Barta24

সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬

English

শীতের তীব্রতার সাথে বাড়ছে অগ্নিদগ্ধের ঘটনা

শীতের তীব্রতার সাথে বাড়ছে অগ্নিদগ্ধের ঘটনা
ছবি: বার্তা২৪
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
রংপুর
বার্তা ২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

দিন যতই গড়াচ্ছে ততই বাড়ছে শীতের প্রকট। কনকনে শীত আর হিমেল হাওয়ায় নাকাল হয়ে পড়েছে উত্তর জনপদ। নিম্ন আয়ের মানুষরা পর্যাপ্ত শীতবস্ত্রের অভাবে কাহিল। তাই খড়কুটো জ্বালিয়ে আগুনের উত্তাপ পেতে ঝুঁকছে শীতার্তরা। আর এতে বাড়ছে অগ্নিদগ্ধে হতাহতের ঘটনা।

গত এক সপ্তাহে রংপুর বিভাগের বেশ কয়েকটি জেলাতে আগুন পোহানোর সময় অন্তত ১৫ জন নারী ও শিশু দগ্ধ হয়েছে। এরমধ্যে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থাতে মারা গেছেন লালমনিরহাট জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার রাজিয়া বেগম (২৭), একই জেলার আদিতমারীর মোমেনা বেগম (৩২) এবং দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার স্বপ্না রানী (৩৪)। বাকিরা আগুন যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছেন হাসপাতালের বেডে। কেউ কেউ বেড না পেয়ে বারান্দাতে পড়ে আছেন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে চিকিৎসাধীন রোগীদের অধিকাংশ অগ্নিদগ্ধ। এদের মধ্যে লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড়ের রোগী বেশি রয়েছে। যারা আগুন পোহানোর সময় অসাবধানতা বশতঃ দগ্ধ হয়েছেন। এদের মধ্যে পাঁচজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক। হাসপাতালের ৬, ১৬ ও ১৮নং ওর্য়াডে অগ্নিদগ্ধ রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে।

রংপুর বিভাগে গত এক সপ্তাহ তাপমাত্রা ৭ থেকে ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে ওঠানামা করায় শীতের তীব্রতা বাড়ার সাথে সাথে বাতাসের বেগ। এতে ভোর থেকে শীতের ঝাঁকুনি অনূভূত হলেও তীব্রতা বাড়ছে বিকেলের পর। বিশেষ করে এই বিভাগের সীমান্তবর্তী জেলা পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও দিনাজপুর ও লালমনিরহাটে দিন দিন শীতের তীব্রতা বেড়েছে কয়েকগুণ।

বার্ন ইউনিট ঘুরে দেখা গেছে, বেড সংকুলান না হওয়ায় সার্জিকাল ওয়ার্ডের বারান্দায় রাখা হয়েছে রোগীদের। কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী এলাকার অগ্নিদগ্ধ লাবণ্য বেগম জানান, ‘তীব্র শীতে উপশম পেতে ধানের খড় দিয়ে আগুন পোহাতে গিয়ে অসাবধানতা বশতঃ শরীরে আগুন লেগে যায়। পুড়ে যায় কোমরের নিচ থেকে পা পর্যন্ত।’

একই কথা অন্যদের কন্ঠে। জানা গেছে চিকিৎসাধীনদের অধিকাংশই শীত থেকে রক্ষা পেতে ধান মাড়ানো পোয়াল, ধানগাছের ছোবড়া ও খড়কুটা জ্বালিয়ে আগুন পোহাতে গিয়ে দগ্ধ হয়েছে। দগ্ধ লোকজনের বেশির ভাগই নারী ও শিশু।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, সহকারী অধ্যাপক ডা. মারুফুল ইসলাম জানান, ‘শীতের কবল থেকে রক্ষা পেতে আগুন পোহানোর সময় অগ্নিদগ্ধ হয়ে গত বছর ১২ জন মারা যান। এ বছর এখন পর্যন্ত ১৫ জন অগ্নিদগ্ধ রোগী ভর্তি হয়েছে। প্রতিদিনই নতুন নতুন রোগী আসছেন। ওয়ার্ডে মোট বেড সংখ্যা ২৬টি থাকায় অধিকাংশ রোগীদের অনেকটা বাধ্য হয়ে ফ্লোরে রাখতে হচ্ছে।’ 

