Alexa

বেনাপোলে সোহাগ পরিবহনের দুই স্টাফ আটক

বেনাপোলে সোহাগ পরিবহনের দুই স্টাফ আটক

অজ্ঞান হওয়া যাত্রী, ছবি: সংগৃহীত

অজ্ঞান পার্টির কবলে পড়ে জ্ঞান হারানো জয়নাল (৫০) নামে ভারতগামী এক পাসপোর্টধারী যাত্রীকে সড়কে ফেলে রেখে যাওয়ার অভিযোগে সোহাগ পরিবহনের দুই স্টাফকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার (১০ এপ্রিল) দুপুর ২ টায় যাত্রীকে উদ্ধারকারী পথচারীদের অভিযোগের ভিত্তিতে বেনাপোল পোর্টথানা পুলিশ তাদের আটক করেন।

আটককৃতরা হলেন, সোহাগ পরিবহনের সুপার ভাইজার ইকরামুল হোসেন (৩৫) ও তার সহযোগী মশিউর রহমান (৪০)।

স্থানীয় চিকিৎসক মনির হোসেন বার্তা২৪কে জানান, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা বেনাপোলগামী সোহাগ পরিবহনের একটি বাস স্থলবন্দরের দুই নাম্বার গেটের সামনের রাস্তায় এক যাত্রীকে অজ্ঞান অবস্থায় ফেলে রেখে চলে যায়। তাকে নেশা জাতীয় কিছু খাওয়ানোর ফলে সে অজ্ঞান ছিল। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে পুলিশের হেফাজতে দেওয়া হয়েছে বলে জানান এই চিকিৎসক।

বেনাপোল পোর্টথানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) আব্দুল লতিফ বার্তা২৪কে জানান, অজ্ঞান পার্টির কবলে পড়া ব্যক্তি সোহাগ পরিবহনের যাত্রী। তাই পরিবহন কর্তৃপক্ষের উচিত ছিল তাকে বাস কাউন্টারে নামিয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা। কিন্তু সেটা না করে সড়কের উপর ফেলে রেখে চলে যাওয়া অমানবিক কাজ। এতে যানবাহনের চাপায় ওই যাত্রী মারা যেতে পারতেন। উদ্ধারকারী স্থানীয়দের অভিযোগের প্রেক্ষিতে অমানবিক কাজের জন্য সোহাগ পরিবহনের সুপারভাইজারসহ দুজনকে আটক করা হয়েছে। অজ্ঞান পাটির সদস্যদের সাথে তাদের কোন যোগসূত্র আছে কিনা তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

এদিকে, এ পুলিশ কর্মকর্তা আরও জানান, সম্প্রতি ঢাকা-কলকাতা সড়কের বেনাপোল রুটে অজ্ঞান পার্টির তৎপরতা বেড়েছে। প্রায়ই তাদের হাতে ভারতগামী যাত্রী সর্বস্ব খোয়াচ্ছেন।

স্থানীয়রা জানান, সুপার ভাইজার বা চালকের সাথে অজ্ঞানপার্টির সদস্যরা হাতমিলিয়ে যাত্রীদের সব ছিনিয়ে নিচ্ছে। আক্রান্ত এ যাত্রীকে বাস থেকে নামিয়ে দেওয়া হয়েছিল যাতে তারা সন্দেহের বাইরে থাকে। সার্বক্ষণিক এক জন সুপারভাইজার ও হেলপারের নজরদারি থাকা সত্ত্বেও প্রতিনিয়ত যাত্রীরা বাসে রহস্যজনকভাবে অজ্ঞানপার্টির কবলে পড়ে সর্বস্বান্ত হচ্ছেন। বিষয়টি প্রশাসনিক ভাবে নজরদারি বাড়ানো দরকার।

আপনার মতামত লিখুন :