Barta24

বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

দায় দেনায় জর্জরিত পটুয়াখালী পৌরসভা!

দায় দেনায় জর্জরিত পটুয়াখালী পৌরসভা!
পটুয়াখালী পৌরসভা, ছবি: বার্তা২৪
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
পটুয়াখালী
বার্তা২৪


  • Font increase
  • Font Decrease

পটুয়াখালী পৌরসভা শতাব্দীর প্রাচীনতম একটি প্রতিষ্ঠান। ১৮৯২ সালে ১লা এপ্রিল ২৬ বর্গকিলোমিটার এলাকা নিয়ে পটুয়াখালী পৌরসভা গঠিত হয়। দীর্ঘ দিনেও পৌর এলাকায় তেমন উল্লেখযোগ্য উন্নয়ন হয়নি। শহরের কিছু কিছু সড়ক উন্নয়ন হলেও অনেক এলাকায় এখনও আছে মাটির রাস্তা। তবে এত কিছুর মাঝেও দিন দিন এই পৌরসভাটি দেনায় জর্জরিত হচ্ছে।

এর মধ্যে পটুয়াখালী পৌরসভার কাছে বিদ্যুৎ বিভাগের পাওনা সাড়ে পাচঁকোটি টাকার বেশি। এ ছাড়া পৌর কর্মকর্তা কর্মচারীদের নয় মাসের বেতন ভাতা বকেয়া রয়েছে। বকেয়া রয়েছে বিভিন্ন প্রচার প্রচারণা ও বিজ্ঞাপন বিলও। তবে সব মিলিয়ে পটুয়াখালী পৌরসভা বর্তমানে কত কোটি টাকার দেনায় রয়েছে সে বিষয়ে সুস্পষ্ট কিছু জানা যায়নি।

অনুসন্ধানে জানা যায়, পটুয়াখালী ওয়েস্টজোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড (ওজোপডিকো) পটুয়াখালী পৌরসভার কাছে ১৭ টি সংযোগের বিপরীতে ডিসেম্বর ২০১৮ পর্যন্ত পাওনার পরিমাণ ৫ কোটি ৬১ লাখ ৩৪ হাজার ৯১৬ টাকা। এই বকেয়া টাকা উত্তোলনের জন্য বিভিন্ন সময় নোটিশ প্রদানসহ একাধিকবার সংযোগ বিচ্ছিন্ন করলেও বকেয়া টাকা উদ্ধারে তেমন একটি সফলতার মুখ দেখেনি ওজোপাডিকো কর্তৃপক্ষ।

সংস্থাটির নির্বাহী প্রকৌশলী মু.আ.সালেক খান বলেন, ‘পটুয়াখালী পৌরসভার প্রতিমাসে ৮ থেকে ১০ লাখ টাকা বিদ্যুৎ বিল হয়ে থাকে। প্রতি মাসের বিল পরিশোধ করলে কিংবা অল্প অল্প করে পরিশোধ করলেও এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হতো না।
তবে আমরা এসব বিল আদায়ের চেষ্টা করছি।’

এদিকে পৌর কর্মকর্তা কর্মচারীরা সারা বছর পৌরবাসীকে সেবা প্রদান করলেও গত নয় মাস যাবত তাদের বেতন ভাতা বকেয়া রয়েছে। পৌরসভার সূত্র জানায়, এই বকেয়া বেতন ভাতা পরিশোধ করতে প্রায় আড়াই কোটি টাকা প্রয়োজন। প্রতিমাসে কর্মকর্তা কর্মচারীদের বেতন ভাতা পরিশোধ করতে ২৭ লাখ ৫০ হাজার ৩৪৫ টাকা প্রয়োজন হয়ে থাকে। পৌরসভার মোট স্থায়ী জনবলের সংখ্যা ১৩২ জন, চুক্তি ভিত্তিক রয়েছে ১১ জন এবং পরিচ্ছন্ন কর্মী আছেন ২১০ জন ।

অপরদিকে বিভিন্ন সময় পটুয়াখালী পৌরসভা বিভিন্ন টেন্ডার, বিজ্ঞপ্তি ও প্রচার, প্রচারণার জন্য বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশ করলেও যেসবের অধিকাংশরই বিল বকেয়া রয়েছে। এ নিয়ে বিভিন্ন সময় সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো তাগাদা দিলেও পৌরসভা বিল পরিশোধ করেনি।

বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কাছে পৌরসভা এই বিপুল অংকের টাকা দেনা থাকলেও গত তিন বছর যাবত পৌর নির্বাচন আটকে আছে। গত ২২ জানুয়ারি নির্বাচন কমিশন পটুয়াখালী পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করলে নির্বাচনী কার্যক্রম শুরু হয়। তবে এরই মধ্যে নির্বাচনকে বন্ধ করতে আদালতে বেশ কয়েকটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সর্বশেষ তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি পটুয়াখালী পৌরসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবার কথা রয়েছে। সর্বশেষ ২০১১ সালের ১৩ জানুয়ারি পটুয়াখালী পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। তবে ২০১৬ সালে মেয়াদ পূর্তি হলেও সীমানা বর্ধিতকরণ ও মামলা জটিলতায় আটকে যায় নির্বাচন।

আপনার মতামত লিখুন :

গোবিন্দগঞ্জে ইয়াবাসহ চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

গোবিন্দগঞ্জে ইয়াবাসহ চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার
ইয়াবা, ছবি: সংগৃহীত

গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী আবদুল হালিম মধুকে (৪২) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার (২৬) রাত ১০টার দিকে গোবিন্দগঞ্জের কাটাখালি বালুয়া এলাকা থেকে ৩০০ পিস ইয়াবাসহ মধুকে গ্রেফতার করা হয়।

আটক মধু জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার বগুলা গাড়ি গ্রামের হাসান আলীর ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে গোবিন্দগঞ্জ থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) বার্তা২৪.কমকে জানান, মধু দীর্ঘদিন ধরে মাদক ব্যবসা করে আসছিলেন। মধুর বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে তিনটি মাদক মামলা বিচারাধীন। জামিন নিয়ে আবার মাদক ব্যবসা করছিলেন তিনি। খবর পেয়ে রাতে অভিযান চালিয়ে ৩০০ পিস ইয়াবাসহ তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ বিষয়ে তার বিরুদ্ধে থানায় আরো একটি মাদক মামলা করা হয়েছে।

আদিতমারীতে ট্রাকচাপায় বাবার পর প্রাণ গেল ছেলেরও

আদিতমারীতে ট্রাকচাপায় বাবার পর প্রাণ গেল ছেলেরও
পূর্ণ রায়, ছবি: সংগৃহীত

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার পলাশী বাজার এলাকায় ট্রাকচাপায় বাবার মৃত্যুর পর ছেলে পূর্ণ রায়ও (২০) প্রাণ হারালেন। এ নিয়ে এ দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে তিনজনে দাঁড়াল।

বুধবার (২৬ জুন) রাত সাড়ে ১১টার দিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পূর্ণ রায়ের মৃত্যু হয়।

এর আগে সকাল সাড়ে ৭টায় ঘটা এ দুর্ঘটনায় মারা যান পূর্ণ চন্দ্র রায়ের বাবা নান্দু রায় (৫৫) ও অটোরিকশার চালক রবিউল ইসলাম (৪২)। তারা লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলা কাকিনা ইউনিয়নের ওয়াবদা বাজার এলাকার বাসিন্দা।

আরও পড়ুন: লালমনিরহাটে ট্রাকচাপায় নিহত ২

আদিতমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম বার্তা২৪.কমকে জানান, কনস্টেবল নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ নিতে ব্যাটারি চালিত একটি অটোরিকশা ভাড়া করে লালমনিরহাট পুলিশ লাইনে যাচ্ছিলেন অভিভাবকসহ কালীগঞ্জের ওয়াবদা বাজার এলাকার আটজন। পথে পলাশী বাজারের কাছে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাকের চাপায় অটোরিকশাটি দুমড়ে মুচড়ে যায় এবং ঘটনাস্থলেই অটোরিকশার চালক রবিউল ও যাত্রী নান্দু চন্দ্র মারা যান। আহত হন নান্দুর ছেলে পূর্ণসহ আরো অন্তত ১০ জন। আহতদের মধ্যে চারজনকে রংপুর মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে মৃত্যু হয় পূর্ণ রায়ের।

 

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র