Alexa

দুর্নীতির দায়ে ব্যাংক কর্মকর্তার কারাদণ্ড

দুর্নীতির দায়ে ব্যাংক কর্মকর্তার কারাদণ্ড

দুর্নীতির দায়ে ব্যাংক কর্মকর্তার কারাদণ্ড। ছবি: প্রতীকী

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় জনতা ব্যাংকের এক কর্মকর্তাকে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

রোববার (৩১ মার্চ) ফরিদপুরের বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মো. মতিয়ার রহমান এই রায় দেন। তবে এ সময় আসামি আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত ওই ব্যাংক কর্মকর্তা হলেন মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার শশিকর গ্রামের কৃষ্ণকান্ত বিশ্বাস। তিনি জনতা ব্যাংক মাদারীপুর প্রধান শাখার ফিল্ড অ্যাসিস্ট্যান্ট কাম সুপারভাইজার পদে কর্মরত ছিলেন। কর্মরত থাকাকালে ঋণের আদায়কৃত ৩১ হাজার ৬১১ টাকা জমা না দিয়ে আত্মসাৎ করেন তিনি। এছাড়া ২১ ব্যক্তির নামে ভুয়া ঋণ দেখিয়ে ৩ লাখ ৫৭ হাজার টাকাসহ সরকারি আরও ৩ লাখ ৮৮ হাজার ৬১১ টাকা আত্মসাৎ করেন।

২০০৫ সালের ২৬ জানুয়ারি ওই ব্যাংকের তৎকালীন ব্যবস্থাপক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন মোল্লা এ ব্যাপারে বাদী হয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেছিলেন। এরপর বরখাস্ত অবস্থায় পলাতক রয়েছেন কৃষ্ণকান্ত বিশ্বাস।

দুদকের পিপি মো. মজিবর রহমান জানান, আদালত তিনটি ধারায় বিভিন্ন মেয়াদে ব্যাংক কর্মকর্তা কৃষ্ণকান্তকে কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড দিয়েছেন। এরমধ্যে সরকারি টাকা আত্মসাতের দায়ে ৭ বছরের কারাদণ্ড এবং নগদ ৩ লাখ ৮৮ হাজার ৬১১ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাস কারাদণ্ড দেয়া হয়।

জাল-জালিয়াতির দায়ে ৬ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড এবং ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৩ মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়।

এছাড়া দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনে ৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড এবং ২ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১ মাস কারাদণ্ড দেয়া হয়। তবে কৃষ্ণকান্ত বিশ্বাস সব সাজা একসঙ্গে ভোগ করবেন।

আপনার মতামত লিখুন :