টাঙ্গাইলে শ্বাসরোধে প্রতিবন্ধী স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, টাঙ্গাইল, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে আনাইতারা ইউনিয়নের পাঁচদানা গ্রামে শিউলি বেগম (৪০) নামের প্রতিবন্ধী এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তার স্বামী জালাল মিয়া পলাতক রয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) সকালে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানায়, প্রায় ২০ বছর আগে এ উপজেলার চামারী ফতেপুর গ্রামের ছায়েদ আলীর ছেলে জালাল মিয়ার সাথে পাশ্ববর্তী পাঁচদানরা গ্রামের জাবেদ আলীর প্রতিবন্ধী মেয়ে শিউলী বেগমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্বামী তাকে এড়িয়ে চলতে থাকে। এক পর্যায়ে জালাল আরেকটি বিয়ে করে। দ্বিতীয় বিয়ের পর সে ওই স্ত্রীকে নিয়েই বসবাস করত। হঠাৎ বুধবার (৯ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় জালাল পাঁচদানা গ্রামে শিউলিদের বাড়ি আসে। রাতের খাবার শেষে দুজনেই এক ঘরে ঘুমিয়ে পরে।’

রাতের কোনো এক সময় জালাল স্ত্রী শিউলিকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে ঘরের বাইরে থেকে দরজা আটকিয়ে রাতের আধারে পালিয়ে যায়। পরে বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) সকাল নয়টা পর্যন্ত কোনো সাড়া না পেয়ে পরিবারের সদস্যরা ঘরের দরজা খুলে শিউলিকে বিছানার ওপর মৃত অবস্থায় দেখতে পায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

মির্জাপুর থানা ভারপ্রাপ্ত তদন্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোশারফ হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। তিনি জানান, জালাল মিয়া পলাতক রয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :