নলডাঙ্গায় মা-ছেলের মৃতদেহ উদ্ধার

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নাটোর
মৃতদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন করছে পুলিশ, ছবি: বার্তা২৪.কম

মৃতদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন করছে পুলিশ, ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

নাটোরের নলডাঙ্গা থেকে শারমিন বেগম (৩০) ও তার দুই বছর বয়সী ছেলে আব্দুল্লাহর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার (১৫ মে) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে নলডাঙ্গা উপজেলার বাশিলা উত্তরপাড়ায় নিজেদের ঘর থেকে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় শারমিনকে এবং পাশের পুকুর থেকে আব্দুল্লাহর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা ওই এলাকার মাহামুদুল হাসান মুন্নার স্ত্রী ও সন্তান। 

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুর রহমান জানান, একই উপজেলার হরিদাখলসি গ্রামের শারমিনের সঙ্গে বিয়ের পর থেকেই মাহামুদুল হাসান ঢাকায় থেকে একটি গার্মেন্টসে চাকরি করেন। ছেলেকে নিয়ে বাড়িতে শ্বশুর-শাশুড়ির সঙ্গে থাকতেন শারমিন। মঙ্গলবার রাতের খাবার খেয়ে শারমিন ছেলেকে নিয়ে নিজের ঘরে চলে যান। পরে সেহেরির সময় পরিবারের লোকজন তাকে ডাকতে গেলে তার মৃতদেহ দেখতে পান। এসময় আব্দুল্লাহ ঘরে ছিল না। পরিবারের লোকজন ও প্রতিবেশীরা অনেক খোঁজাখুঁজির পর পাশের পুকুরে আব্দুল্লাহর মৃতদেহ দেখতে পান।

তিনি জানান, খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে মা-ছেলের মরদহে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, রাতে চুরি বা ডাকাতির উদ্দেশে কেউ শারমিনের ঘরে ঢোকে। এসময় শারমিন দেখে ফেলায় তাকে হত্যা করে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখা হয়। আর তার ছেলেকে পুকুরে ফেলে হত্যা করা হয়। যাতে মনে হয়, শারমিনই ছেলেকে হত্যা করে আত্মহত্যা করেছেন। তবে ঘর থেকে কোনো কিছু খোয়া গেছে কিনা তা এখনও জানা যায়নি। ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :