Alexa

টাঙ্গাইলে যুবকের লাশ উদ্ধার, অভিযোগ স্ত্রীর বিরুদ্ধে

টাঙ্গাইলে যুবকের লাশ উদ্ধার, অভিযোগ স্ত্রীর বিরুদ্ধে

নিহতের বাড়িতে স্বজনদের ভিড়, ছবি: বার্তা২৪

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, টাঙ্গাইল, বার্তা২৪.কম

টাঙ্গাইলে দেলদুয়ার উপজেলা নুরনবি (২৫) নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আর হত্যার অভিযোগ উঠেছে নিহতের স্ত্রীর বিরুদ্ধে। নিহত নুরনবি টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার আটিয়া ইউনিয়নে বাসিন্দা। সে ওই গ্রামের জুব্বার শিকদারের ছেলে।

শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) দিবাগত রাতে আটিয়া ইউনিয়নের গোমজানি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jan/05/1546691035826.gif

নিহতের মা লাইলি বেগম জানান, গত মাসে সদর উপজেলার কাতুলি গ্রামের সোরহাবের মেয়ে কল্পনার (২২) সঙ্গে আমার ছেলের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই আমাদের ও আমার ছেলের সঙ্গে কল্পনা খুব একটা কথা বলে না। ঘটনার দিন রাতে ঘরে গিয়ে দেখি নুরনবি শুয়ে আছে। পাশে কল্পনা দাঁড়িয়ে আছে। মেঝেতে ফাঁস লাগানো দড়ি পড়ে আছে।

প্রত্যক্ষদর্শী জিয়ারত মিয়া জানান, আমি রাতে বাড়ি ফিরছিলাম। হঠাৎ নুরনবির ঘরে কেউ ছটফট করছে এমন শব্দ শুনতে পাই। বিষয়টি সন্দেহজনক হলে আমি তার ঘরের মেঝের ফাঁক দিয়ে দেখতে পাই নুরনবিকে তার স্ত্রী খাটের নিচ থেকে তুলে খাটে ওঠাচ্ছে। পরে আমি প্রতিবেশী দারোগা আলী ও নুরনবির পরিবারকে অবহিত করি। এবং তার পরিবারকে বিষয়টি জানালে তার মা ঘরে গিয়ে তাকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়। নিহতের গলায় ফাঁস লাগানোর চিহ্ন পাওয়া গেছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jan/05/1546691059955.gif

স্থানীয়দের অভিযোগ, নুরনবিকে ঘুমন্ত অবস্থায় তার স্ত্রী কল্পনা গলায় দড়ি দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে হত্যা করেছে। নুরনবি ভ্যান চালাত। বিয়ের অল্প কয়দিনেই সে আত্মহত্যা করবে আমরা বিশ্বাস করি না। এছাড়া নুরনবি আত্মহত্যা করলে তার স্ত্রী অবশ্যই টের পেত।

দেলদুয়ার থানার (ওসি) সাইদুল হক ভূঁইয়া জানান, পুলিশ খবর পেয়ে শনিবার নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। প্রাথমিকভাবে আত্মহত্যার আলামত পাওয়া গেছে।

জেলা এর আরও খবর