Barta24

সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ৪ ভাদ্র ১৪২৬

English

সিলেটে অবৈধ গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে অভিযান

সিলেটে অবৈধ গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে অভিযান
অনিরাপদ গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে যৌথ অভিযান শুরু করেছে সিলেট সিটি করপোরেশন, ছবি: বার্তা২৪
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট
সিলেট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

অবৈধ ও অনিরাপদ গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে যৌথ অভিযান শুরু হয়েছে। সিলেট সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে রোববার (৭ এপ্রিল) দুপুর থেকে ও ধোপাদীঘিরপারস্থ আলফালাহ টাওয়ারের বিভিন্ন দোকানে এ অভিযান চালানো হয়। মেয়র আরিফুল হক এ অভিযানের নেতৃত্ব দেন।  

অভিযানে সহযোগিতা করছে বিস্ফোরক অধিদপ্তর, পুলিশ, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড, জালালাবাদ গ্যাস ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন।

 এর আগে শুক্রবার(৬এপ্রিল) নগরীর বাগবাড়ি এলাকায় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের ঘটনার পর শনিবার সকালে নগর ভবনে অক্সিজেন গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহার সম্পর্কিত এক জরুরী সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সভায় সিলেটের বিভিন্ন স্থানে অবৈধ ও অনিরাপদভাবে গড়ে উঠা অক্সিজেন ও গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রেতাদের প্রয়োজনীয় অনুমোদন আছে কি না এবং পর্যাপ্ত নিরাপত্তা রাখা হয়েছে কি না সেসব বিষয় খতিয়ে দেখা হয়।

বৈধ কাগজপত্র না থাকায় বিভ্ন্নি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা  হয়েছে। 

আপনার মতামত লিখুন :

নারায়ণগঞ্জ পুলিশের বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার ৫৬

নারায়ণগঞ্জ পুলিশের বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার ৫৬
নারায়ণগঞ্জের মানচিত্র, ছবি: সংগৃহীত

নারায়ণগঞ্জে বিশেষ অভিযানে ৫৬ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ১৭ আগস্ট দিনগত রাত ১টা থেকে ১৮ আগস্ট রোববার রাত ১২টা পর্যন্ত জেলা জুড়ে চলে বিশেষ এই অভিযান।

সোমবার (১৯ আগস্ট) জেলা পুলিশ হতে প্রেরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে গণমাধ্যমকে এই তথ্য জানানো হয়।

অভিযানে মাদকের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা থাকায় ২৫ জনকে গ্রেফতার করা হয় এবং ২০টি মাদক মামলা দায়ের করা হয়। এ সময় উদ্ধার করা হয় ৬৩৪ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৭ গ্রাম হেরোইন ও ১৫০ গ্রাম গাঁজা। এছাড়া ২৩টি জিআর ও ৭টি সিআর মামলার ওয়ারেন্ট তামিল করা হয়।

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদের নির্দেশে ৭ থানা এলাকাতে ওই অভিযান পরিচালিত হয়।

ফরিদপুরে জোড়া খুনের হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

ফরিদপুরে জোড়া খুনের হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন
নিহত রওশন আলী ও মিরাজুল ইসলাম, ছবি: সংগ্রহীত

ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার কাইচাইল ইউনিয়নে প্রতিপক্ষের গুলিতে নিহত রওশন আলী ও মিরাজুল ইসলাম তুহিনের হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে তার পরিবার।

সোমবার (১৯ আগস্ট) বেলা ১১টায় পরিবারের পক্ষ থেকে ফরিদপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে নিহতের স্বজন কাইচাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও কাইচাইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কবির হোসেন ঠান্ডু মাষ্টার বলেন, ‘২০১৬ সালে ৪ জুন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হই। নির্বাচনের সময় হানিফ, হাসান গং আমার বিরোধিতা করে। তারপর থেকে হানিফ, হাসান গং আমাকে ও আমার পরিবারকে বিভিন্নভাবে হয়রানি করে আসছিল।

এরই প্রেক্ষিতে ২০১৭ সালের ২০ সেপ্টেম্বর আমাকে ও আমার পরিবারের নামে একটি মিথ্যা হত্যা মামলা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা করে তারা। মামলাটি ইতোমধ্যে তদন্ত পূর্বক মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে। আর সে কারণেই হানিফ, হাসান গং আরও বেশি হিংসা পরায়ণ হয়ে ওঠে।

এরই ধারাবাহিকতায় পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী গত ১০ আগস্ট আমাদের পরিবারের ওপর বর্বরোচিত হামলা চালায় তারা। হামলায় আমার ছোট চাচা ব্যাংকার রওশন আলী ও চাচাতো ভাই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মিরাজুল ইসলাম ঘটনাস্থলেই মারা যায়। আহত হয় আমার পরিবারের আরও ১০ জন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নিহত তুহিনের বোন ড. আসমা শহীদ। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘পরিকল্পিতভাবে হানিফ, হাসান গং গুলি চালিয়ে দুইজনকে হত্যা করে এবং আহত করে আরও ৮ জনকে। আহতরা বর্তমানে ঢাকাসহ ফরিদপুরের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে।’

উল্লেখ্য, গত ১০ আগস্ট পূর্ব শক্রতার জের ধরে প্রতিপক্ষের গুলিতে ফরিদপুর অগ্রণী ব্যাংক হাজী শরীয়তুল্লাহ বাজার শাখার অফিসার রওশন আলী ও মিরাজুল ইসলাম তুহিন মিয়া নিহত হন। এ ঘটনা আহত হয় আরও ১০জন। এই ঘটনায় ১১ আগস্ট নিহত রওশন’র ভাই ও নিহত তুহিনের পিতা রায়হান উদ্দিন মিয়া ২১ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় পুলিশ মূল আসামি হানিফসহ ৫জনকে আটক করে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র