Barta24

বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

হলুদের গ্রামে কেউ গরিব নেই

হলুদের গ্রামে কেউ গরিব নেই
হলুদ গ্রাম। ছবি: বার্তা২৪.কম
গনেশ দাস
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বগুড়া
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

হলুদের গ্রাম বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার গরিবপুরের মানুষ এখন আর গরিব নেই। হলুদ চাষ করে অনেক পরিবারেই ফিরে এসেছে আর্থিক সচ্ছলতা। কেউ নিজের জমিতে হলুদ চাষ করছে, আবার যাদের জমি নেই তারা কাঁচা হলুদ কিনে এনে সিদ্ধ করে শুকিয়ে বাজারে বিক্রি করছে।

শুধু গরিবপুর নয়, হলুদের চাষ ছড়িয়ে পড়েছে পার্শ্ববর্তী গনেশপুর, উথলী, রথবাড়ি, নারায়ণপুর, শহরতলীসহ আরও অনেক এলাকায়।

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার এই গ্রামগুলোতে হলুদ চাষ হচ্ছে ব্যাপক হারে। তবে এ ব্যবসার সঙ্গে জড়িতরা বলছেন, আগের মতো এখন আর হলুদ চাষ হয় না।

জানা গেছে, এক সময় গরিবপুর ও তার আশপাশের গ্রামগুলোতে হলুদ ছাড়া অন্য কোনো ফসল চাষ করা হতো না। আর এ কারণেই গরিবপুর গ্রামকে হলুদের গ্রাম বলা হয়।

তবে কৃষি বিভাগ বলছে, মাঝে কিছুটা কমলেও প্রতি বছরই হলুদ চাষ বাড়ছে।

গরিবপুর ও তার আশপাশের গ্রামগুলো ঘুরে দেখা গেছে, শত শত নারী-পুরুষ কাঁচা হলুদ প্রক্রিয়াজাত করতে ব্যস্ত সময় পার করছে। কেউ কাঁচা হলুদ সিদ্ধ করছে, আবার কেউবা তা রোদে শুকানোর কাজে ব্যস্ত। আবার অসংখ্য নারী রোদে শুকাতে দেয়া হলুদ বাছাই করছে।

গরিবপুর গ্রামের হলুদ ব্যবসায়ী শাহ আলম এবং রেজ্জাকুল বার্তা২৪.কমকে জানান, হলুদের ব্যবসা করে তারা এখন আর্থিকভাবে সচ্ছল। তবে বিভিন্ন কোম্পানিতে শুকনা হলুদের চাহিদা বেড়ে গেলেও আগের মতো ব্যবসায় লাভ নেই।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/12/1549975795408.jpg

তারা আরও জানান, কোম্পানিগুলোর চাহিদা মেটাতে নিজের এলাকা ছাড়াও জয়পুরহাট, পাঁচবিবি, ডোমার, নীলফামারী গোবিন্দগঞ্জ এলাকা থেকে তাদের কাঁচা হলুদ কিনতে হচ্ছে। এতে হাটের খাজনা এবং পরিবহন ব্যয় বহন করতে হয়। এরপর সিদ্ধ, শুকানো এবং বাছাই করে কোম্পানিতে সরবরাহ করে টাকার জন্য মাসের পর মাস অপেক্ষায় থাকতে হয়।

স্থানীয় মজনু শেখ জানান, গরিবপুর গ্রামে কমপক্ষে ৩০ জন ব্যবসায়ী রয়েছেন যারা হলুদের পাইকারি ব্যবসা করে আর্থিক সচ্ছলতা ফিরে পেয়েছেন।

কাঁচা হলুদ সিদ্ধ-শুকানোর কাজে নিয়োজিত নারী শ্রমিক জমিলা ও রাহেলা জানান, পৌষ মাস থেকে চৈত্র মাস পর্যন্ত তাদের মতো দুই শতাধিক নারী হলুদের কাজ করে থাকেন। সংসারে অন্যান্য কাজের ফাঁকে তারা এই চার মাস হলুদ সিদ্ধ ও শুকানোর কাজ করে বাড়তি আয় করেন। ফলে তারাও এখন আর্থিকভাবে সচ্ছল।

বগুড়া কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ সূত্র জানায়, শিবগঞ্জ উপজেলা ছাড়াও চলতি মৌসুমে জেলায় ৫৮০ হেক্টর জমিতে হলুদ চাষ করা হয়েছে। গত মৌসুমে চাষ হয়েছিল ৬৮০ হেক্টর জমিতে। এর আগের বছর চাষ করা হয়েছিল ৩৮০ হেক্টর জমিতে। ফলনের পরিমাণ হেক্টর প্রতি চার থেকে সাড়ে চার মেট্রিক টন হয়ে থাকে।

আপনার মতামত লিখুন :

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রাকের ধাক্কায় বাইসাইকেল আরোহী নিহত

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রাকের ধাক্কায় বাইসাইকেল আরোহী নিহত
ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর উপজেলার নয়াগোলা এলাকায় ট্রাকের ধাক্কায় মন্টু আলী (৬৫) নামে এক বাইসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন।

বুধবার (১৭ জুলাই) সকালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত মন্টু আলী সদর উপজেলার সাতনইল দক্ষিণপাড়া এলাকার মৃত সওদাগর মণ্ডলের ছেলে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইদ্রিশ আলী জানান, সকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর উপজেলার নয়াগোলা এলাকায় ওই বাইসাইকেল আরোহীকে ধাক্কা দেয় একটি ট্রাক। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মাছ উৎপাদনে নড়াইল উদ্বৃত্ত জেলা

মাছ উৎপাদনে নড়াইল উদ্বৃত্ত জেলা
ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর

নড়াইল মাছ উৎপাদনে উদ্বৃত্ত জেলা। এখানে চাহিদার চেয়ে বেশি মৎস্য উৎপাদন হয়ে থাকে। জেলাটিতে মাছের চাহিদা রয়েছে ১৬ হাজার ৪৫৪ মেট্রিক টন, কিন্তু উৎপাদন হয় ২৩ হাজার ২৫৫ মেট্রিক টন।

নড়াইলে উদ্বৃত্ত মাছের পরিমাণ ৬ হাজার ৮০১ মেট্রিক টন। চিংড়ির উৎপাদন ২ হাজার ৫৮৫ মেট্রিক টন। জেলায় মৎস্য চাষীর সংখ্যা ৭ হাজার ১২৯ জন এবং নিবন্ধিত জেলের সংখ্যা ৮ হাজার ৭১৭ জন।

জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে বুধবার (১৭ জুলাই) নড়াইলে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় এসব তথ্য জানান জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ড. শেখ শফিকুর রহমান।

তিনি বলেন, সদর উপজেলার বাহিরগ্রামের মৃত অশোক সমাদ্দারের ছেলে অঞ্জন সমাদ্দার চিংড়ি মাছ উৎপাদনে সাফল্য অর্জন করায় এবছর সিলভার পদকে ভূষিত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে তিনি এই পুরস্কার গ্রহণ করবেন।

সভায় বক্তব্য দেন সহকারী পরিচালক হোসনে আরা হ্যাপী, সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা এনামুল হক, নড়াইল প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি এনামুল কবীর টুকু, সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম তুহিন প্রমুখ।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র