Barta24

রোববার, ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

English

মেলায় ফিরে এলো ঐতিহ্যবাহী বায়োস্কোপ

মেলায় ফিরে এলো ঐতিহ্যবাহী বায়োস্কোপ
মেলায় ঐতিহ্যবাহী বায়োস্কোপ / ছবি: বার্তা২৪
শরিফুল ইসলাম
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
নড়াইল
বার্তা ২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

কমরেড অমল সেনের ১৬তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে নড়াইলের সীমান্তবর্তী এলাকা বাকড়িতে শুরু হয়েছে দুই দিনব্যাপী অমল সেন মেলা। গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী এ মেলা দেখতে ছুটে আসছেন আশেপাশের কয়েকটি জেলার মানুষ।

এবারের মেলাতে বিশেষ নজর কেড়েছে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী বায়োস্কোপ। আধুনিক সমাজ থেকে হারিয়ে যাওয়া এ বায়োস্কোপ দেখতে ভিড় করছে কোমলমতি শিশু থেকে শুরু করে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।

জানা গেছে, প্রতি বছরের ন্যায় এবছরও কমরেড অমল সেন স্মৃতি রক্ষা কমিটির আয়োজনে নড়াইলের সীমান্তবর্তী এলাকা বাকড়িতে বৃহস্পতিবার (১৭ জানুয়ারি) থেকে শুরু হয়েছে দুই দিনব্যাপী অমল সেন মেলা। এবারের মেলায় শিশুসহ দর্শনার্থীদের নজর কেড়েছে গ্রামবাংলা থেকে হারিয়ে যাওয়া বায়োস্কোপ দেখা।

যেখানেই মেলা হয় সেখানেই বায়োস্কোপের বাক্সটি নিয়ে চলে যান ৫২ বছরের ওলিয়ার রহমান। এ মেলায়ও তার ব্যাতিক্রম ঘটেনি। নড়াইলে ছুটে এসেছে শিশুদের বিনোদন দিতে। কাঠের এই বাক্সটির মধ্যে প্রধানমন্ত্রী, দেব-দেবী, নায়ক-নায়িকা, বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানের ছবি দেখে আনন্দে আত্মহারা কোমলমতি শিশুরা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jan/17/1547742907365.jpg

ঝিনাইদহর শৈলকুপা উপজেলার বগুড়া গ্রামে ওলিয়ার রহমান বাড়ি। সংসারে রয়েছে স্ত্রীসহ ২ ছেলে ও ২ মেয়ে। দীর্ঘ ২৫ বছর যাবত বায়োস্কোপ দেখিয়ে সংসার চালিয়ে জীবন-যাপন করছেন। এর পর প্রায় ১০ বছর বায়োস্কোপ দেখানো বন্ধ থাকলেও ফিরে এসেছেন নতুন করে। আগে বিভিন্ন হাট-বাজারে দর্শকদের বায়োস্কোপ দেখিয়ে ৪০ থেকে ৬০ টাকা পর্যন্ত আয় হতো। বর্তমানে দিনের খরচ বাদে ৩ থেকে ৪০০ টাকা পর্যন্ত আয় করেন তিনি।

ওলিয়ার রহমান জানান, আগে ৫০ পয়সায় জন প্রতি বায়োস্কোপ দেখালেও ধীরে ধীরে এখন ১০ টাকায় উত্তীর্ণ হয়েছে। নতুন করে বায়োস্কোপের বাক্সটি তৈরি করতে সাড়ে ৪ হাজার টাকা ব্যায় করতে হয়েছে। সাথে রয়েছে বিভিন্ন ছবিসহ অন্যান সরঞ্জমাদি।

বাইস্কোপ দেখে বিলাশ বিশ্বাস নামের এক দর্শক বলেন, ‘আমি আগে কখনো বায়োস্কোপ দেখিনি এবারই প্রথম দেখলাম।

অঞ্জন দাস নামের আরেকজন বলেন, ‘আমাদের বাবা-ঠাকুরদার কাছে বায়োস্কোপের গল্প শুনেছি। আজ দেখলাম, সত্যিই অনেক ভাল লাগছে।’

অনিতা নামের একজন বলেন, ‘বায়োস্কোপ প্রথমবার দেখলাম। এর মধ্যেও অনেক কিছু শেখার আছে।’

আধুনিক সভ্যতার যুগে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী পুরাতন এই বিনোদন টিকিয়ে রাখার দাবি নড়াইলের সাংস্কৃতিক কর্মি শামীমূল ইসলাম টুলুর।

আপনার মতামত লিখুন :

ভোলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দোকান কর্মচারীর মৃত্যু

ভোলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দোকান কর্মচারীর মৃত্যু
ছবি: প্রতীকী

ভোলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মানিক (২৪) নামে এক দোকান কর্মচারীর মৃত্যু হয়েছে।

রোববার (২৫ আগস্ট) দুপুরে ভোলা সদর রোডে অবস্থিত সফিউদ্দিন মালিকানাধীন জাপান গ্লাস হাউজে এ ঘটনা ঘটে।

মানিক ভোলা সদর উপজেলার ধনিয়া ইউনিয়নের আলগী গ্রামের মো. রতনের ছেলে।

জানা গেছে, দুপুরের দিকে দোকানের দ্বিতীয় তলায় অবস্থিত গোডাউন থেকে এস এস পাইপ নামাচ্ছিলেন মানিক। তখন অসাবধানতা বশত একটি পাইপ পাশে বিদ্যুতের তারে গিয়ে লাগে। এতে মানিক বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। তাকে দ্রুত উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ভোলা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ছগির মিয়া এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মাদারীপুরের শিবচরে ট্রাকের চাপায় নিহত ১

মাদারীপুরের শিবচরে ট্রাকের চাপায় নিহত ১
সড়ক দুর্ঘটনার প্রতীকী ছবি

ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের মাদারীপুরের শিবচরে ট্রাকের চাপায় জাকির ফকির (৩৫) নামের একজন নিহত হয়েছেন। নিহত জাকির হোসেন শিবচর উপজেলার বাবলা তলা এলাকার ইমারত ফকিরের ছেলে। সে পেশায় ভ্যান চালক।

রোববার (২৫ আগস্ট) সন্ধ্যা ছয়টার দিকে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের হাজী শরিয়তউল্লাহ সেতুর পূর্বপাড়ে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সন্ধ্যার দিকে কাঠালবাড়ি ঘাট থেকে ভাঙ্গাগামী একটি মালবাহী ট্রাক একটি ভ্যানকে চাপা দেয়। এ সময় ভ্যান চালক ঘটনাস্থলেই মারা যান।

শিবচর হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নবী হোসেন বলেন, 'একটি ট্রাক ভ্যানটিকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই ভ্যানের চালক মারা যায়। ট্রাকটি আটকের চেষ্টা চলছে।'

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র