Alexa

বার্তা২৪.কমে সংবাদ প্রকাশ

বরগুনায় চুরি যাওয়া ১৮ ল্যাপটপ উদ্ধার

বরগুনায় চুরি যাওয়া ১৮ ল্যাপটপ উদ্ধার

বরগুনার পাথরঘাটা কেএম মডেল সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ছবি: বার্তা২৪

বরগুনার পাথরঘাটা কেএম মডেল সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বারান্দা থেকে ১৮টি ল্যাপটপ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রোববার (২১ এপ্রিল) সকাল ৭টার দিকে কার্টন ভর্তি অবস্থায় ল্যাপটপগুলো উদ্ধার করা হয়। এর আগে গত ৯ মার্চ ওই বিদ্যালয়ের ডিজিটাল ল্যাব থেকে ২০টি ল্যাপটপ চুরি হওয়ার পরে বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা চালায় বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

গত ১৩ মার্চ জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল বার্তা২৪.কমে ‘স্কুলের ল্যাব থেকে ল্যাপটপ চুরি, ক্লাশ বন্ধ’ নামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হওয়ার পর বিষয়টির তদন্ত শুরু হয়।

পাথরঘাটা কেএম মডেল সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরুল আমিন বার্তা২৪.কমকে জানান, সকাল ৭টার দিকে বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী মো, সগির স্কুলের বারান্দায় একটি কার্টন দেখতে পেয়ে তাকে জানায়। পরে সে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর পর কার্টন খুলে ১৮টি চুরি হওয়া ল্যাপটপ উদ্ধার করা হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির এক সদস্য বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘৯ মার্চ ল্যাপটপ চুরি হওয়ার পরে সহকারী শিক্ষক আব্দুর রহিম বাদি হয়ে পাথরঘাটা থানায় একটি চুরি মামলা দায়ের করেন। তবে সব শিক্ষকরাই একে অন্যের উপর দোষ চাপানো শুরু করেন। এক পর্যায়ে বিষয়টি নিয়ে আলোচনাই বন্ধ হয়ে যায়। পরে বার্তা২৪.কমে প্রতিবেদন প্রকাশের পর নড়ে চড়ে বসে প্রশাসন ও শিক্ষা অফিস।’

তবে গত সপ্তাহে পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের ডেকে ১০ দিন সময় দেয়। এর মধ্যে ল্যাপটপ পাওয়া না গেলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তাদেরকে হুঁশিয়ার করে দেন। রোববার সকালে ১৮টি ল্যাপটপ বারান্দায় পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হানিফ সিকদার বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘১৮টি ল্যাপটপ উদ্ধার হয়েছে। তবে এখনও ২টি ল্যাপটপ পাওয়া যায়নি। মামলার তদন্ত কাজ চলছে।’

আপনার মতামত লিখুন :