল অব স্কাল্পচার, আর্ট ওয়ার্ক, স্টোরেজ এবং ভাস্কর্য বেদীর চারদিকে ব্রোঞ্জের রিলিফ ওয়ার্কের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর জীবনের বিভিন্ন ঘটনা ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।