কোটিপতির ছেলে আগুন দিল ফলের দোকানে

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নোয়াখালী
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

টাকা অনেক সময় মানুষকে মানবিক করে, আবার টাকার গরম সহ্য করতে না পারলে সে টাকা মানুষকে অমানুষেও পরিণত করে। সে রকম অমানুষদের পদতলে পিষ্ট হতে হয় সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষদের। এমনই এক টাকার মালিকের রোষানলে পুড়তে হল নোয়াখালীর বসুরহাটের ফল ব্যবসায়ী মিলনকে।

বসুরহাটের কোটিপতি স্বর্ণ ব্যবসায়ী আপন জুয়েলার্সের মালিক জসিম উদ্দিনের ছেলে মো. শাহেদের দেয়া আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে মিলনের ফলের দোকান। পাশাপাশি এ আগুনে পুড়ে গেছে মিলনের স্বপ্ন ও ভবিষ্যৎ।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/07/1557243542917.gif

মঙ্গলবার (৭ মে) দুপুর ২টায় বসুরহাটে আপন জুয়েলার্সের সামনে থেকে ব্যবসায়ী মিলনকে উচ্ছেদ করার জন্য তার ফলের দোকানে পেট্রল ঢেলে আগুন দেয় শাহেদ। পরবর্তীতে সংবাদ পেয়ে কোম্পানীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় পুলিশ শাহেদকে আটক করে থানায় নিয়ে গেছে বলে জানা গেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন ফল ব্যবসায়ী জানান, শাহেদের এ উদ্ধতপূর্ণ আচরণের বিচার হবে কী? নাকি টাকার কাছে সব ম্যানেজ হয়ে যাবে? পুলিশ তাকে কোনো বিচার ছাড়া ছেড়ে দিলে এ গরিব মানুষগুলোর প্রতি আরও বেশি অত্যাচার বেড়ে যাবে।

এ বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জানান, আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলে শাহেদ একটি ফলের দোকানে আগুন দিয়েছে। তবে এ ঘটনায় দুই পক্ষের মাঝে সমঝোতা করে দেওয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন :