Barta24

বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬

English

টেকনাফে সকালে আটক রাতে `বন্দুকযুদ্ধে' নিহত

টেকনাফে সকালে আটক রাতে `বন্দুকযুদ্ধে' নিহত
ছবি: সংগৃহীত
উপজেলা করেসপন্ডেন্ট
বার্তা ২৪.কম টেকনাফ (কক্সবাজার)


  • Font increase
  • Font Decrease

কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে মোহাম্মদ হানিফ (৩৬) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। এসময় তিনটি দেশীয় তৈরি এলজি বন্দুক, ৯ রাউন্ড কাতুজ,১৩ রাউন্ড গুলির খোসা ও চার হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধারের কথা জানিয়েছে পুলিশ। বুধবার (২২মে) সকালে তাকে আটক করে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, বুধবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে উপজেলার টেকনাফ হ্নীলা ইউনিয়নের রঙ্গীখালী সৌর বিদ্যুৎ সংলগ্ন আনোয়ার প্রজেক্টের লবন মাঠ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত হানিফ টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের নাটমুরা পাড়া এলাকার মৃত কাশেম আলীর ছেলে। তিনি একজন চিহ্নিত মাদক কারবারি বলে দাবি পুলিশের। এ ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়। তারা হলেন, পুলিশ কনস্টেবল আব্দুর শুক্কুর, জুয়েল বড়ুয়া ও মংথিন প্রো।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ বার্তা ২৪.কমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান , বুধবার সকালে হ্নীলা এলাকা থেকে মাদক ব্যবসায়ী হানিফকে আটক করা হয়। পরে তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারে ওই এলাকায় তার আস্তানায় অভিযানে যায় পুলিশ।

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে হানিফের সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। বেশ কিছুক্ষণ গুলিবিনিময়ের পর ইয়াবা কারবারিরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে  বেশকিছু অস্ত্র, গুলি ও-ইয়াবাসহ গুলিবিদ্ধ আহত অবস্থায় হানিফকে উদ্ধার করে। পরে তাকে টেকনাফ উপজেলা হাসপাতাল থেকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত হানিফের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনী প্রক্রিয়া চলছে।

আপনার মতামত লিখুন :

সাদুল্লাপুরে মাছ ধরতে গিয়ে জেলের মৃত্যু

সাদুল্লাপুরে মাছ ধরতে গিয়ে জেলের মৃত্যু
প্রতীকী

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার পাকুড়িয়া বিলে মাছ ধরতে গিয়ে বকু মিয়া (৫০) নামে এক জেলের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) সন্ধ্যার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহত বকু মিয়া কুটিপাড়া গ্রামের মৃত মন্তাজ আকন্দের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বকু মিয়া পাকুড়িয়া বিলের পানিতে সাঁতরিয়ে মাছের জাল পুঁতে রাখতে গিয়ে পানিতে ডুবে নিখোঁজ হন।

খবর পেয়ে গাইবান্ধা ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ডুবুরিরা ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই স্থানীয়রা পানিতে নেমে খোঁজাখুঁজির করে বকু মিয়ার মরদেহ উদ্ধার করেন।

ভাতগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রেজানুল ইসলাম বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে এ খবর নিশ্চিত করেন।

জমি নিয়ে বিরোধের জেরে মেয়ে নিহত, বাবা আহত

জমি নিয়ে বিরোধের জেরে মেয়ে নিহত, বাবা আহত
ম্যাপ

কুড়িগ্রামের রাজারহাটে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে চাচাতো ভাই ও ভাতিজাদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে সাজিনা বেগম নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আশঙ্কাজনক অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন নিহত নারীর বাবা ফরহাদ হোসেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) দুপুরে রাজারহাট উপজেলার সদর ইউনিয়নের খুলিয়াতারী গ্রামের ফরহাদ আলী (৬০) তার জমিতে ধান রোপণ করতে গেলে তার বড় ভাই ফারছেদ আলীর ছেলে ছয়ফুল ও তার সহযোগীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে এলোপাথারি কোপাতে থাকে।

এ সময় ফরহাদ আলীর কন্যা সাজিনা বেগম (৪৫) বাবাকে বাঁচাতে এগিয়ে গেলে প্রতিপক্ষের লোকেরা তাকেও রামদা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে।

পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় দুজনকেই রাজারহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসার পর রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে সাজিনা বেগমের মৃত্যু হয়।

হামলায় জড়িত সোহেল (১৮) ও সুলতানা বেগম (৩৬) নামে দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

জানা যায়, দুই বছর আগে মৃত সাজিনার ছোট ভাই তাজুল ইসলামকেও প্রতিপক্ষ হত্যা করেছে।

রাজারহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃষ্ণকুমার সরকার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় রাজারহাট থানায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র