Barta24

শনিবার, ১৭ আগস্ট ২০১৯, ২ ভাদ্র ১৪২৬

English

সাতক্ষীরা মেডিকেলে মাটির নিচে ১০ বস্তা সরকারি ওষুধ

সাতক্ষীরা মেডিকেলে মাটির নিচে ১০ বস্তা সরকারি ওষুধ
ছবি: বার্তা২৪.কম
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
সাতক্ষীরা


  • Font increase
  • Font Decrease

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মাটির নিচ থেকে বিপুল পরিমাণ সরকারি ওষুধ উদ্ধার করা হয়েছে। 

শনিবার (২৫ মে) দুপুরে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সেপটিক ট্যাংকের পাশ থেকে এগুলো উদ্ধার করা হয়।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/25/1558792746809.jpg

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সেফটিক ট্যাংকের পাশে কমপক্ষে ১০ বস্তা বিভিন্ন ধরনের ওষুধ ও গজ ব্যান্ডেজসহ নানা ধরনের সরঞ্জাম মাটি চাপা দেয়া ছিল। আজ সকালে কালবৈশাখী ঝড় ও বৃষ্টির পানির চাপে ওই ওষুধের বস্তাগুলো ভিজে ফুলে ভেসে ওঠে। এ সব গজ ব্যান্ডেজগুলো নতুন এবং ওষুধের মেয়াদ ২০২২ সাল পর্যন্ত রয়েছে। তবে তা বৃষ্টির পানিতে ভিজে নষ্ট হয়ে গেছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/25/1558792771754.JPG

স্থানীয়রা জানায়, ভেসে ওঠা ওষুধগুলো পুনরায় মাটিচাপা দেয়ার জন্য লেবারদের সঙ্গে দর কষাকষি করতে গেলেই ঘটনাটি ফাঁস হয়ে যায়।

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. শাহজাহান আলী জানান, তিনি বিষয়টি জানতে পেরেছেন। তার দায়িত্ব পালনকালীন এ ঘটনা ঘটেনি। তিনি এখানে যোগদানের আগে এ ঘটনাটি ঘটেছে বলে দাবি করেন।

আপনার মতামত লিখুন :

খেলার সময় পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

খেলার সময় পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু
ছবি: প্রতীকী

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে ফুফু বাড়ি বেড়াতে এসে পুকুরের পানিতে ডুবে রঞ্জন চন্দ্র সেন (৯) নামে এক শিশু মারা গেছে।

শনিবার (১৭ আগস্ট) দুপুরে উপজেলার শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের বার্ডের হাট সেনপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মৃত রঞ্জন চন্দ্র সেন পার্শ্ববর্তী জেলা লালমনিরহাট সদর উপজেলার বড়বাড়ী ইউনিয়নের গযেন চন্দ্র সেনের ছেলে।

নিহতের পরিবার জানায়, রঞ্জন চন্দ্র সেন মায়ের সঙ্গে ফুফু বাড়িতে বেড়াতে আসে। সেখানে খেলাধুলা করার সময় বাড়ির পাশে পুকুরে পড়ে যায় সে। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

ফুলবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার ফুয়াদ রুহানী এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

শাহজাদপুরে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি ২২ বছর পর গ্রেফতার

শাহজাদপুরে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি ২২ বছর পর গ্রেফতার
গ্রেফতার হওয়া পলাতক আসামি, ছবি: সংগৃহীত

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি সিদ্দিকুর রহমান (৫৫)কে ২২ বছর পর গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার (১৭ আগস্ট) ভোরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পাবনার ফরিদপুর থানার ডেমরা গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি সিদ্দিকুর রহমান উপজেলার পোতাজিয়া ইউনিয়নের রাউতারা গ্রামের মৃত আরজান আলীর ছেলে।

শাহজাদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আতাউর রহমান মামলার বরাত দিয়ে জানান, গার্মেন্টসকর্মী সাথী খাতুন (১৬) কে ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি সিদ্দিকুর রহমান (৫৫) কে ২২ বছর পর গ্রেফতার করা হয়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পাবনা জেলার ফরিদপুর থানার ডেমরা গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।  

তিনি আরো জানান, রাজমিন্ত্রী সিদ্দিকুর রহমান শাহজাদপুর পৌর সদরের দিলরুবা বাসস্ট্যান্ড এলাকার সিদ্দিকুর রহমানের মেয়ে সাথী খাতুন (১৬) কে বেশি বেতনে গার্মেন্টসে চাকরি দেয়ার লোভ দেখিয়ে ১৯৯৫ সালের ৩০ অক্টোবর ঢাকায় নিয়ে যায়। এরপর ১ বছর অজ্ঞাতস্থানে আটকে রেখে তাকে অসংখ্যবার ধর্ষণ করে সে। ১৯৯৬ সালের ২৪ নভেম্বর ধর্ষণে বাধা দিলে শ্বাসরোধ করে তাকে হত্যা করে।

তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় নিহত সাথীর মা জবেদা খাতুন(৩৬) বাদী হয়ে ১৯৯৭ সালের ৬ মার্চ সিরাজগঞ্জর নারী ও শিশুনির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল আদালতে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে মামলা দায়ের করে। এরপর থেকেই আসামি সিদ্দিকুর রহমান পলাতক ছিল। তার অনুপস্থিতিতেই ১৯৯৭ সালের ২৬ মার্চ শাহজাদপুর থানা পুলিশ আদালতে চার্জশীট দাখিল করে। এরপর এ মামলার ৬ জন স্বাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে ২০১২ সালের ২৬ জানুয়ারি সিরাজগঞ্জের নারী ও শিশুনির্যাতন দমনের বিশেষ ট্রাইব্যুনাল আদালতের তৎকালীন বিচারক আকবর হোসেন মৃধা যাবজ্জীবন রায় প্রদান করেন।

ওসি আতাউর রহমান আরো জানান, এ হত্যাকাণ্ডের পর থেকেই আসামি সিদ্দিকুর রহমান পলাতক ছিলেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে পাবনা জেলার ফরিদপুর থানার ডেমরা গ্রাম গ্রেফতার করা হয়।

তিনি বলেন, পুলিশ দীর্ঘদিন ধরে তাকে খুঁজছিল। কিন্তু বারবার তার অবস্থান পরিবর্তন করায় তাকে এতোদিন গ্রেফতার করা সম্ভব হচ্ছিল না।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র