ছেলের মার খেয়ে বাড়িছাড়া হলেন মা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, পঞ্চগড়
বৃদ্ধা হাফেজা বেগম। ছবি: বার্তা২৪.কম

বৃদ্ধা হাফেজা বেগম। ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

শতবর্ষী হাফেজা বেগম। ১০ সন্তানের মা তিনি। তবে শেষ বয়সে কোনো সন্তানই তার খবর রাখে না। এমনকি তাকে মারধরও করা হয়। বর্তমানে ওই অসহায় মায়ের ঠিকানা হয়েছে হাসপাতালের বিছানা।

পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে বৃদ্ধা হাফেজা বেগমের সঙ্গে বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমের এ করেসপন্ডেন্টের দেখা হয়। ওই হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন তিনি। আপনার কী হয়েছে জিজ্ঞাস করতেই হাউমাউ করে কেঁদে ওঠেন ওই বৃদ্ধা।

এ সময় হাফেজা বেগম জানান, তাকে তার ছেলে মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে।

জানা গেছে, বৃদ্ধা হাফেজা বেগমের বাড়ি পঞ্চগড়ের সদর উপজেলাধীন ফুলপাড়া এলাকায়। তার স্বামী ১১ বছর আগে মারা গেছেন। হাফেজা বেগমের ১০ সন্তান রয়েছে। এর মধ্যে ৫ ছেলে, ৫ মেয়ে রয়েছে। তবে কেউই মায়ের দায়িত্ব নিতে চায় না।

গতকাল শনিবার (৬ জুলাই) ফারুক নামে এক ছেলে বৃদ্ধা হাফেজাকে মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। এরপর অসুস্থ হাফেজাকে হাসপাতালে ভর্তি করে স্থানীয়রা। এ ঘটনার পরে কোনো সন্তানই হাসপাতালে হাফেজার খবর নিতে আসেনি।

এ ব্যাপারে বৃদ্ধার ছেলে ফারুক বলেন, ‘আমি আমার মাকে মারধর করিনি। আমাদের ভাইদের মধ্যে জমি নিয়ে দ্বন্দ্ব আছে এবং মামলাও চলছে। তারা আমার মাকে ব্যবহার করছে।’

এ বিষয়ে পঞ্চগড় সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু আক্কাস আহমদ বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘খবর পেয়ে হাসপাতালে পুলিশ পাঠিয়েছি। এ ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে ওই বৃদ্ধার ছেলের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

আপনার মতামত লিখুন :