Barta24

মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯, ১১ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

পাচারকারীদের ফেলে যাওয়া নৌকায় সাড়ে ৮ লাখ ইয়াবা

পাচারকারীদের ফেলে যাওয়া নৌকায় সাড়ে ৮ লাখ ইয়াবা
উদ্ধারকৃত ইয়াবাসহ বিজিবির সদস্যরা, ছবি: বার্তা২৪
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
কক্সবাজার
বার্তা ২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

কক্সবাজারের টেকনাফের নাফ নদীর মোহনায় মাদক পাচারকারীরা একটি নৌকা ফেলে যায়। ওই নৌকা তল্লাশি করে ৮ লাখ ৪০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে বিজিবি। এ সময় নৌকাটিও জব্দ করা হয়।

রোববার (১০ মার্চ) মধ্যরাতে বার্তা২৪.কম-কে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন টেকনাফস্থ বিজিবি-২ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল আছাদুদ-জামান চৌধুরী।

তিনি জানান, মিয়ানমার থেকে নাফ নদী পাড়ি দিয়ে ইয়াবার একটি বড় চালান আসছে এমন খবরে উপজেলার দমদমিয়ার ওমরখালী নাফ নদীর মোহনায় অবস্থান নেই বিজিবি সদস্যরা। বিজিবির অবস্থান টের পেয়ে নৌকা রেখে পালিয়ে যায় পাচারকারীরা। পরে নৌকা তল্লাশি করে এসব ইয়াবা পাওয়া যায়।

তিনি আরও জানান, ইয়াবাগুলো বিজিবি দফতরে রাখা হয়েছে। যা পরবর্তীতে ধ্বংস করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :

পুলিশ নিয়োগ বাণিজ্যে সাবেক আনসার সদস্য গ্রেফতার

পুলিশ নিয়োগ বাণিজ্যে সাবেক আনসার সদস্য গ্রেফতার
আটক হওয়া সাবেক আনসার সদস্য, ছবি: সংগৃহীত

পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি পাইয়ে দেয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে সাবেক এক আনসার সদস্যকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। গ্রেফতারকৃত জুলহাস উদ্দিন (৪৮) গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ি থানার কালুগাড়ি গ্রামের মৃত আব্দুল আজিজের ছেলে।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) দুপুরে ডিবি পুলিশ বগুড়া শহরতলীর কৈচড় এলাকা থেকে কৌশলে গ্রেফতার করে তাকে।

জানা গেছে, কৈচড় মধ্যপড়ার আজিজুর বারী জিন্নাহের মেয়ে জিনিয়া আক্তার বর্ষা পুলিশ কনস্টেবল পদে ভর্তি হতে আগ্রহ প্রকাশ করেন। এ খবর জানতে পেরে জিন্নাহের পূর্ব পরিচিত আনসার সদস্য জুলহাস তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

জুলহাস জানায় সাত লক্ষ টাকা হলে তার মেয়ে নারী কনস্টেবল পদে চাকরি নিয়ে দেয়া যাবে। গত এক সপ্তাহ ধরে জুলহাস তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। এক পর্যায়ে গত সোমবার দুপুরে আজিজুর বারী জিন্নাহের বাড়িতে গিয়ে জুলহাস জানায়, নিয়োগের ব্যাপারে আলোচনা চূড়ান্ত হয়েছে। ৫০ হাজার টাকা এবং মেয়ের কাগজপত্রের ফটোকপি দিতে হবে। তার কথায় বিশ্বাস করে নগদ ৫০ হাজার টাকা ও মেয়ের শিক্ষাগত যোগ্যতার কাগজপত্রের ফটোকপি দিয়ে দেয়।

এরপর তারা জানতে পারেন বগুড়ার পুলিশ সুপার ঘোষণা দিয়েছেন পুলিশের চাকরি নিতে সরকারি ফি ১০০ টাকা ছাড়া কোনো প্রকার ঘুষ এবং তদবির লাগবে না। পুলিশ সুপারের এ ধরনের ঘোষণার পোস্টারিং দেখতে পেয়ে বিষয়টি পুলিশকে জানায় তারা। পরে গোয়েন্দা পুলিশ কৌশলে জুলহাসকে গ্রেফতার করে।

গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম আলী বার্তা২৪.কমকে বলেন, গ্রেফতারকৃত জুলহাসের নামে আজিজুর বারীর স্ত্রী জুলেখা বেগম বাদী হয়ে বগুড়া সদর থানায় মামলা করেছেন।

