জেলা পরিষদের দোকান পেতে ঘুষ, লক্ষ্মীপুরে যুবক ধরা

জেলা পরিষদের দোকান পেতে ঘুষ, লক্ষ্মীপুরে যুবক ধরা। ছবি: বার্তা২৪.কম

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, লক্ষ্মীপুর, বার্তা২৪.কম

লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদের দোকানঘর ইজারা (লিজ) পাইয়ে দিতে ঘুষ দেওয়ার অভিযোগে মিজানুর রহমান মিজান নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে।

অসুদপায় অবলম্বন করায় বৃহস্পতিবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেন। আটক মিজান উপজেলার ভাদুর ইউনিয়নের সমেষপুর গ্রামের মৃত মন্তাজ মিয়ার ছেলে।

জানা গেছে, রামগঞ্জ পৌরসভার সোনাপুর ইউনিয়নের মৌলভী বাজারে জেলা পরিষদের ১০ ফুটের একটি দোকানঘর রয়েছে। সেখানে ৩০ বছর ব্যবসা করেছেন উপজেলার ভাদুর ইউনিয়নের সমেষপুর গ্রামের মন্তাজ মিয়া। ২০১৫ সালে তিনি মারা যান। তিনি মারা যাওয়ার আগে ওই জমিটি তার ছেলে সৌদি প্রবাসী মিজানুর রহমান মিজান ও দিনমজুর মো. বাবুলকে ইজারা নিতে বলে গেছেন। এদিকে জমিটি একা নিজের নামে ইজারা নেওয়ার জন্য মিজান চেষ্টা করে আসছেন।

ওই জমিটি তাকে ইজারা পাইয়ে দিতে কয়েকজন দালাল ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা ঘুষ নেয়। জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের নাম ভাঙিয়ে ওই ঘুষের টাকা নেওয়া হয়েছিল বলে অভিযোগ উঠেছে। চেয়ারম্যান বিষয়টি জানতে পেরে ঘুষ দাতা মিজানকে জেলা পরিষদে ডেকে আনেন। পরে তাকে লক্ষ্মীপুর সদর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেন।

লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান জানান, জেলা পরিষদে কোনো অনিয়ম-ঘুষ বাণিজ্য চলবে না। অসুদপায় অবলম্বন করায় একজনকে পুলিশে দেওয়া হয়েছে। এ নিয়ে কোনো প্রকার অনিয়ম বরদাস্ত করা হবে না।

জেলা এর আরও খবর