Barta24

বুধবার, ২৪ জুলাই ২০১৯, ৯ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

সাদুল্লাপুরে ভ্যান ছিনতাইয়ের শিকার বাদশাকে আর্থিক সহায়তা

সাদুল্লাপুরে ভ্যান ছিনতাইয়ের শিকার বাদশাকে আর্থিক সহায়তা
বাদশা মিয়ার হাতে টাকা তুলে দেয়ার সময়, ছবি: বার্তা২৪.কম
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
গাইবান্ধা
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

গাইবান্ধার ধাপেরহাট এলাকার হিংগারপাড়া নামক স্থানে বাদশা মিয়ার (৬৫) ব্যাটারি চালিত ভ্যান গাড়িটি ছিনতাই করে দুর্বৃত্তরা। এতে বয়োবৃদ্ধ এই মানুষটি সর্বহারা হয়ে পড়ে।

তবে মানবাতার ডাকে সাড়া দিয়ে বাদশা মিয়াকে নগদ ১০ হাজার টাকা সহায়তা প্রদান করেছে ঢাকাস্থ গাইবান্ধা সদর উপজেলা সমিতি।

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) বিকেলে উক্ত সমিতির পক্ষ বার্তা২৪.কম-এর সাংবাদিক তোফায়েল হোসেন জাকির ওই টাকা হস্তান্তর করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক ছোলায়মান সরকার, লাবলু প্রামাণিক ও স্থানীয়রা।

উল্লেখ্য, উপজেলার ধাপেরহাট ইউনিয়নের নিজ পাড়া গ্রামের বাদশা মিয়া (৬৫) তার ব্যাটারি চালিত ভ্যান গাড়িটি হিংগারপাড়া নামক স্থানে দুর্বৃত্তরা ছিনতাই করে।

বিষয়টি সংবাদপত্রসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ হয়। এ সংবাদটি ঢাকাস্থ গাইবান্ধা সদর উপজেলা সমিতির নেতৃবৃন্দদের নজরে আসে। পরে ঘটনার শিকার বাদশা মিয়াকে নগদ ১০হাজার টাকা প্রদান করেন।

আপনার মতামত লিখুন :

রাজবাড়ীতে তিন হাজার পরিবার পানিবন্দী

রাজবাড়ীতে তিন হাজার পরিবার পানিবন্দী
বাড়িতে পানি ওঠায় দুর্ভোগে মানুষ, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

বন্যায় রাজবাড়ীর চারটি উপজেলার তিন হাজারেরও বেশি পরিবারের ১০-১৫ হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন।

ফসলের ব্যাপক ক্ষতিসহ স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছেন তারা। পর্যাপ্ত ত্রাণ না পাওয়ার অভিযোগ তাদের। আর প্রশাসন বলছে, পর্যাপ্ত ত্রাণ রয়েছে এবং তা বিতরণ করা হচ্ছে।

পানিবন্দী মানুষের তালিকা তৈরি করে জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ত্রাণ বিতরণ করা হচ্ছে। এ পর্যন্ত দুই হাজার প্যাকেট শুকনা খাবারসহ সরকারিভাবে দেড়শ’ মেট্রিকটন চাল ও নগদ আড়াই লাখ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে বলে জানায় জেলা প্রশাসন।

a
বন্যা কবলিত এলাকা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

 

পানিবন্দী মানুষগুলো এখন মানবেতর জীবন যাপন করছেন। পরিবার-পরিজন নিয়ে তারা চরম দুর্ভোগে দিন কাটাচ্ছেন। সরকারিভাবে যে ত্রাণ দেওয়া হচ্ছে, তা চাহিদার তুলনায় খুবই সামান্য বলে দাবি করেন তারা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রতনদিয়া ইউনিয়নের পানিবন্দী কয়েকজন বলেন, ‘সপ্তাহ খানেক ধরে পানি উঠেছে। এখনো ত্রাণ পাইনি। আমাদের গ্রামের যারা পেয়েছেন, তা খুবই সামান্য। আমাদের বলা হয়েছে, আমরাও নাকি পর্যায়ক্রমে পাব। তবে কবে পাব তা আমরা জানি না। আমাদের নাম নাকি লিখে নিয়ে গেছে।’

