Alexa

সোমবার বেনাপোল বন্দরে আমদানি-রফতানি বন্ধ

সোমবার বেনাপোল বন্দরে আমদানি-রফতানি বন্ধ

ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত, ছবি: বার্তা২৪

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে জাতীয় নির্বাচন উপলক্ষে নিরাপত্তা জনিত কারণে বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারতের সাথে সব ধরণের পণ্যের আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ থাকছে। তবে এ পথে দুই দেশের মধ্যে পাসপোর্টধারী যাত্রীর যাতায়াত স্বাভাবিক থাকবে বলে জানা গেছে।

সোমবার (৬ মে) সকাল ৭টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত দুই দেশের পণ্যবাহী ট্রাক চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ থাকবে। মঙ্গলবার সকাল থেকে যথারীতি বন্দরের কার্যক্রম আবার স্বাভাবিক হবে।

বেনাপোল আমদানি-রফতানি সমিতির সহ-সভাপতি আমিনুল হক ভারতের নির্বাচন উপলক্ষে এ পথে বাণিজ্য বন্ধ থাকার বিষয়টি বার্তা২৪কে নিশ্চিত করে বলেন, এমন খবর ভারতীয় ব্যবসায়ীরা আমাদের মৌখিকভাবে জানিয়েছেন। তবে এ পথে আমদানি-রফতানি বন্ধ থাকলেও বেনাপোল কাস্টমসে পণ্য খালাস কার্যক্রম স্বাভাবিক থাকছে বলেও জানান তিনি।

ভারতের পেট্রাপোল স্থলবন্দরের রফতানিকারক রেজাউল ইসলাম বার্তা২৪কে জানান, ৬ মে ২৪পরগনার বনগাঁ ও ব্যারাকপুর কেন্দ্রের ভোট অনুষ্ঠিত হবে। এই ভোট উপলক্ষে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কর্তৃপক্ষের নির্দেশে এদিন পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে বেনাপোল বন্দরের সাথে আমদানি রফতানি বাণিজ্য বন্ধ থাকবে। মঙ্গলবার(০৭মে) সকাল থেকে পুনরায় এপথে বাণিজ্য স্বাভাবিক হবে।

এদিকে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আমদানি-রফতানি বন্ধের পাশাপাশি সীমান্তের অবৈধ পথে যাতে কেউ প্রবেশ করতে না পারে সে দিকে সীমান্তরক্ষী বিএসএফ যেমন নিরাপত্তা জোরদার করেছে তেমনি বৈধ পথে যেন পাসপোর্ট যোগে কোন দ্বৈত নাগরিক ভোট প্রয়োগের জন্য প্রবেশ করতে না পারে সেদিকেও সতর্ক রয়েছে ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ।

জানা যায়, এমন অনেক বাংলাদেশি আছেন যারা সুবিধা ভোগ করতে একই সাথে ভারতীয় নাগরিকও হয়েছেন। নাগরিকতা ঠিক রাখতে নির্বাচন এলে তারা ভোট দিতে যায় ভারতে। ভারতীয় ইমিগ্রেশনের নজরদারির কারণে দ্বৈত নাগরিক প্রায়ই সেখানে আটক হচ্ছেন। এমন কেউ যাতে পাসপোর্ট নিয়ে ভারতে প্রবেশ করতে না পারে এ জন্য ভারতীয় ইমিগ্রেশন আরও এক সপ্তাহ আগে থেকে যাত্রীদের উপর নজরদারি রেখে চলেছে। সন্দেহ হলে জিজ্ঞাসাবাদ করে তবেই প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :