পঞ্চগড় স্টেশনে নেই ফিরতি টিকিট, মিলছে কালোবাজারে

মোহাম্মদ রনি মিয়াজী, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, পঞ্চগড়
লাইনের পাশ থেকে কালোবাজারি টিকিট বিক্রির চেষ্টা করছেন এক ব্যক্তি / ছবি: বার্তা২৪

লাইনের পাশ থেকে কালোবাজারি টিকিট বিক্রির চেষ্টা করছেন এক ব্যক্তি / ছবি: বার্তা২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

দেশের উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম রেলওয়ের স্টেশনে ঈদে ফিরতি টিকিট পাচ্ছেন না যাত্রীরা। কিন্তু বাড়তি দামে কালোবাজারিদের কাছে মিলছে টিকিট।

অভিযোগ আছে, ঈদুল ফিতরকে কেন্দ্র করে সক্রিয় হয়ে ওঠছে একটি চক্র। ফলে ঈদের ফিরতি টিকিট কাউন্টারে পাওয়ার কথা থাকলেও তা পাওয়া যাচ্ছে কালোবাজারে। যা নির্ধারিত দামের তিনগুণ দামে সংগ্রহ করতে হচ্ছে যাত্রীদের।

গত ৩০ মে থেকে পঞ্চগড়-ঢাকা রুটে ট্রেনের ফিরতি টিকিট বিক্রি শুরু হয়। কিন্তু পঞ্চগড়ের জন্য বরাদ্দকৃত টিকিট কালোবাজারিদের হাতে চলে যাওয়ায় হয়রানি ও প্রতারণার শিকার হচ্ছেন ভুক্তভোগীরা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/03/1559560184641.jpg

সূত্রে জানা গেছে, স্টেশনের আশপাশের স্থানীয় বাসিন্দা, স্টেশনের সামনের বিভিন্ন দোকানদারসহ, স্টেশনের পাশে কর্মরত মহিলা, ভিক্ষুক এমনিকি টোকাইরাও লাইনে দাঁড়িয়ে এসি ও নন এসির টিকিট কিনছে। যা পরবর্তীতে অতিরিক্ত দামে বিক্রি করা হচ্ছে সাধারণ যাত্রীদের কাছে।

যাত্রীদের অভিযোগ, কাউন্টারে কোনো টিকিট পাওয়া যাচ্ছে না। তবে কালোবাজারে শোভন চেয়ারের নির্ধারিত মূল্য ৫৫০ টাকা হলেও সেটি এক হাজার ৩০০ থেকে এক হাজার ৫০০ টাকায়, এসি চেয়ার এক হাজার ৫৩ টাকা নির্ধারিত মূল্য থাকলেও আড়াই থেকে তিন হাজার টাকায় কিনতে হচ্ছে। এবারই প্রথম পঞ্চগড়ের স্টেশন থেকে টিকিট কাটছেন যাত্রীরা। কিন্তু বেশিরভাগ টিকিট প্রত্যাশীদের খালি হাতে ফিরতে হচ্ছে। প্রশাসন ও রেলওয়ে কতৃপক্ষ বিষয়টি আমলে না নিলে আবারও বাসের দিকে ঝুঁকবেন অনেকে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/03/1559560236371.jpg

মুসলিম উদ্দিন নামে এক যাত্রী বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘আজ (শনিবার) সেহেরির পর রেলস্টেশনে গিয়ে দেখি দেড় শতাধিক লোকের লাইন। তবে তাদের কেউ যাত্রী না, সবাই সিন্ডিকেট সদস্য।’

তিনি আরও বলেন, ‘কালোবাজারে অতিরিক্ত দামে টিকিট বিক্রি হলেও প্রশাসন ও রেলওয়ের কর্তৃপক্ষ কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে না।’

সানাউল্লাহ নামে আরেক যাত্রী বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘গত শুক্রবার ফিরতি টিকিট সংগ্রহ করতে গিয়ে দীর্ঘ লাইন দেখি। পরে লাইনের পাশ থেকে কয়েকজন কাছে গিয়ে টিকিট লাগবে কিনা জানতে চায়। অনেকে অতিরিক্ত টাকা দিয়ে টিকিট নিয়ে ফিরছেন। আবার অনেকে দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট না নিয়েই বাড়ি ফিরছেন।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/03/1559560426790.jpg

পঞ্চগড়ের মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম স্টেশনের মাস্টার মোশারফ হোসেন বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘যারা লাইনে দাঁড়িয়েছে তারা ঠিকই টিকিট পাচ্ছে। তবে কালোবাজারির বিষয়টা আমার জানা নেই।’

আপনার মতামত লিখুন :