Barta24

বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

ফেসবুকের কল্যাণে সোনালী হাসপাতালে

ফেসবুকের কল্যাণে সোনালী হাসপাতালে
সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয় ৭ বছর বয়সী সোনালী, ছবি: বার্তা২৪
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
ফরিদপুর
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

একটি সড়ক দুর্ঘটনা। তছনছ করে দিয়ে গেছে সোনালীর পরিবারকে। আর দারিদ্রতা বিষিয়ে তুলেছে শিশুটির জীবন। পায়ে পচন ধরেছে। মারাত্মক যন্ত্রণা নিয়ে চিকিৎসার অভাবে দিন কাটছিল তার।

বলছি ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার কামালখালী ইউনিয়নের মছলন্দপুর গ্রামের আছাদ আর্জিনা দম্পত্তির বড় মেয়ে সোনালী র কথা। দুই বোনের মধ্যে সোনালী বড়।

জানা গেছে, গত বছর ২৬ আগস্ট মামা বাড়ি বেড়াতে গিয়ে একটি নছিমনে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয় ৭ বছর বয়সী সোনালী । দুর্ঘটনায় তার ডান পা মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্থ হয়। ওই সময় তাকে স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে নেওয়া হয়। সেখান থেকে চিকিৎসা নিয়ে পরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অর্থভাবে চিকিৎসা করাতে না পেরে সোনালীকে বাড়ি নিয়ে যাওয়া হয়।

সোনালীকে চিকিৎসার জন্য ফরিদপুরে আনতে না পেরে স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে সোনালীর চিকিৎসা করান। কিন্তু আস্তে আস্তে শিশুটি সুস্থ না হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে। দরিদ্র পিতা অনেক চেষ্টা করেও অর্থ জোগাড় করতে না পারায় সোনালীর পায়ের ক্ষতস্থানে ফুলে যায় এবং একপর্যায়ে চলাফেরা বন্ধ হয়ে যায়। সোনালী কামারখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণিতে পড়ত। দুর্ঘটনার পর আর স্কুলে যাওয়া হয়নি তার।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Feb/16/1550326944921.JPG

গত ১৪ ডিসেম্বর স্থানীয় দিদার নামের এক সরকারি চাকরিজীবী ছুটিতে বাড়িতে এসে সোনালীর পায়ের দুরবস্থার ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে। তারপর একের পর এক শেয়ারে তা ছড়িয়ে পরে। একপর্যায়ে নজরে আসে ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়ার। তার নির্দেশে আজ শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সোনালীকে ভর্তি করা হয়। সোনালী ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ট্রমা সেন্টারে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তার সঙ্গে এসেছেন তার দাদী রুপসী বেগম ও চাচা শহিদুল।

তারা জানান, সোনালীর বাবাও মানসিকভাবে অসুস্থ। দরিদ্রতার কারণে চিকিৎসা করার হাল ছেড়ে দিয়েছে। তাই তারা সঙ্গেও আসেনি। আপনাদের উপর ভরসা করে নিয়ে এসেছি দয়া করে ওকে বাঁচান।

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক অনাদী রঞ্জন মন্ডল জানিয়েছেন, অনেক দেরি হয়ে গেছে। সময় মতো চিকিৎসা পেলে হয়তো এই অবস্থা হতো না। ওর জন্য রোববার একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হবে। পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া বলেন, অসহায়দের পাশে ফরিদপুর জেলা প্রশাসন সব সময় আছে। অর্থাভাবে একটি শিশুর ভবিষ্যৎ নষ্ট হয়ে যাবে এটা মেনে নেওয়া যায় না। তাই সোনালীর দূরাবস্থার কথা জেনে তাৎক্ষণিকভাবে তাকে হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করেছি। তার জন্য উন্নত চিকিৎসার সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :

পানির নিচে ফসলি জমি, দাম বেড়েছে সবজির

পানির নিচে ফসলি জমি, দাম বেড়েছে সবজির
তলিয়ে যাওয়া ফসলি মাঠে মাথা বের করে আছে পাট গাছ, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

গত কয়েক দিনে যমুনা ও বাঙ্গালী নদীর পানি বৃদ্ধির কারণে তলিয়ে গেছে বগুড়ার ফসলি জমি। সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে বিভিন্ন ধরনের সবজি এবং কাঁচা মরিচের জমি। এতে বাজারে সবজির দাম বেড়েছে কয়েকগুণ।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) বন্যা কবলিত এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, মাঠের পর মাঠ শুধু পানি আর পানি। তবে দু-এক জায়গায় মাথা বের করে থাকা পাট গাছ দেখে বোঝা যায় যে, এটি ফসলের মাঠ।

