Alexa

এবার বন্দীদের তরমুজ খাওয়ালেন সেই জেল সুপার

এবার বন্দীদের তরমুজ খাওয়ালেন সেই জেল সুপার

বন্দীদের হাতে তরমুজ তুলে দিচ্ছে জেল সুপার, ছবি: বার্তা২৪.কম

এবার হাজতে বন্দী কয়েদিদের তরমুজ খাওয়ালেন জেল সুপার এএসএম কামরুল হুদা। বৃহস্পতিবার (৯ মে) সন্ধ্যায় তিনি বন্দীদের হাতে হাতে তরমুজ তুলে দেন। এর আগে বন্দীদের আবদার মেটাতে গিয়ে তিনি তাদেরকে পিঠা খাওয়ানোর ঘটনাটিও বেশ আলোচিত হয়েছিল।

এ বিষয়ে এএসএম কামরুল হুদা বলেন, 'বৈশাখের শেষে জ্যৈষ্ঠের প্রচণ্ড গরমে কয়েদিরা আমার কাছে তরমুজ খাওয়ার দাবি করে। সেই প্রেক্ষিতে এসব বন্দীদেরকে তরমুজ খাওয়ানো হয়েছে।'

তিনি বলেন, 'আমরাও মানবিক দায়বদ্ধতা থেকে বন্দীদের সাথে আছি। তারা জেল থেকে বের হয়ে যেন ভালো পথে থাকতে পারেন সে লক্ষ নিয়েই বন্দীদের সাথে আচার-ব্যবহার করা হয়। এতে আমাদের মনেও প্রশান্তি আসে।'

জানা যায়, মেহেরপুর জেলা কারাগারে ২০৭ জন বন্দী হিসেবে আছেন। এদের মধ্যে কেউ সাজাপ্রাপ্ত আবার কেউ হাজতি। জেল সুপারের সাথে বন্দীদের এক আত্মিক সম্পর্ক তৈরি হয়েছে। অনেকটাই বাড়ির অভিভাবকের সাথে সদস্যদের সুসম্পর্কের মতোই।

বৈশাখের শেষে তীব্র তাপদাহ। বন্দীদের ছক বাধা শৃঙ্খল জীবনে বাইরের খাবার খাওয়ার সুযোগ কম। মৌসুমি ফল খাওয়ার সুযোগও নেই। বন্দীদের তিন বেলা খাবার দেওয়া হয় সরকারি নিয়মে। তাই তরমুজ খাওয়ার জন্য বন্দীরা জেল সুপারের কাছে আবদার করেন।

যেই কথা সেই কাজ। জেল সুপার বাজার থেকে তরমুজ কিনে ইফতারের পর বন্দীদের মাঝে বিতরণ করেন। তরমুজ পেয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন বন্দিরা।

এর আগে মাঘ মাসে শীতের ভাপা পিঠা খাওয়ার ইচ্ছা পোষণ করলে তাদেরকে পিঠা খাওয়ান এই জেল সুপার।

আপনার মতামত লিখুন :

জেলা এর আরও খবর