বাড়ছে ছাদ বাগানের সংখ্যা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪
ছাদ বাগান, ছবি: বার্তা২৪.কম

ছাদ বাগান, ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

অবসর সময় প্রকৃতির সাথে কাটানোর জন্য এবং স্বাস্থ্যসম্মত ফল, সবজি ও ঔষধি ফলফলাদি হাতের নাগালে পাওয়ার জন্য ঝিনাইদহে দিন দিন বাড়ছে ছাদ বাগানের সংখ্যা।

শহরের প্রতিটি পাড়ার ছাদে এখন প্রকৃতির সমারোহ। শখের বশে নিজের বাড়ির ছাদে ছাদ বাগান গড়ে তুলছেন ঝিনাইদহের প্রকৃতিপ্রেমীরা।

শহরের হামদহ, আরাপপুর, ব্যাপারীপাড়া, চাকলাপাড়াসহ বিভিন্ন স্থানে গড়ে উঠেছে প্রায় দুই শতাধিক ছাদ বাগান। ছোট পরিসরে গড়ে ওঠা এই সকল ছাদ বাগানে স্বাস্থ্য সম্মত উপায়ে চাষ করা হচ্ছে কলা, লেবু, পেয়ারা, আতা, পেঁপে, সফেদা, ড্রাগনফলসহ বেশ কয়েক প্রজাতির ফল।

বাগানে সবজির মাঝে রয়েছে লাউ, বেগুন, আলু, শিম, পটল, উচ্ছে আর ঝিঙা। আরও আছে আদা, অ্যালোভেরা, পুদিনাসহ বেশ কিছু দেশি-বিদেশি প্রজাতির গাছ।

ঝিনাইদহ শহরের হামদহ এলাকার বাসিন্দা জেলার সিভিল সার্জন ডা. রাশেদা সুলতানা জানান,  স্বাস্থ্য বিভাগের চাকুরির পাশাপাশি তিনি ২০০১ সালে বাগান তৈরি শুরু করেন। নিজ হাতে তৈরি ছাদের বাগানে প্রায় ১৮ বছর ধরে আম ধরছে। বাগানে আছে শাক-সবজি, লেবু, সফেদা, কামরাঙ্গাসহ নানান ফুলফল।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Mar/19/1552953976457.jpg

শহরের আরাপপুর পশ্চিমপাড়ার কলেজ ছাত্র তানভির আহম্মেদ বলেন, বর্তমানে তার ছাদ বাগানে প্রায় দুই শতাধিক প্রজাতির গাছ আছে।

ছাদ বাগান শুরু করার গল্পটা জানান তিনি। প্রথমদিকে স্কুলের পাশের নার্সারি দেখে বাগান করার শখ হয় তার। কিন্ত বাড়িতে বাগান করার মত জমি নেই বলে সেই ইচ্ছাটা পূরণ হয়না তার।

পরবর্তীতে ২০১১ সালে বাড়ির ছাদেই ছোট পরিসরে বাগান শুরু করেন তিনি। শহরের আরাপপুর শহরে সবচেয়ে বড় ছাদ বাগানটি তার।

তানভির আহম্মেদ জানান, বাগানের পাশাপাশি নিজের একটি ছোট নার্সারিও আছে তার। এপর্যন্ত শহরের প্রায় ৩০ জনকে ছাদ বাগান তৈরি করতে সহযোগিতা করেছেন তিনি।

ঝিনাইদহ শহরের গোবিন্দপুর এলাকার বাসিন্দা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান খন্দকার ফারুকুজ্জামান ফরিদ বলেন, ‘বড় করে বাগান করার শখ অনেক দিনের। নিজেকে কৃষক রূপে দেখার ইচ্ছা ছিল। সেই ভাবনা থেকেই বাড়ির ছাদে বাগান গড়ে তোলা। অবসর সময়ে বাড়ির ছাদে এসে সময় কাটানো হয়’।

ছাদ বাগান গড়ে ওঠার বিষয়ে জেলা বন কর্মকর্তা খোন্দকার গিয়াস উদ্দিন বলেন, ‘গত কয়েক বছর ধরে শহরে প্রকৃতি প্রেমীদের মাঝে ছাদ বাগান তৈরীর আগ্রহ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ জন্য বন বিভাগের পক্ষ থেকে ছাদ বাগান তৈরিতে উৎসাহিত করা হচ্ছে। যারা ছাদ বাগান তৈরী করছেন তাদের বন বিভাগের পক্ষ থেকে নানা ধরণের সহযোগিতা ও পরামর্শ প্রদাণ করা হচ্ছে’।

আপনার মতামত লিখুন :