Barta24

মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ১ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যা মামলার রায় কার্যকরের দাবি

আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যা মামলার রায় কার্যকরের দাবি
শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার, ছবি: সংগৃহীত
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
গাজীপুর


  • Font increase
  • Font Decrease

শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যা মামলার ফাঁসির রায় অবিলম্বে কার্যকর করতে সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীসহ স্থানীয়রা। মঙ্গলবার (৭ মে) শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টারের ১৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকীতে তারা এ দাবি জানায়।

শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের হায়দরাবাদ গ্রামে নানা কর্মসূচী পালন করা হয়। পবিত্র কোরআনখানি, কালো ব্যাচ ধারণ, আলোচনা ও স্মরণ সভা, বাদ আসর দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

সকালে আওয়ামী লীগের শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, মেহের আফরোজ চুমকী এমপি,বেগম শামসুন নাহার ভূঁইয়া এমপি, আওয়ামী লীগের নেতা ও গাজীপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আখতারউজ্জামান, গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট আজমত উল্লাহ খানসহ দলীয় নেতা-কর্মীরা শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টারের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

দুপুরে কবরের পাশে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপির সভাপতিত্বে এক আলোচনা ও স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য শামসুন নাহার ভূঁইয়া এমপি, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট ওয়াজ উদ্দিনসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, আইনজীবী ও সাংবাদিক নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ অংশ নেয়।

বাদ আছর টঙ্গীতে আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

উল্লেখ্য, ২০০৪ সালের ৭ মে একদল সন্ত্রাসী টঙ্গীর নোয়াগাঁও এম এ মজিদ মিয়া উচ্চবিদ্যালয় মাঠে এক জনসভায় প্রকাশ্যে দিবালোকে আহসান উল্লাহ মাস্টারকে গুলি করে হত্যা করে। 

আপনার মতামত লিখুন :

শেরপুরে বন্যার পানিতে মিলল বৃদ্ধার মর‌দেহ

শেরপুরে বন্যার পানিতে মিলল বৃদ্ধার মর‌দেহ
প্রতীকী ছবি

শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে বন্যার পানিতে ডুবে আসিমা বেওয়া (১০৫) নামে এক বৃদ্ধা মারা গেছেন। মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) দুপুরে উপজেলার সারিকালিনগর এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

আসিমা বেওয়া ওই গ্রামের মৃত ফয়েজ উদ্দিন মন্ডলের স্ত্রী।

নিহতের পরিবার জানায়, গত রোববার (১৪ জুলাই) রাত ১২টার দিকে তার মেয়ে তাকে ঘুমিয়ে রেখে নিজের ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন। সকালে ঘুম থেকে উঠে মাকে না পেয়ে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও আর পাননি। বাড়ির আঙ্গিনাসহ চারপাশে বন্যার পানি ছিল। পরিবারের ধারণা- আসিয়া রাতে প্রাকৃতিক ডাকে সাড়া দিতে ঘরের বাইরে গিয়ে বন্যার পানিতে পড়ে ভেসে গেছেন। মঙ্গলবার দুপুরে বা‌ড়ির পা‌শে আসিয়ার মর‌দেহ ভাসতে দেখেন এলাকাবাসী। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থে‌কে মর‌দেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

ঝিনাইগাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বক্কর সিদ্দিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

জমি নিয়ে বিরোধ, যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম

জমি নিয়ে বিরোধ, যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম
ছবি: প্রতীকী

কুষ্টিয়ায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মিজানুর রহমান বাবু (৩২) নামে এক যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তবে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করার প্রক্রিয়া চলছে।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) দুপুরে মিরপুর উপজেলার কেঁউপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মিজানুর রহমান বাবু মিরপুর উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক।

মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) আব্দুল আলিম জানান, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে কেউপুর গ্রামের মাজেদ মাস্টারের সঙ্গে মশান গ্রামের আব্দুল গফুরের দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। এ জেরে আজ দুপুরের দিকে গফুর ও তার ছেলে নাজমুল, সম্রাট এবং ভাতিজারা মাজেদ মাস্টারের শ্যালক মিজানুর রহমান বাবুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র