মংলা বন্দরে ৫০ কোটি টাকার মোবাইল হারবার ক্রেন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বাগেরহাট
মংলা বন্দরের জেটিতে যুক্ত হয়েছে অত্যাধুনিক মোবাইল হারবার ক্রেন, ছবি: বার্তা২৪

মংলা বন্দরের জেটিতে যুক্ত হয়েছে অত্যাধুনিক মোবাইল হারবার ক্রেন, ছবি: বার্তা২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

মংলা বন্দরের জেটিতে পণ্য ওঠা-নামানোর কাজে নতুন করে যুক্ত হয়েছে প্রায় ৫০ কোটি টাকা মূল্যের একটি অত্যাধুনিক মোবাইল হারবার ক্রেন। ৪০০ মেট্রিক টন ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন এ ক্রেনটি সংযোজনের ফলে এখন থেকে বন্দরে ক্রেন গিয়ার লেস বিদেশি জাহাজের আগমন ও পণ্য হ্যান্ডেলিং বৃদ্ধি পাবে।

বন্দর কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, ৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে মোবাইল হারবার ক্রেনটি জার্মানের লিভার কোম্পানি তৈরি করেছে। জার্মান থেকে আমদানিকৃত এ ক্রেনটি নিয়ে এমভি এনিটি নামক বিদেশি জাহাজ বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) মংলা বন্দর জেটিতে ভিড়ে। এরপর ওই দিন বিকেল পর্যন্ত মোবাইল হারবার ক্রেনের ৩৬টি প্যাকেজের যন্ত্রপাতি জেটিতে নামানো হয়েছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/28/1561734126777.jpg

এনিটি জাহাজের স্থানীয় শিপিং এজেন্ট অলসিস শিপিং লিমিটেডের প্রতিনিধি মো. সাখাওয়াত হোসেন মিলন বলেন, ‘মংলা বন্দরের ইতিহাসে এটিই সবচেয়ে বড় এবং আধুনিক ক্রেন যা বন্দর জেটিতে পণ্য ওঠা-নামানোর কাজে যুক্ত হতে যাচ্ছে। এতে মংলা বন্দরে কন্টেইনারসহ সকল ধরনের পণ্য বোঝাই-খালাসের গতি কয়েকগুণ বেড়ে যাবে।

ক্রেন সরবরাহকারী দেশীয় প্রতিষ্ঠান সাইফ পাওয়ার টেকের উপ সহকারী প্রকৌশলী অরুন যোদ্দার বলেন, ‘দেশীয় মুদ্রার প্রায় ৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে জার্মান থেকে মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ এই মোবাইল হারবার ক্রেনটি আমদানি করেছে। আর আমরা জার্মান থেকে ক্রেনটি এনে কর্তৃপক্ষকে বুঝিয়ে দিয়েছি মাত্র।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/28/1561734168467.jpg

মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমোডর একেএম ফারুক হাসান বলেন, ‘জামার্নের লিভার কোম্পানিতে তৈরি অত্যাধুনিক মোবাইল হারবার ক্রেনটি বৃহস্পতিবার মংলা বন্দরে পৌঁছেছে। এর ফলে বন্দরের কন্টেইনার হ্যান্ডেলিংয়ের পরিমাণ বেড়ে যাবে। পাশাপাশি আর যে সকল দেশি-বিদেশি জাহাজে গিয়ার ছিল না, এখন থেকে ওই ধরনের জাহাজগুলো বন্দরে ভিড়লে নতুন এ মোবাইল হারবার ক্রেন দিয়ে মালামাল ওঠানো-নামানো সহজ হবে। এছাড়া নতুন আরও প্রায় ৭৫টি হ্যান্ডেলিং যন্ত্রপাতি ক্রয়ের জন্য অনুমোদন হয়েছে। এগুলো সংযোজন হলে বন্দরে পণ্য বোঝাই-খালাস কাজ বিদ্যুৎতের গতিতেই হবে।’

আপনার মতামত লিখুন :