Alexa

স্থগিত রাজবাড়ীর দেড়শ বছরের লাল ভবন ভাঙার সিদ্ধান্ত

স্থগিত রাজবাড়ীর দেড়শ বছরের লাল ভবন ভাঙার সিদ্ধান্ত

রাজবাড়ীর ঐতিহ্যবাহী লাল ভবন/ছবি: বার্তা২৪.কম

অবশেষে রাজবাড়ী শহরের প্রাণকেন্দ্রে ১৮৯২ সালে প্রতিষ্ঠিত রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের দেড়শ বছরের ঐতিহ্যবহনকারী লাল ভবনটি ভাঙার সিদ্ধান্ত স্থগিত করেছেন রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী।

শনিবার (২৫ মে) দুপুরের সংসদ সদস্যের নিজ বাসভবনে ‘ঐতিহ্য সংরক্ষণ আন্দোলন রাজবাড়ী’র সঙ্গে মতবিনিময় শেষে তিনি এ ঘোষণা দেন।

লাল ভবন ভাঙার সিদ্ধান্ত স্থগিতের বিষয়টি নিশ্চিত করে ঐতিহ্য সংরক্ষণ আন্দোলন রাজবাড়ীর সমন্বয়ক একুশে পদকপ্রাপ্ত চিত্রশিল্পী চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ও রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র মনসুর উল করিম।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/25/1558784287362.jpg

তিনি বার্তা২৪.কমকে জানান, ভবনটি রক্ষার দাবিতে আমাদের পরবর্তী কার্যক্রম কি হবে তারই প্রেক্ষিতে আজ বেলা ৩টায় আমাদের পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী সর্বস্তরের পেশাজীবীদেরকে নিয়ে একটি মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু রাজবাড়ী-২ আসনের  সংসদ সদস্য আমাদের মতবিনিময় সভাটি বন্ধ করে তার সঙ্গে বসার আহবান জানান।

তারই প্রেক্ষিতে ঐতিহ্য সংরক্ষণ আন্দোলন রাজবাড়ীর ১০ সদস্য আজ দুপুরে এমপির বাসভবনে আলোচনার জন্য উপস্থিত হয়। দীর্ঘ আলোচনা শেষে এমপি আমাদেরকে জানান, ভবনটি সংরক্ষণের জন্য তিনি প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন এবং ভবনটি যাতে ভাঙা না লাগে সেটিরও ব্যবস্থা তিনি করবেন। তাৎক্ষণিকভাবে এমপি ভবনটি যাতে না ভাঙা হয় সেজন্য তিনি বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ফোনে নির্দেশ দেন।

রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী বার্তা ২৪.কমকে জানান, ভবনটি ভাঙার সিদ্ধান্ত স্থগিত করা হয়েছে। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছি। আর ঈদের পর জেলা প্রশাসকের সঙ্গে বসে ভবনটি সংরক্ষণের জন্য কি ব্যবস্থা গ্রহণ করা যেতে পারে সেটি আলোচনা করা হবে এবং লাল ভবনটি রেখে বিদ্যালয়ের অবকাঠামো উন্নয়নের বিষয়ের কথাও হবে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/25/1558784315824.jpg

প্রসঙ্গত, ১৮৭১ সালে মাইনর স্কুল দিয়ে এটির যাত্রা শুরু হয়। আর ১৮৯২ সালে তা পূর্ণরূপ পায়। ১৮৯২ সালে তৎকালিণ গোয়ালন্দ মহকুমার বাণীবহ এস্টেটের জমিদার গিরিজা শংকর মজুমদার ও অভয় শংকর মজুমদার রাজবাড়ীর সজ্জনকান্দা মৌজায় দি গোয়ালন্দ ইংলিশ হাই স্কুল নাম দিয়ে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেন। পরে নাম পরিবর্তন করে গোয়ালন্দ মডেল হাই স্কুল  এবং সর্বশেষ রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় নামকরণ করা হয়।

বেশ কয়েক বছর আগেও কর্তৃপক্ষ এই লাল ভবনটি ভেঙে ফেলার উদ্যোগ নিলে তীব্র আন্দোলনের মুখে রক্ষা পায় তখন এই ভবনটি। সর্বশেষ ৯ মে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর কর্তৃপক্ষ ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করে সেটি ফের ভেঙে ফেলার  সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। আর তাতেই ফুঁসে উঠেছিল রাজবাড়ীবাসী। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে শুরু হওয়া আন্দোলন নেমে আসে  রাজপথে । যে কোন কিছুর মূল্যেই হোক ভবনটির অস্থিত্ব টিকে রাখতে আন্দোলনকারীরা আত্মহুতিরও ঘোষণা দিয়েছিলেন।  তারই প্রেক্ষিতে আজ ভবনটি ভাঙার সিদ্ধান্ত স্থগিত করেন রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য।

 

আপনার মতামত লিখুন :