Barta24

শনিবার, ১৭ আগস্ট ২০১৯, ২ ভাদ্র ১৪২৬

English

নসিমন উল্টে চালক নিহত

নসিমন উল্টে চালক নিহত
ছবি: বার্তা২৪
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
ঝিনাইদহ
বার্তা ২৪ কম


  • Font increase
  • Font Decrease

 

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে নসিমন উল্টে খাইরুল ইসলাম (২৭) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে নসিমনে থাকা ২ যাত্রী।

বুধবার (৯ জানুয়ারি) সকালে কালীগঞ্জ উপজেলার নলডাঙ্গা সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত খাইরুল ইসলাম উপজেলার  পুকুরিয়া গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে।

কালীগঞ্জ থানার ওসি ইউনুস আলী জানান, সকালে নলডাঙ্গা বাজার থেকে দুই জন যাত্রী নিয়ে একটি নসিমন কালীগঞ্জ শহরে যাচ্ছিল। পথে নলডাঙ্গা সড়কের দরবেশ মিয়ার চাতালের সামনে পৌঁছালে নসিমনটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তায় উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হয় চালক খাইরুল ইসলাম।

পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

আপনার মতামত লিখুন :

রূপগঞ্জে পানিতে ডুবে ৫ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীর মৃত্যু

রূপগঞ্জে পানিতে ডুবে ৫ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীর মৃত্যু
পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু, ছবি: প্রতীকী

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে লেকে গোসল করতে নেমে পানিতে ডুবে সামিন মাহাদী (১২) নামের ৫ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (১৭ আগস্ট) দুপুরে উপজেলার তারাব পৌরসভার গর্ন্ধবপুর উত্তরপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মাহাদী রূপগঞ্জের গর্ন্ধবপুর উত্তরপাড়া এলাকার শহীদ আলমের ছেলে। সে স্থানীয় গর্ন্ধবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর ছাত্র।

মাহাদীর বাবা শহীদ আলম জানান, শনিবার দুপুর ১টায় তার সহপাঠী সোহায়েম, নয়ন, ইমতিয়াজসহ কয়েকজনের সঙ্গে বাড়ির সামনের লেকে গোসল করতে নামে সে।সাতার না জানায় গোসলের এক পর্যায়ে সে পানিতে তলিয়ে যায়। দুপুর দেড়টার দিকে লেকের পানিতে মাহাদীর দেহ ভেসে উঠে।

স্থানীয়রা দ্রুত মাহাদীকে উদ্ধার করে স্থানীয় ইউএস বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

যানবাহনের চাপ কমেছে দৌলতদিয়া ঘাটে

যানবাহনের চাপ কমেছে দৌলতদিয়া ঘাটে
রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ঘাট এলাকা। ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম।

দুপুরের পর থেকেই যানবাহনের চাপ কমেছে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ঘাটে। পর্যাপ্ত ফেরি এবং আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় কোনো যাত্রীবাহী বাসকেই আর ঘাটে এসে অপেক্ষা করতে হচ্ছে না।

শনিবার (১৭ আগস্ট) বিকেল ৪টায় সরেজমিনে দেখা যায়, দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্টে মাত্র ২০ থেকে ৩০টি যাত্রীবাহী বাস নদী পারের অপেক্ষায় রয়েছে। আর ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক এখন পুরোটাই ফাঁকা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/17/1566039288649.jpg

অন্যদিকে দৌলতদিয়া লঞ্চ ঘাটে দেখা গেছে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়। লোকাল বাস থেকে নেমে তারা সরাসরি লঞ্চ ঘাটে চলে যাচ্ছে।

দৌলতদিয়া লঞ্চ ঘাটের সুপারভাইজার মোহাম্মদ আলী বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে জানান, যাত্রীদের নদী পার করার জন্য দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ২৫টি লঞ্চ চলাচল করছে। যার কারণে ঘাটে কোনো চাপ নেই।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাট শাখার ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) আবু আব্দুল্লাহ রনি বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে জানান, দৌলতদিয়া ঘাটের ৬টি পল্টুনই চালু রয়েছে। আর এই নৌরুটে ১৯টি ফেরি চলাচল করছে। তাই ঘাটে এখন যানবাহনের চাপ নেই।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র