Barta24

মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬

English

গাজীপুরে নিখোঁজ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার

গাজীপুরে নিখোঁজ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার
ছবি: সংগৃহীত
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
ঢাকা


  • Font increase
  • Font Decrease

গাজীপুরে ইসমাইল হোসেন নামে ইউরোপিয়ান ইউনিভার্সিটি নামে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ৷ নিখোঁজের ৮দিন পর বৃহস্পতিবার (২৩ মে) গাজীপুরের গাছা এলাকা থেকে রাজধানীর শেরে বাংলা নগর থানা পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে শেরে বাংলা নগর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) তোফাজ্জল হোসেন বার্তা২৪.কমকে বলেন, গত ১৬ মে  ইসমাইলের পরিবার তার নিখোঁজ হওয়ার বিষয়ে থানায় একটি জিডি করে। জিডির পর আমরা বিষয়টি নিয়ে কাজ শুরু করি। এর আগে ইসমাইলের পরিবারের পক্ষ থেকে গাছা থানায়ও একটি জিডি করা হয়।

তিনি বলেন, গত ৮ দিন খোঁজাখুজি করেও তার পরিবার কোনো সন্ধান পায়নি। পরে আমরা গাছা এলাকা থেকে ইসমাইলের মরদেহ উদ্ধার করি। তবে বিষয়টি তদন্ত প্রাথমিক পর্যায়ে থাকায় এ বিস্তারিত কিছু বলা যাচ্ছে না। এ ঘটনার রহস্য আমরা অচিরেই উদঘাটন করে  বিস্তারিত জানানো হবে।

আপনার মতামত লিখুন :

চাঁদপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

চাঁদপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ
হাজীগঞ্জের ইউপি চেয়ারম্যান ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

স্থানীয় সরকারের নিয়ম নীতি তোয়াক্কা না করে নিজেদের ইচ্ছেমত পরিচালনা করার কারণে ভেঙে পড়েছে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার ১১নম্বর হাটিলা (পশ্চিম) ইউনিয়ন পরিষদের সেবা ও উন্নয়নমূলক কার্যক্রম। হযবরল অবস্থায় চেয়ারম্যান এর বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে ইউপি সদস্যরা। ২০১৬ সালে নির্বাচিত হওয়ার কিছুদিন পর থেকে এ পরিষদের অবস্থা অবনতি হতে শুরু করে।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে গিয়ে অভিযোগকারী, অভিযুক্তসহ অন্যান্য ইউপি সদস্য, ইউপি সচিব ও স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলেন দুদকের তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত প্রতিনিধি দল। তাদের কাছ থেকে লিখিতভাবে বক্তব্যগুলো সংগ্রহ করেন তারা। 

অভিযোগ তদন্তে প্রতিনিধি দলের প্রধান দায়িত্বে ছিলেন উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. গোলাম মোস্তফা। অন্য দুই সদস্য হলেন, উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা একেএম মিজানুর রহমান ও সহকারী পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. আব্দুল গণি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/20/1566314525444.jpg
তদন্তে দুদকের প্রতিনিধি দল

 

অভিযোগকারীরা হলেন, ইউপি সদস্য রবিউল হোসেন মিয়াজী, হাবীব মোল্লা, মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সবুজ, মইনুল হক দুলাল সর্দার, হাবিব, সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য জাকিয়া বেগম, মমতাজ বেগম ও জোসনা বেগম। তবে এদিন অভিযোগকারী ৮জন ইউপি সদস্য’র মধ্যে থেকে ৪ জন তদন্ত টিমের কাছে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দেন। অপর ৪ জন থেকে স্বেচ্ছায় তাদের অভিযোগ প্রত্যাহার করে নেয়ার আবেদন করেন।

উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের ২১ অক্টোবর হাটিলা পশ্চিম ইউনিয়নে প্রকল্পের টাকা আত্মসাৎ, সরকারি টাকা আত্মসাৎ, স্বেচ্ছাচারিতা, ছুটি না নিয়ে এবং প্যানেল চেয়ারম্যানকে দায়িত্ব না দিয়ে দেশের বাহিরে অবস্থান নেয়ার অভিযোগ দেখিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন লিটুর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে লিখিত আবেদন করেন ইউনিয়ন পরিষদের ৮ জন সদস্য। স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব বরাবর এ অভিযোগটি দেয়া হয়। যার অনুলিপি দুর্নীতি দমন কমিশন ও জেলা প্রশাসক (চাঁদপুর) দেয়া হয়।