রাজবাড়ী জেলা প্রশাসনের কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ‘পাংশা, কালুখালী, গোয়ালন্দ ও সদর উপজেলার বেশ কয়েকটি গ্রামে পানি উঠেছে। এতে পাংশায় ২৫০টি পরিবার, কালুখালীর রতনদিয়া ও কালকিাপুর ইউনিয়নের এক হাজার ৫৭৫ পরিবার, গোয়ালন্দের ৬০০ পরিবার ও সদরের ৯২১ পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছে।

a
বন্যা কবলিত এলাকা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

 

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কালুখালী উপজেলার জন্য ৪৬.০৫০ মেট্রিকটন চাল, গোয়ালন্দের জন্য ২০০ প্যাকেট শুকনা খাবার ও ১২ মেট্রিকটন চাল এবং সদর উপজেলার জন্য ২১.০৪৫০ মেট্রিকটন চাল জেলা ত্রাণ ভান্ডার থেকে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে তা বিতরণও শুরু হয়েছে। অপরদিকে পাংশা উপজেলায় পানিবন্দি পরিবারগুলোর তালিকা চূড়ান্ত না হওয়ায় এখনো বরাদ্দ দেওয়া হয়নি। পানিবন্দী পরিবারগুলোর তালিকা তৈরি করা হচ্ছে।

এবারের বন্যায় ৯৩৫ হেক্টর আবাদি জমি পানিতে তলিয়ে গেছে। এর মধ্যে সম্পূর্ণভাবে পানিতে তলিয়ে গেছে ২৪৯ হেক্টর ও আংশিক তলিয়ে গেছে ৬৮৬ হেক্টর জমির ফসল।

a
বন্যা কবলিত এলাকা ঘুরে দেখেন জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম



রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘জেলায় পানিবন্দী পরিবারগুলোর তালিকা করা হয়েছে। তালিকা অনুযায়ী সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে। এরই মধ্যে আমরা শুকনা খাবার ও চাল বিতরণ কার্যক্রম শুরু করেছি। বন্যা পরিস্থিতি আমরা সব সময় পর্যবেক্ষণ করছি। যে কোনো দুর্যোগ মোকাবিলা করতে জেলা প্রশাসন প্রস্তুত আছে।’

চুয়াডাঙ্গায় মাদরাসা ছাত্রের মাথাবিহীন লাশ উদ্ধার

চুয়াডাঙ্গায় মাদরাসা ছাত্রের মাথাবিহীন  লাশ উদ্ধার
নিহত আবিরের লাশ। ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম।

চুয়াডাঙ্গায় আবির (১০) নামে এক মাদরাসা ছাত্রের মাথাবিহীন লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার (২৪ জুলাই) সকালে জেলার কয়রাডাঙ্গা মাদরাসার পাশে ইটভাটা আম বাগান থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত আবির ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার খালিশপুর গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে এবং চুয়াডাঙ্গার কয়রাডাঙ্গা নুরানী হাফেজিয়া মাদরাসার দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র।

স্থানীয়রা জানায়, আবির গত মাসে কয়রাডাঙ্গা নুরানী হাফেজিয়া এতিমখানা মাদরাসায় ভর্তি হয়। মঙ্গলবার রাতে এশার নামাজের পর নিখোঁজ হয় আবির। এরপর মাদরাসার সবাই অনেক খোঁজাখুঁজি করলেও তাকে পাওয়া যায়নি। বুধবার সকালে গ্রামবাসী রাস্তা দিয়ে যাবার পথে মাথাবিহীন একটি লাশ দেখতে পায়। পরে মাদরাসা কর্তৃপক্ষ সংবাদ পায় আবিরের লাশ ইটভাটা আম বাগানে পাওয়া গেছে। এ সময় তারা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কলিমুল্লাহ জানান, আবিরের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে এখন কিছু বলা যাচ্ছে না।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র