আপনার মতামত লিখুন :

কুষ্টিয়ায় বিদেশি পিস্তল ও মাদকসহ আটক ৩

কুষ্টিয়ায় বিদেশি পিস্তল ও মাদকসহ আটক ৩
পিস্তল ও মাদকসহ আটক তিনজন (মাঝে), ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

কুষ্টিয়ায় অভিযান চালিয়ে বিদেশি পিস্তল, গুলি, ফেনসিডিল ও গাঁজাসহ তিনজনকে আটক করেছে জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) সদস্যরা।

রোববার (২৫ আগস্ট) বিকেলে কুষ্টিয়া পূর্ব মিলপাড়ার শেখ আয়নাল আলী হেলাল নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

এ সময় একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগজিন, চার রাউন্ড গুলি, ৭৭ বোতল ফেনসিডিল, পাঁচশ’ গ্রাম গাঁজাসহ উদ্ধার করা হয়।

আটক ব্যক্তিরা হলেন-কুষ্টিয়া পূর্বপাড়ার শেখ আয়নাল আলী হেলাল (৫৬), কুমারখালী উপজেলার চড়াইকোল গ্রামের আব্দুল মোতালেবের ছেলে খাইরুল ইসলাম (৪৩) ও কুমারখালী উপজেলার জয়নাবাদ মণ্ডলপাড়ার আব্দুল মজিদের ছেলে দেলোয়ার হোসেন (৪৪)।

কুষ্টিয়া জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মমিনুল ইসলাম জানান, আটক তিনজনের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হচ্ছে।

কোম্পানীগঞ্জে দুর্বৃত্তদের হামলায় যুবক নিহত

কোম্পানীগঞ্জে দুর্বৃত্তদের হামলায় যুবক নিহত
জাবের হোসেন, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে দুর্বৃত্তদের হামলায় জাবের হোসেন (২৫) নামে এক যুবব নিহত হয়েছেন।

নিহত জাবের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের দানদরিগো বাড়ির লোকমান হোসেনের ছেলে।

নিহতের মামা ইসমাইল হোসেন রুবেল জানান, বিয়ে বাড়ি যাওয়ার কথা বলে শুক্রবার (২৩ আগস্ট) বাড়ি থেকে বের হন জাবের। পরে রাত ৯টার দিকে তাকে গুরুতর জখম অবস্থায় ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার সিলোনিয়া বাজার থেকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে চিকিৎসকের পরামর্শে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। তার মাথার আঘাত গুরুতর হওয়ায় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হচ্ছিল। একপর্যায়ে তার বাঁচার সম্ভাবনা ক্ষীণ হয়ে গেলে তাকে আইসিইউও থেকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়। পরে রোববার (২৫ আগস্ট) তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে বাড়ি আনার পথে দুপুর ২টার দিকে কুমিল্লায় তিনি মারা যান।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসাদুজ্জামান বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে জানান, এ অপরাধের ঘটনাস্থল দাগনভূঞা উপজেলার সিলোনিয়া বাজার। এ ঘটনায় দাগনভূঞার ওসি ব্যবস্থা নেবেন।

এ বিষয়ে দাগনভূঞা থানার ওসি আকরাম সিকদার বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, শুক্রবার রাত ৯টার দিকে ফেনীগামী চলন্ত অটোরিকশা থেকে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা গুরুতর জখম অবস্থায় জাবেরকে দাগনভূঞা উপজেলার জায়লস্কর ইউনিয়নের মহল্লা বাজার এলাকায় ফেলে রেখে যায়। যেহেতু এ ঘটনার উৎপত্তিস্থল সুনির্দিষ্ট নয়, তাই তার পরিবার চাইলে কোম্পানীগঞ্জ অথবা দাগনভূঞা, যে কোনো থানায় আইনের আশ্রয় নিতে পারবে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র