Barta24

বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬

English

ওমানে কূপে পড়ে বাংলাদেশি যুবকের মৃত্যু

ওমানে কূপে পড়ে বাংলাদেশি যুবকের মৃত্যু
ওমানে কূপে পড়ে মৃত বাংলাদেশি রিয়াজ হোসেন, ছবি: সংগৃহীত
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

লক্ষ্মীপুর: মধ্যপ্রাচ্যের ওমানে কর্মস্থলে অসাবধানতাবশত গভীর একটি কূপে পড়ে রিয়াজ হোসেন (২৫) নামে এক বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। তার বাড়ি লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার লামচর ইউনিয়নের কালিকাপুর গ্রামে।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) রাত ৯টার দিকে রিয়াজের চাচাতো ভাই পারভেজ হোসেন তার মৃত্যুর খবর জানান।

নিহত রিয়াজ রামগঞ্জ উপজেলার লামচর ইউনিয়নের কালিকাপুর গ্রামের নুরুজ্জামান মিয়ার ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, রিয়াজ বেশি দূর পড়ালেখা করতে পারেনি। তবে সংসারের জন্য অনেক কষ্ট করতো। দুপুরে রিয়াজের মৃত্যুর বিষয়টি জানিয়েছে একই গ্রামের অন্য এক ওমান প্রবাসী।

এদিকে ছেলের মৃত্যুর খবরে বাবা-মা কান্নায় ভেঙে পড়েছেন। কাঁদতে কাঁদতে তার মা খুকি বেগম অচেতন হয়ে পড়ছেন।

নিহতের বাবা নুরুজ্জামান মিয়া জানান, দুই বছর আগে সংসারের অভাব ঘোচাতে রিয়াজ ওমানে চাকরির খোঁজে যায়। কিন্তু যাওয়ার পর সেখানে কোনো কাজ পায়নি। এক বন্ধুর মাধ্যমে কয়েক মাস আগে একটি কৃষি ফার্মে কাজ পায়। প্রতিদিনের মত কাজে গেলে অসাবধানতাবশত সে কূপে পড়ে যায়। খবর পেয়ে স্থানীয় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে রিয়াজের মরদেহ উদ্ধার করে।

আপনার মতামত লিখুন :

পুলিশ হেফাজত থেকে পালিয়ে যাওয়া দুই আসামি আটক

পুলিশ হেফাজত থেকে পালিয়ে যাওয়া দুই আসামি আটক
রাজবাড়ী ম্যাপ

রাজবাড়ীতে পুলিশ হেফাজত থেকে পালিয়ে যাওয়া দুই আসামিকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ হেফাজত থেকে পালিয়ে যাওয়া আটককৃত দুই আসামি হলো গোয়ালন্দের নলিয়াপাড়ার শাকিল প্রামাণিক(২১) ও শহিদুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার (২২আগস্ট) রাত ১০টায় এদেরকে আটক করা হয়েছে বলে বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে নিশ্চিত করেছেন কোর্ট পুলিশের জিআরও মাহবুব হোসেন।

তিনি জানান, আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে ২৩ জন আসামিকে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে ১৬৪ ধারার জবানবন্দী দেওয়ার জন্য পুলিশ কোর্টে আনা হয়। জবানবন্দী শেষে আসামিদেরকে কারাগারে নেওয়ার জন্য প্রিজন ভ্যানে উঠানোর সময় শাকিল ও শহিদুল পুলিশ হেফাজত থেকে পালিয়ে যায়।

আসামীরা পালিয়ে যাওয়ার পর শুরু হয় সাঁড়াশি অ‌ভিযান। পরে রাত ১০টার দি‌কে কোর্ট এলাকার অদূরে থানা পুকুরে লু‌কি‌য়ে থাকা উক্ত দুই আসামিকে আটক করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

খাবারসহ বৃদ্ধাকে কবরস্থানে রেখে গেলেন স্বজনরা

খাবারসহ বৃদ্ধাকে কবরস্থানে রেখে গেলেন স্বজনরা
রেখে যাওয়া কবরস্থানে বসে আছেন ওই বৃদ্ধা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

কুমিল্লায় একটি কবরস্থানে অজ্ঞাতনামা এক বৃদ্ধা মহিলাকে (৬৮) রেখে যান তার স্বজনরা। জানা যায়, চারদিন আগে তাকে এখানে রেখে গিয়েছে। সড়ক থেকে স্পষ্টভাবে দেখা না যাওয়ায় প্রথমদিকে বিষয়টি জানাজানি হয়নি।

বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) বিকালে বিষয়টি জানাজানি হলে চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল মাহফুজের নির্দেশে মহিলাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে পুলিশের একটি টিম।

চৌদ্দগ্রাম উপজেলার কনকাতৈপ ইউনিয়নের ধোড়করা-চাঁনকার দীঘি সড়কের পাশে পাঠানপাড়ার এলাকায় স্থানীয় একটি কবরস্থানে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, কে বা কারা গত চারদিন আগে খুরশিদা বেগম নামের বৃদ্ধাকে কবরস্থানে রেখে যান। এ সময় তার পাশে চার প্যাকেট খাবার, চারটি পানির বোতল, একটি মশার কয়েল ছিল। ওই নারী কথা বলতে পারে।

কিন্তু নিজের নাম, গ্রাম বা অন্য পরিচয় কারও কাছে বলছেন না। বিশেষ করে ছেলেদের নাম জিজ্ঞেস করলে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং বলেন- 'ক্যান্টনমেন্ট এলাকার মেহেরাজের জামাই রায়হান ও বিজয়পুরের সবুজের বাপে জানে'। আর কিছুই বলতে চান না এ বৃদ্ধা।

এ বিষয়ে চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল মাহফুজ বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন, 'গণমাধ্যম কর্মীদের কাছ থেকে বিষয়টি জেনে ওই বৃদ্ধাকে কবরস্থান থেকে উদ্ধারের নির্দেশ দিয়েছি। তিনি নিজের পরিচয় গোপন রেখেছেন।' পুলিশের পক্ষ থেকে জানার চেষ্টা চলছে বলে ওসি আবদুল্লাহ আল মাহফুজ জানান।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র