অভিযোগপত্রে দেখা যায়, ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন লিটু নির্বাচিত হওয়ার পর এখনো প্যানেল চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেনি। আনুষ্ঠানিক বা অনানুষ্ঠানিক ভাবে বার্ষিক বাজেট প্রকাশ করেনি। সরকারি এডিপি, এলজিএসপি, টিআর, ১% কাবিখা ইত্যাদি কর্মসূচি বা প্রকল্পের বরাদ্দ ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যগণের সহিত যোগাযোগ, পরামর্শ, মিটিং না করেই তিনি স্বেচ্ছাচারিতা, অনিয়ম ও বেআইনি ভাবে প্রকল্পের কাজ করে সরকারি টাকা আত্মসাৎ করছেন।

অভিযোগকারীদের মধ্যে ইউপি সদস্য রবিউল হোসেন মিয়াজী ও মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সবুজ বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান লিটু নির্বাচিত হওয়ার পর প্রথম দিকে ১ শতাংশ টাকা দিয়ে টয়লেট নির্মাণ ও পাম্প স্থাপনের কাজ করে অর্থ আত্মসাৎ করেন। সরকারী ৪০ দিনের কর্মসূচির ৪৩ শতাংশ টাকা কেটে সম্পূর্ণ টাকা নিজে আত্মসাৎ করেছেন। গৃহহীনদের মাঝে ঘর দেয়ার নামে ৫ হাজার করে টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। ইউপি সদস্যদের নিয়মিত সম্মানী ভাতা দেয়া হয়নি। এছাড়াও চেয়ারম্যান জাকির হোসেন লিটুর বিরুদ্ধে আরও অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে।

জানতে চাইলে এ প্রসঙ্গে অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন লিটু বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগগুলো মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। আশা করি তদন্তে তা প্রমাণিত হবে।

তদন্ত প্রতিনিধি দলের সদস্য ও উপজেলা সহকারী পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. আব্দুল গনি বলেন, আমরা অভিযোগকারী, অভিযুক্তসহ অন্যান্য ইউপি সদস্য, সচিব ও স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলেছি। এছাড়া ডকুমেন্টারি প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তদন্ত প্রতিনিধির কাছে জমা দেয়ার জন্য ইউপি সচিবকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

তদন্ত প্রতিনিধি দলের প্রধান হাজীগঞ্জ উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. গোলাম মোস্তফা মঙ্গলবার বিকেলে বলেন, অভিযোগের আংশিক সত্যতা পাওয়া গেছে। কিছু গরমিল রয়েছে। প্রয়োজনে তদন্ত কাজ আরও গভীরে যাবো।

কুষ্টিয়ায় যুবককে পিটিয়ে হত্যা

কুষ্টিয়ায় যুবককে পিটিয়ে হত্যা
হাসপাতালে নিহত যুবকের মরদেহ, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

কুষ্টিয়ায় অনিক ইসলাম (২৫) নামের এক যুবককে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) সন্ধ্যা ৬টার দিকে ভেড়ামারা শহরের ডাকবাংলো-বাবর আলী সুপার মার্কেটে এ ঘটনা ঘটে। নিহত অনিক ইসলাম ভেড়ামারা উপজেলার কোদালিয়াপাড়া এলাকার আক্তার হোসেনের ছেলে। তিনি বাবর আলী সুপার মার্কেটের আমীন গার্মেন্টেসে বিক্রয় প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করতেন।

কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ভেড়ামারা সার্কেল) এসএম আল বেরুনী জানান,
প্রতিদিনের মতো দোকানে কাজ করছিলেন অনিক ইসলাম। বিকেলের দিকে ৫-৬ জন যুবক এসে অতর্কিতভাবে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিতে বললেন। সেখানে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

তিনি আরও জানান, বাজারের সিসি ক্যামেরা পর্যবেক্ষণ করে দ্রুত আসামিদের আটক করা হবে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র