Barta24

শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬

English

নুসরাত হত্যা: এখনো জমা পড়েনি তদন্ত প্রতিবেদন

নুসরাত হত্যা: এখনো জমা পড়েনি তদন্ত প্রতিবেদন
নুসরাত হত্যা: এখনো জমা পড়েনি তদন্ত প্রতিবেদন। ছবি: সংগৃহীত
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট ফেনী বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

মাদরাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় তিন দফা সময় বাড়লেও তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে পারেনি ফেনী জেলা প্রশাসনের তদন্ত কমিটি।

গত ৬ এপ্রিল সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসার সাইক্লোন শেল্টার ভবনের তিনতলার ছাদে নিয়ে নুসরাতের গায়ে আগুন দেওয়া হয়। পরদিন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) পি কে এম এনামুল করিমকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি করে জেলা প্রশাসন। ওই কমিটিতে সোনাগাজী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহেল পারভেজ ও জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কাজী সলিম উল্লাহকে সদস্য করা হয়।

কমিটিকে তিন দিনের মধ্যে রিপোর্ট দাখিলের নির্দেশ দেন জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজ্জামান। তবে তিন কার্যদিবস শেষ হলেও কাজ শুরু করতে পারেননি তারা। ১০ এপ্রিল বুধবার জেলা প্রশাসক বরাবর তদন্ত কমিটির প্রধান এনামুল করিম আরও সাত দিন সময় বাড়ানোর আবেদন করেন। পরে জেলা প্রশাসক সাত কার্যদিবস মেয়াদ বাড়ান।

সে মেয়াদে প্রতিবেদন তৈরি করতে না পারায় কমিটি আরও সময় বাড়ানোর আবেদন করে। জেলা প্রশাসক আরও ৪ দিন সময় বাড়ান, যার মেয়াদ শেষ হয়েছে ২১ এপ্রিল। মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) দুপুর পর্যন্ত কমিটি তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেনি।

এ বিষয়ে কমিটির প্রধান পি কে এম এনামুল করিম বলেন, ‘আমি ঢাকায় একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজে এসেছি। আগামী ২-১ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন তৈরি করে জমা দেয়া হবে।’

এদিকে সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সাবেক সভাপতি ও ফেনীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) পি কে এম এনামুল করিমকে এই কমিটির প্রধান রাখায় সঠিক তদন্ত নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে। নুসরাতের স্বজনরা এরই মধ্যে এনামুল করিমের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন যে, যৌন নিপীড়নের ঘটনার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিয়ে তিনি অভিযুক্ত এস এম সিরাজ-উদ-দৌলার পক্ষ নিয়েছিলেন।

তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার বিষয়ে জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজ্জামান জানান, অতি দ্রুততম সময়ের মধ্যে প্রতিবেদন তৈরি করে জানানো হবে।

প্রসঙ্গত, ১০ এপ্রিল রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান নুসরাত।

আপনার মতামত লিখুন :

স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যার চেষ্টা, স্বামী আটক

স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যার চেষ্টা, স্বামী আটক
আটক হওয়া স্বামী, ছবি: সংগৃহীত

সিদ্ধিরগঞ্জে পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রীকে হত্যার উদ্দেশে পেটে ছুরিকাঘাত করার অভিযোগে স্বামী সোহাগ (৩৫) কে আটক করে গণধোলাই দিয়েছে এলাকাবাসী।

শুক্রবার (২৩ আগস্ট) দুপুর আড়াইটার দিকে মিজমিজি পূর্বপাড়া পাগলাবাড়ী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে সোহাগকে আটক করে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ।

গুরুতর আহত অবস্থায় গৃহবধূ মুন্নি আক্তারকে (২৮) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুই সন্তানের জননীর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে দাবি করেছে স্বজনরা।

আটককৃত সোহাগ কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব থানা এলাকার ফজলুর রহমানের ছেলে। তিনি স্ত্রী সন্তান নিয়ে হালিম মোল্লার বাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করতেন।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাদশা আলম জানান, পারিবারিক কলহের জের ধরে সোহাগ তার স্ত্রী মুন্নি আক্তারের পেটে ছুরিকাঘাত করেছে। এ ঘটনায় স্বামী সোহাগকে আটক করা হয়েছে। উভয় পরিবারের সিদ্ধান্ত জেনে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

বিদ্যুতের নতুন সংযোগ পেলো ২৪৫ পরিবার

বিদ্যুতের নতুন সংযোগ পেলো ২৪৫ পরিবার
নতুন বিদ্যুৎ সংযোগের উদ্বোধন করা হচ্ছে, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত হলো নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার হলদাহ গ্রামের ২৪৫ পরিবার।

শুক্রবার (২৩ আগস্ট) বিদ্যুৎ সুইচ টিপে আলো জ্বালিয়ে বিদ্যুৎ সংযোগের উদ্বোধন করেন লোহাগড়া উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শিকদার আবদুল হান্নান রুনু।

নলদী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ পাখির সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন যশোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর লোহাগড়ার পরিচালক অধ্যাপক আবু আবদুল্লাহ, যশোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর লোহাগড়ার এজিএম গোলাম রব্বানী প্রমুখ।

সূত্র জানায়, নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার হলদাহ গ্রামে ৮১ লাখ টাকা ব্যয়ে প্রায় সাড়ে চার কিলোমিটার এলাকায় জুড়ে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়েছে। এতে ওই গ্রামের ২৪৫ পরিবার বিদ্যুতের সুবিধা পেয়েছে। 

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র