জানা গেছে- পূর্ব বগুড়ার গাবতলী, সারিয়াকান্দি ও সোনাতলা উপজেলায় প্রচুর পরিমাণ সবজি ও মরিচ চাষ হয়ে থাকে। স্থানীয় চাহিদা মেটানোর পর ওই সবজি শহরে বিক্রি হয়। কিন্তু বন্যায় পূর্ব বগুড়ার সবজি শহরে আসছে না। এ কারণে গত কয়েকদিনে সবজির দাম বেড়েছ কয়েকগুণ।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/18/1563454852700.jpg

বৃহস্পতিবার বগুড়ার বিভিন্ন হাট বাজারে প্রতি কেজি কাঁচা মরিচ ১২০ টাকা, বেগুন ৬০ টাকা, কচুর মুখি ৫০ টাকা,করলা ৬০ টাকা,কাকরোল ৬০ টাকা, ঢেড়শ ৬০ টাকা, পটল ৩০ টাকা, মিষ্টি লাউ ৩০ টাকা, পুইশাক ২০ টাকা, লাল শাক ৪০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। সাধারণত এ সময় সবজির দাম হতো এর অর্ধেক।

জেলা প্রশাসনের হিসাব অনুযায়ী- বন্যা কবলিত সোনাতলা, সারিয়াকান্দি ও ধুনট উপজেলায় ৮ হাজর ৯৭৮ হেক্টর জমির ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এরমধ্যে রয়েছে আউশ ধান, বিভিন্ন ধরনের সবজি, মরিচ, আমন বীজতলা ও আখ।

এদিকে, বাঙ্গালী নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যায় ফসলি জমির পাশাপাশি ওই তিন উপজেলার চরাঞ্চলের মানুষগুলো পানিবন্দি হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

অন্যদিকে, যমুনা নদীর পানিও বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ৩টা পর্যন্ত পানি বিপদসীমার ১২৭ সেন্টিমটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, আগামী শনিবার (২০ জুলাই) পর্যন্ত পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকবে। এরপর পানি কমতে শুরু করবে।

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা আজাহার আলী মন্ডল বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘বন্যা দুর্গত এলাকায় ২ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে এবং ৩৩৭ মেট্রিক টন জিআর চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে বিতরণের জন্য। এছাড়া জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে উপজেলা প্রশাসনকে অতিরিক্ত ত্রাণের জন্য স্থানীয়ভাবে সারিয়াকান্দিতে ৫ লাখ, সোনাতলায় ২ লাখ এবং ধুনটে ১ লাখ টাকার শুকনো খাবারের ব্যবস্থা করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

নিখোঁজের দুইমাস পর খণ্ড-বিখণ্ড কঙ্কাল উদ্ধার

নিখোঁজের দুইমাস পর খণ্ড-বিখণ্ড কঙ্কাল উদ্ধার
উদ্ধারকৃত কঙ্কাল, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার দেবীপুর ইউনিয়নের নুরুল হক (৭০) নামের এক ব্যক্তির নিখোঁজের দুইমাস পরে ভুট্টা ক্ষেত থেকে খণ্ড-বিখণ্ড কঙ্কাল উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) দুপুরে ঐ ইউনিয়নের স্কুলপাড়া গ্রামের আলি আখতার রাজুর ভুট্টা ক্ষেত থেকে কঙ্কালটি উদ্ধার করা হয় বলে জানান সদর থানার এসআই মুকুল।

নিহত ব্যক্তি আরাজী কুমারপুর গ্রামের মৃত তমির উদ্দীনের ছেলে।

পুলিশ জানায়, দুপুরের দিকে ভুট্টা ক্ষেতে কৃষকেরা ভুট্টা তুলতে গেলে এই বৃদ্ধার কঙ্কালটি দেখতে পায়। পরে স্থানীয় চেয়ারম্যান থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে খণ্ড-বিখণ্ড কঙ্কালটি উদ্ধার করে।

এ সময় উদ্ধারকৃত কঙ্কালটির পরনে থাকা একটি কাপড় দেখে তাকে চিনতে পারেন তার স্বজনেরা।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি আশিকুর রহমান বলেন, 'উদ্ধারকৃত কঙ্কালটি নিয়ে আসা হয়েছে। মেডিকেল পরীক্ষার পরে কঙ্কালটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।'

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র