Alexa

ঈদের পরদিন থেকে বগুড়ায় পরিবহন ধর্মঘটের আল্টিমেটাম

ঈদের পরদিন থেকে বগুড়ায় পরিবহন ধর্মঘটের আল্টিমেটাম

বগুড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে পরিবহন ধর্মঘটের আল্টিমটাম দেয় পরিবহন নেতারা, ছবি:বার্তা

ঈদের পরদিন থেকে বগুড়ায় পরিবহন ধর্মঘটের আল্টিমেটাম দিয়েছে বগুড়া জেলা সড়ক পরিবহন ও মালিক শ্রমিক যৌথ কমিটি। বিএনপি নেতা ও পরিবহন ব্যবসায়ী অ্যাডভোকেট শাহীন হত্যা মামলায় গ্রেফতারকৃত আরেক পরিবহন ব্যবসায়ী ও বগুড়া পৌরসভার প্যানেল মেয়র আমিনুল ইসলামের পক্ষে আইনজীবী নিয়োগে বাধা দেয়ার প্রতিবাদে তারা এ আল্টিমেটাম দেয়।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) বগুড়া প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে পরিবহন ধর্মঘটের আল্টিমটাম দেয়া হয়। বগুড়া জেলা সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক যৌথ কমিটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান আকন্দ সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন।

এ সময় নিহত শাহীনকে ভূমিদস্যু উল্লেখ করে তিনি বলেন, নিশিন্দারা উপশহরে ১০৪ শতাংশ পুকুর দখল করে একটি স্কুলের কাছে জায়গাটি বিক্রি করে দেয় শাহীন। একজন পরিবহন ব্যবসায়ীর সঙ্গে বাকবিতণ্ডা বা অন্য কোনো ঘটনা ঘটায় আইনজীবীরা কেন পক্ষ নেবে প্রশ্ন রাখেন তিনি? তিনি বলেন, পরিবহন ব্যবসায়ীরা মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

তিনি বলেন, আমিনুল ইসলামের জামিন শুনানিতে অ্যাডভোকেট আবু আসাদ মামলা সংক্রান্ত নথিপত্র নিয়ে আদালতে হাজির হলে অপর আইনজীবীরা তাকে মারধর করে বের করে দেয়। আইনজীবীদের এমন আচরণে পরিবহন ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন প্রশ্নের সস্মুখীন  হতে হচ্ছে নেতৃবৃন্দদেরকে।

এ কারণে বগুড়া জেলা সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক যৌথ কমিটির জরুরি সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে, ঈদ-উল ফিতরের পরদিন থেকে বগুড়া মালিক ও শ্রমিকরা সব ধরনের পরিবহন যেমন, বাস, ট্রাক, পিকআপ, সিএনজি চালিত অটোরিকশা এমনকি প্রাইভেট যানবাহন চলাচল বন্ধ রাখবে। ঈদের পরদিন থেকে পরিবহন শ্রমিকরা তাদের কর্মস্থলে যাবে না।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, পরিবহন ব্যবসায় কোনো অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে বগুড়া জেলা সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক যৌথ কমিটি এর দায় দায়িত্ব নেবে না।

উল্লেখ্য, গত ১৪ এপ্রিল রাতে বগুড়ার নিশিন্দারা উপশহরে পরিবহন ব্যবসায়ী ও বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট মাহবুব আলম শাহীনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় আরেক পরিবহন ব্যবসায়ী ও বগুড়া পৌরসভার প্যানেল মেয়র আমিনুল ইসলামকে প্রধান আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়। ওই মামলায় আমিনুল গ্রেফতার হয়ে কারাগারে রয়েছেন।

এদিকে অ্যাডভোকেট শাহীন হত্যার প্রতিবাদে বগুড়া আইনজীবী সমিতির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কোনো আইনজীবী আসামির পক্ষে আইনগত সহযোগিতা দিয়ে আসছেন না।

 

আপনার মতামত লিখুন :