Barta24

বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

কমিটি নিয়ে আ’লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ১০

কমিটি নিয়ে আ’লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ১০
আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে, ছবি: বার্তা২৪
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
ঝিনাইদহ


  • Font increase
  • Font Decrease

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার সুন্দরপুর-দুর্গাপুর ইউনিয়নের কাদিরকোল গ্রামে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে দলের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে কমপক্ষে দশজন আহত হয়েছেন।

সোমবার (২৪ জুন) সন্ধ্যায় কাদিরকোল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, কাদিরকোল গ্রামের আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করার জন্য বিকেল থেকেই নেতাকর্মীরা স্কুল মাঠে হাজির হন। এক পর্যায়ে ওই গ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা আওলাদ হোসেন ও আকরাম গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এতে উভয় পক্ষের কমপক্ষে দশজন আহত হন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/24/1561387832037.jpg

আহতদের মধ্যে তৌহিদুর রহমান, লিটন হোসেন, মোশাররফ হোসেন, আকরাম হোসেন, সোহেল উদ্দিন, ইমামুল হক, আওলাদ হোসেন, ফোরকান আলী, তাহাজ্জেল হোসেনকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইউনুস আলী জানান, বর্তমানে কাদিরকোল গ্রামের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। পুনরায় সংঘর্ষ এড়াতে গ্রামে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :

বোমা বানাতে গিয়ে বিস্ফোরণে আহত হাকিম মারা গেছে

বোমা বানাতে গিয়ে বিস্ফোরণে আহত হাকিম মারা গেছে
চুয়াডাঙ্গার ম্যাপ

চুয়াডাঙ্গায় নিজের বাড়িতে বোমা বানানোর সময় বিস্ফোরণের ঘটনায় আহত হওয়া আব্দুল হাকিম চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন।

বুধবার (১৭ জুলাই) সন্ধ্যায় তিনি মারা যান। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দমুড়গুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস।

উল্লেখ্য গত সোমবার চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার ধান্যঘরা গ্রামে বোমা বানাতে গিয়ে বিস্ফোরিত হয়ে মারাত্মক আহত হয় আব্দুল হাকিম (৩০)। পরে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়।

পরবর্তীতে পুলিশ প্রহরায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে নেওয়া হয়। দুইদিন চিকিৎসার পর হাকিমের অবস্থার অবনতি হলে বুধবার সন্ধ্যায় তিনি মারা যান।

ফরিদপুরে সেরা সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ

ফরিদপুরে সেরা সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ
ফরিদপুরের সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ/ ছবি: সংগৃহীত

২০১৯ সালের উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) পরীক্ষায় ফরিদপুরে সবচেয়ে ভালো ফল করেছে সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ। অপরদিকে সবচেয়ে খারাপ ফল করেছে বাখুন্ডা কলেজ।

ফরিদপুর সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ থেকে এক হাজার ৬০৯ জন ছাত্রী পরীক্ষায় অংশ নেয়। এর মধ্যে পাশ করেছে এক হাজার ৩৬৮ জন। পাশের হার ৮৫ দশমিক ০২ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫১ জন।

সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ সুলতান মাহমুদ বলেন, ‘সকল শিক্ষার্থীকে গভীর নজরদারির মধ্যে রেখেছি। যারা বার্ষিক পরীক্ষায় খারাপ করেছে তখন তাদের অভিভাবকদের ডেকে এনে বিষয়টি বলেছি, যাতে তারা মেয়েদের পড়ার ব্যাপারে নজর রাখতে পারেন। এভাবে শিক্ষক ও অভিভাবকদের সম্মিলিত চেষ্টায় এ সাফল্য।’

এদিকে বাখুন্ডা কলেজ থেকে পরীক্ষা দিয়েছে ১০৩ জন। পাশ করেছে ২৩ জন। পাশের হার ২২ দশমিক ৩৩।

খারাপ ফলাফলের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে বাখুন্ডা কলেজের অধ্যক্ষ মো. সেলিম মিয়া বলেন, ‘দীর্ঘ ২৪ বছর ধরে এমপিওভুক্ত না হওয়ায় শিক্ষরা বিনা বেতনে কাজ করছেন। ফলে নিয়মিত পাঠদান করা সম্ভব হয় না। এই কলেজে ভালো শিক্ষার্থীরা ভর্তি হয় না। নির্বাচনী পরীক্ষায় অকৃতকার্য হলেও রাজনৈতিক চাপে পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ করে দিতে হয়। এ কারণে ফল ভালো হয়নি।’

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র