উল্লেখ্য, পুলিশের স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় নিয়োগের ব্যাপারে পুলিশ সুপারের পক্ষ থেকে ব্যাপক প্রচার প্রচারণার পরে দালাল চক্রের তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। পুলিশও এসব দালালদের ধরতে নানা কৌশল অবলম্বন করছে। এর আগে আরও দুই প্রতারককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সিলেট রুটে হঠাৎ যাত্রীশূন্য ট্রেন

সিলেট রুটে হঠাৎ যাত্রীশূন্য ট্রেন
সিলেট থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসা 'জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস'এর একটি বগি, শায়েস্তাগঞ্জ স্টেশন থেকে তোলা/ ছবি: বার্তা২৪.কম

মৌলভীবাজার জেলার কুলাউরায় ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনার পর হঠাৎ করেই যেন সিলেট রুটে কমে গেছে ট্রেনের যাত্রী। অন্য সময় যেখানে টিকিট নিয়ে কাড়াকাড়ি চলত, সেখানে এখন যাত্রীশূন্য বগি নিয়ে চলছে ঢাকা-সিলেট রুটের ট্রেনগুলো।

জানা যায়, ১৭৬ কিলোমিটারের ঢাকা-সিলেট রেলপথটি ব্রিটিশ আমলের তৈরি। সম্প্রতি ঢাকা থেকে ভৈরব পর্যন্ত ডবল লাইন স্থাপন করা হলেও ভৈরব থেকে সিলেট পর্যন্ত সিঙ্গেল লাইন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/25/1561461031553.jpg

অথচ, শত বছরের পুরনো রেলব্রিজ ও ত্রুটিপূর্ণ লাইন দিয়েই বছরের পর বছর ধরে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছেন সিলেট বিভাগের চার জেলার মানুষ। সামান্য ঝড় বৃষ্টি হলেই রেললাইনে নিচ থেকে মাটি সরে গিয়ে মৃত্যুফাঁদে পরিণত হয় ট্রেনযাত্রা। বিভিন্ন সময় ঘটছে দুর্ঘটনাও।

মৌলভীবাজার জেলার কুলাউরায় গত রোববার (২৩ জুন) সিলেট থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসা উপবন এক্সপ্রেসের কয়েকটি বগি সেতু ভেঙে খালে পড়ে চারজন নিহত হন।

এ ঘটনায় আহত হন অন্তত দেড় শতাধিক মানুষ। ভয়াবহ এই দুর্ঘটনাটি ঢাকা-সিলেট রোডের যাত্রীদের মধ্যে অতঙ্ক বাড়িয়ে দেয়। ফলে হঠাৎ করেই কমে যায় এ রুটে রেলের যাত্রীর সংখ্যা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/25/1561461101689.jpg

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, দুর্ঘটনায় ঢাকা-সিলেট রেলপথ বন্ধ থাকার পর সোমবার (২৪ জুন) বিকাল থেকে রেল চলাচল ফের চালু হয়। কিন্তু হঠাৎ করেই যেন রেলপথে যাত্রীদের আগ্রহ কমে গেছে। সোমবার বিকাল থেকে যতগুলো ট্রেন এই রুট দিয়ে চলেছে, এর সবগুলো ট্রেনই প্রায় খালি বগি নিয়ে আসা যাওয়া করছে।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) দুপুরে হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ রেল জংশনে গিয়ে দেখা যায়, পুর্বের তুলনায় সেখানে যাত্রী অনেক কম। এছাড়া সিলেট থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসা 'জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস' ট্রেন দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে অনেকগুলো খালি বগি নিয়ে শায়েস্তাগঞ্জ স্টেশনে প্রবেশ করে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/25/1561461179148.jpg

শায়েস্তাগঞ্জ রেল জংশন সূত্র জানায়, সোমবার থেকেই এই রুটে আসা-যাওয়া করা ট্রেনগুলো প্রায় খালি বগি নিয়ে চলছে। এ স্টেশনেও যাত্রীদের আনাগোনা কম।

শায়েস্তাগঞ্জ সহকারী স্টেশন মাস্টার প্রসাদ দাস  বলেন, 'আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। আর যাত্রীরা আতঙ্কিত হচ্ছেনও না। রেল চলাচল যে স্বাভাবিক হয়েছে, তা অনেকেই এখনো জানেন না। তাই যাত্রীর চাপ কম।’

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র