ঈদে সুতি কাপড়ের চাহিদা বেশি

মনিরুজ্জামান বাবলু, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, চাঁদপুর
চাঁদপুরের ঈদ বাজার। ছবি: বার্তা২৪.কম

চাঁদপুরের ঈদ বাজার। ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

চাঁদপুরে জমতে শুরু করেছে ঈদ বাজার। রমজানের শুরুতেই পছন্দের পোশাক কিনতে ক্রেতারা ঘুরছে বিপণি বিতানগুলোতে। ঈদ ঘনিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে ক্রেতাদের ভিড় আরও বাড়বে বলে আশা করছে বিক্রেতারা। তবে এবার প্রচণ্ড গরমের কারণে চাঁদপুরের ঈদ বাজারে সুতি কাপড়ের চাহিদা অনেক বেশি।

এদিকে ঈদকে কেন্দ্র করে আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখতে মার্কেটগুলোতে জোরদার করা হয়েছে পুলিশি নজরদারি। যেকোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে টহল পুলিশের পাশাপাশি কাজ করছে সাদা পোশাকের পুলিশ।

সরেজমিনে দেখা গেছে, ঈদ উদযাপন করতে পছন্দের পোশাকটি কিনতে ক্রেতারা ঘুরছে এক মার্কেট থেকে অন্য মার্কেটে। বিশেষ করে শহরের হাকিম প্লাজা, রূপসী মার্কেট, মুক্তিযোদ্ধা মার্কেট, হকার্স মার্কেট, মীর শপিং সেন্টার, পূরবী শপিং সেন্টার, মদিনা শপিং সেন্টার, নূর ম্যানশন, ফয়সাল শপিং সেন্টারে ক্রেতাদের ভিড় বেশি রয়েছে। নারী ক্রেতাদের সংখ্যাই বেশি। মার্কেটে ক্রেতাদের সমাগম বাড়ায় হাসি ফুটছে ব্যবসায়ীদের মুখে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/20/1558354398554.jpg

শহরের প্রফেসর পাড়ার বাসিন্দা গৃহবধূ নাজমা আক্তার বলেন, ‘ঈদের সময় টেইলার্সের দোকানে অনেক ভিড় থাকে। তাই রমজানের শুরুতেই পছন্দের কাপড় কিনলাম। সুতি কাপড় কিনেছি। গত বছরের তুলনায় এ বছর দাম কিছুটা বেশি।’

বন্ধুদের নিয়ে ঈদ বাজার করতে আসা ফরিদগঞ্জ উপজেলার মো. রাসেল মিয়া বলেন, ‘মার্কেটে ঘুরে ঘুরে পছন্দের জামা-কাপড়, জুতা দেখছি। এখনো কিছু কেনা হয়নি। পছন্দ হলেও দাম কিছুটা বেশি চাচ্ছে দোকানদাররা।’

শহরের হাকিম প্লাজার ইউলো ফ্যাসনের মালিক মো. জাফর বলেন, ‘রমজানের প্রথম সপ্তাহে আমাদের দোকানে বেচাবিক্রি মোটামুটি ভালো। গরম বেশি পড়ায় এ বছর সুতির কাপড়ের চাহিদা অনেক বেশি।’

চাঁদপুরের পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির জানান, ঈদ মার্কেটে ক্রেতা-বিক্রেতাদের নিরাপত্তায় পর্যাপ্ত পরিমাণে পুলিশ কাজ করছে। শপিং করতে আসা নারীরা যেন কোনো হয়রানি বা ইভটিজিংয়ের শিকার না হয় সেদিকে তাদের নজর রয়েছে। তাছাড়া ছিনতাই, চাঁদাবাজি বা জাল টাকার কারবারির বিরুদ্ধেও তারা তৎপর রয়েছে। ঈদের ১০ দিন আগে পুলিশের টহল আরও বৃদ্ধি করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :