Barta24

বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

পঞ্চগড়ে ঘোড়া দিয়ে জমি চাষ!

পঞ্চগড়ে ঘোড়া দিয়ে জমি চাষ!
ঘোড়া দিয়ে হাল চাষ, ছবি: সংগৃহীত
মোহাম্মদ রনি মিয়াজী
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
পঞ্চগড়


  • Font increase
  • Font Decrease

কৃষকেরা গরু দিয়ে হাল চাষ করে ফসল ফলায়। এই পদ্ধতিতে চাষ একটি আদি প্রচলন। তবে বর্তমানে বাজারে গরুর দাম অনেক বেশি হওয়াতে, চাষাবাদে গরুর বদলে ব্যবহার করা হচ্ছে ঘোড়া। দেশের পঞ্চগড়ের উত্তরের জেলার বোদা উপজেলাধীন মাড়েয়া এলাকায় গ্রামাঞ্চলে এমন দৃশ্যই দেখা গেছে। বাজারে এক হাল গরুর দাম প্রায় ৫০-৬০ হাজার টাকা। অপরদিকে এক হাল ঘোড়া ১০-১৫ হাজার টাকা দিয়ে পাওয়া যায়। এক জোড়া গরুর টাকা দিয়ে বর্তমান বাজারে ৩ জোড়া ঘোড়া পাওয়া যায়।

কৃষক রুবেল হোসেন তিনি প্রতি বছর স্বল্প পরিমাণে আখ চাষ করেন। আখ চাষের ওপরেই চলে তার সংসার। রুবেলের জমি চাষাবাদের জন্য পূর্বে গরু থাকলেও এখন নেই। গরু কেনার সামর্থ্য না থাকায় তিনি ৩০হাজার টাকা দিয়ে জমি চাষ করার জন্য এক জোড়া ঘোড়া কিনেন।

শুরুতেই ঘোড়াগুলোকে হাল চাষ শেখাতে অনেক কষ্ট হলেও অবশেষে আয়ত্তে আসে। এখন পুরো দমে ঘোড়া দিয়ে তিনি হাল চাষ করছেন। শুধু নিজের জমিই নয়, অন্যের জমিও টাকার বিনিময়ে চাষ করে দিচ্ছেন। এক বিঘা জমি চাষ করতে তিনি ৩০০ টাকা নিচ্ছেন।

পঞ্চগড়ে ঘোড়া দিয়ে জমি চাষ!

রুবেলের ঘোড়া দিয়ে হাল চাষের দৃশ্য দেখে মোবাইল ফোনে ধারণ করেন পঞ্চগড় সুগার মিলের আখ উন্নয়ন সহকারী আব্দুল জব্বার মোল্লা। পরে তার সহকর্মী হরিস চন্দ্র রায় ছবিগুলো তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের টাইম লাইনে শেয়ার করলে মুহূর্তের মধ্যে তা ছড়িয়ে পড়ে।

রুবেল হোসেন বলেন, ‘গরুর দাম বেশি হওয়ায় আমি দুটা ঘোড়া ক্রয় করি। জমি চাষাবাদে ঘোড়ার হাল ব্যবহার করি। ঘোড়ার শক্তি বেশি ও দ্রুত হওয়ায় সুন্দরভাবে জমি চাষ করা যায়। আমি ঘোড়া দিয়ে নিজের জমি চাষ করার পাশাপাশি মানুষের জমি চাষ করি।'

কৃষক ফারুক হোসেন বলেন, ‘জমি চাষ করার জন্য গরুর হাল আর পাওয়া যায় না। এখন ঘোড়ার দাম কম হওয়ায় ঘোড়া দিয়ে জমি চাষাবাদ করছেন অনেকে।'

পঞ্চগড় সুগার মিলের স্থানীয় ইক্ষু সেন্টারর ইনচার্জ হরিশ চন্দ্র রায় বার্তা২৪.কম-কে বলেন, ‘ঘোড়া দিয়ে জমি চাষের দৃশ্য দেখাতে আমার সহকর্মী মাড়েয়া এলাকায় নিয়ে যায়। আখ রোপণের পর আখ বড় হলে আখের গোড়ার মাটি নরম করার জন্য গরুর হাল দিয়ে নরম করতে হয় কিন্তু গরুর হাল না পাওয়ায় ঘোড়ার হাল দিয়েই তা করা যায়। ঘোড়া দিয়ে হাল চাষে সুবিধা ও ঘোড়ার দাম অনেক কম।'

আপনার মতামত লিখুন :

ফরিদপুরে সেরা সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ

ফরিদপুরে সেরা সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ
ফরিদপুরের সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ/ ছবি: সংগৃহীত

২০১৯ সালের উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) পরীক্ষায় ফরিদপুরে সবচেয়ে ভালো ফল করেছে সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ। অপরদিকে সবচেয়ে খারাপ ফল করেছে বাখুন্ডা কলেজ।

ফরিদপুর সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ থেকে এক হাজার ৬০৯ জন ছাত্রী পরীক্ষায় অংশ নেয়। এর মধ্যে পাশ করেছে এক হাজার ৩৬৮ জন। পাশের হার ৮৫ দশমিক ০২ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫১ জন।

সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ সুলতান মাহমুদ বলেন, ‘সকল শিক্ষার্থীকে গভীর নজরদারির মধ্যে রেখেছি। যারা বার্ষিক পরীক্ষায় খারাপ করেছে তখন তাদের অভিভাবকদের ডেকে এনে বিষয়টি বলেছি, যাতে তারা মেয়েদের পড়ার ব্যাপারে নজর রাখতে পারেন। এভাবে শিক্ষক ও অভিভাবকদের সম্মিলিত চেষ্টায় এ সাফল্য।’

এদিকে বাখুন্ডা কলেজ থেকে পরীক্ষা দিয়েছে ১০৩ জন। পাশ করেছে ২৩ জন। পাশের হার ২২ দশমিক ৩৩।

খারাপ ফলাফলের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে বাখুন্ডা কলেজের অধ্যক্ষ মো. সেলিম মিয়া বলেন, ‘দীর্ঘ ২৪ বছর ধরে এমপিওভুক্ত না হওয়ায় শিক্ষরা বিনা বেতনে কাজ করছেন। ফলে নিয়মিত পাঠদান করা সম্ভব হয় না। এই কলেজে ভালো শিক্ষার্থীরা ভর্তি হয় না। নির্বাচনী পরীক্ষায় অকৃতকার্য হলেও রাজনৈতিক চাপে পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ করে দিতে হয়। এ কারণে ফল ভালো হয়নি।’

কৃষকের ঘরে ১৭ গোখরার বাচ্চা

কৃষকের ঘরে ১৭ গোখরার বাচ্চা
জাকির মোল্লার ঘর থেকে উদ্ধার হওয়া সাপগুলো। ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম।

ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার আউশিয়া গ্রামে জাকির মোল্লা নামে এক কৃষকের বাড়ি থেকে ১৭টি গোখরা সাপের বাচ্চা উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার (১৭ জুলাই) বিকেলে তার বসতঘরের মেঝে খুঁড়ে সাপের বাচ্চাগুলো উদ্ধার করা হয়।

কৃষক জাকির মোল্লা জানান, বিকেলে বসত ঘরের মাচার নিচে একটি গোখরা সাপের বাচ্চা দেখতে পান তার মা। পরে গ্রামবাসীর সহায়তায় ঘরের মেঝে খোঁড়ার কাজ শুরু করেন। সন্ধ্যা পর্যন্ত তারা ১৭টি গোখরা সাপের বাচ্চা ও ২৩টি ডিমের খোসা উদ্ধার করেন। মা সাপ ও বাকি বাচ্চাগুলো উদ্ধারের আশায় মেঝের বাকি অংশে খননের কাজ চলছে।

তবে উদ্ধার হওয়া ওই ১৭ গোখরা সাপের বাচ্চাকে মেরে ফেলা হয়েছে বলেও জানান কৃষক জাকির মোল্লা।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র