Barta24

বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬

English

বিএনপির দুই এমপি শপথ না নেয়ায় হতাশ ভোটাররা

বিএনপির দুই এমপি শপথ না নেয়ায় হতাশ ভোটাররা
নবনির্বাচিত দুই সংসদ সদস্য, ছবি: সংগ্রহীত
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
চাঁপাইনবাবগঞ্জ
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ঐক্যফ্রন্টের নবনির্বাচিত দুই সংসদ সদস্য শপথ না নেওয়ায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন স্থানীয়রা। কেউ কেউ বলছেন, ওই দুই সংসদ সদস্যের শপথ নেওয়া উচিত ছিল। আবার কেউ কেউ বলছেন, শপথ নিলেও সংসদে খুব একটা সুবিধা করতে পারতেন না ওই দুই সংসদ সদস্য।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের আইনজীবী সাইফুল ইসলাম রেজা মনে করেন, সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেওয়া ঐক্যফ্রন্টের আগের মন্তব্যের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হয়ে যেত। কারণ আগে ঐক্যফ্রন্ট দাবি করেছিলে ভোট কারচুপি হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘প্রচার আছে যে, ওই দুই সংসদ সদস্যের সংসদে গিয়ে লাভ কি? রাজশাহী সিটি করপোরেশনে আ'লীগের প্রার্থী খায়রুজ্জামান লিটনকে হারিয়ে মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল জয় পেয়েছিলেন। তার দায়িত্ব পালনকালে কোনো উন্নয়নই হয়নি। এমন অবস্থাই হতো ওই সংসদ সদস্যেরও।'

সাংস্কৃতিক কর্মী ফাইজুর রহমান মানি বলেন, ‘চাঁপাইনবাবগঞ্জে তিন আসনের মধ্যে দুটিই দিয়েছে ঐক্যফ্রন্টকে। জনগণ এই দুইটি আসন তাদের দিয়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জবাসীর কথা সংসদে তুলে ধরার জন্য। তারা যদি শপথ না নেন, আমরা মনে করব তারা ভোটারদের অবজ্ঞা করলেন।'

এদিকে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) এর চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক মনোয়ার হোসেন জুয়েল বলেন, ‘হারুনুর রশীদ ও আমিনুল ইসলামকে যোগ্য মনে করেই জনগণ ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন। সেহেতু তাদের উচিত হবে শপথ নিয়ে এলাকার উন্নয়নে কাজ করা। তাদের প্রতিবাদ থাকতেই পারে। তবে সে প্রতিবাদ হোক সংসদে গিয়ে এটি হবে যোগ্য নেতার বুদ্ধিমত্তার কাজ।'

গত ৩০ শে ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চাঁপাইনবাবগঞ্জের তিনটি আসনের মধ্যেই নাচোল, গোমস্তাপুর ও ভোলাহাট-২ আসনে আমিনুল ইসলাম এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর-৩ আসনে জয় পান হারুনুর রশিদ।

আপনার মতামত লিখুন :

'গ্রেনেড হামলায় তারেকের ফাঁসি হওয়া উচিত'

'গ্রেনেড হামলায় তারেকের ফাঁসি হওয়া উচিত'
বক্তব্য রাখছেন রাজবাড়ী-২ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আলহাজ কাজী কেরামত আলী, ছবি: সংগৃহীত

গ্রেনেড হামলা বাংলার জাতির জন্য একটি শোকাবহ দিন। আওয়ামী লীগকে নিশ্চিহ্ন করার জন্য সেদিন এই হামলা করা হয়। আর গ্রেনেড হামলার মূল নায়ক তারেক রহমান। গ্রেনেড হামলা মামলায় তার ফাঁসি হওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন রাজবাড়ী-২ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আলহাজ কাজী কেরামত আলী।

বুধবার (২১ আগস্ট) বিকালে জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে দলীয় কার্যালয়ে এ সব কথা বলেন তিনি।

এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘তারেক রহমানের আসল উদ্দেশ্য ছিল শেখ হাসিনাকে হত্যা করা। কিন্তু আল্লাহর অশেষ রহমতে সেদিন শেখ হাসিনা বেঁচে যান। এ হামলায় আইভি রহমানসহ ২৪জন নিহত ও বহু নেতাকর্মী আহত হয়েছিলেন। আহতরা আজও স্প্রিন্টারের আঘাতে সেদিনের করুণ স্মৃতি বয়ে বেড়াচ্ছেন।'

সভার শুরুতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও গ্রেনেড হামলায় নিহত আইভি রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন দলটির নেতাকর্মীরা।

জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শেখ আব্দুস সোবাহান এর সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কাজী ইরাদত আলী, সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফকির আব্দুল জব্বার, পৌর মেয়র মহম্মদ আলী চৌধুরী, হেদায়েত আলী সোহরাব, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও সাবেক সংরক্ষিত আসনের এমপি কামরুন নাহার চৌধুরী লাভলী, সদর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ মোঃ ওহিদুজ্জামান, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট উজির আলী প্রমুখ।

মিষ্টিমুখ করে নতুন ঘরে উঠলেন মিরিকজান

মিষ্টিমুখ করে নতুন ঘরে উঠলেন মিরিকজান
নতুন ঘরে উঠলেন সত্তরোর্ধ্ব মিরিকজান, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

মাল্টিমিডিয়া অনলাইন নিউজপোর্টাল বার্তাটোয়েন্টিফর.কমে খবর প্রকাশের পর ময়মনসিংহের গৌরীপুরের সত্তরোর্ধ্ব পক্ষাঘাতগ্রস্ত অসহায় বৃদ্ধা মিরিকজানের নতুন টিনশেড ঘরে ঠাঁই হয়েছে।

বুধবার (২১ আগস্ট) সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারহানা করিম ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোফাজ্জল হোসেন খান রঙিন ফিতা কেটে মিরিকজানের নতুন ঘর উদ্বোধন করেন। মিরিকজানকে মিষ্টিমুখ করিয়ে নতুন ঘরে প্রবেশ করানো হয়। আনন্দে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

মিরিকজানের বাড়ি গৌরীপুর পৌর শহরের চকপাড়া গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের মৃত মগর আলী ওরফে মকবুলের স্ত্রী।

মিরিকজান বলেন, ‘আমার ঘর ছিল না। আমি ঘর পাইছি। যারা আমারে ঘর বানাইয়্যা দিছে আমি তাদের সবার জন্য দোয়া করি। সবাইরে আল্লাহ ভালা রাহুক।’

গত ২২ জুন বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমে ‘সব হারিয়ে নতুন ঘর চান মিরিকজান’ শিরোনামে একটি মানবিক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এই প্রতিবেদনের সূত্র ধরে স্থানীয় চকপাড়া গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল করিম ললী মিরিকজানের ঘর নির্মাণের জন্য ব্যক্তিগত জমি দেন।

অপরদিকে প্রকাশিত সংবাদটি দৃষ্টিগোচর হওয়ার পর মিরিকজানের ঘর নির্মাণে অর্থয়ান করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা চেয়ারম্যান ও ডু সামথিং ফাউন্ডেশন। ঘর নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন করেন গৌরীপুর উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারহানা করিম বলেন, ‘বার্তাটোয়ন্টিফোর.কমে খবর প্রকাশের পর উপজেলা প্রশাসন ও ডু সামথিং ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে মিরিকজানের জন্য নতুন ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। আজকে ঘর উদ্বোধন করা হয়েছে। মানবিক প্রতিবেদন প্রকাশের জন্য বার্তা২৪.কমকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’

উল্লেখ্য, এর আগে ২২ জুন বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমে ‘সব হারিয়ে নতুন ঘর চান মিরিকজান’ শিরোনামে খবর প্রকাশের পর হুইল চেয়ার, নতুন কাপড় ও চালের বস্তা সহযোগিতা পান তিনি।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র