থানচিতে আটকে পড়েছেন ১৬ পর্যটক

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, বান্দরবান
সাঙ্গু নদ | ছবি: সংগৃহীত

সাঙ্গু নদ | ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

টানা ভারী বর্ষণে বান্দরবানের সাঙ্গু নদীর পানি বেড়ে যাওয়ায় থানচিতে আটকে পড়েছেন ১৬ পর্যটক। থানচির দুর্গম অঞ্চলে মোবাইল নেটওয়ার্ক না থাকায় পর্যটকদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন না স্বজনরা।

তবে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর তথ্যমতে আটকে পড়া পর্যটকরা থানচির দুর্গম জিননা পাড়াসহ আশপাশের এলাকাগুলোতে নিরাপদেই রয়েছেন।

প্রশাসন ও স্থানীয়দের তথ্যমতে, শনিবার (৬ জুলাই) থেকে অবিরাম ভারী বর্ষণের কারণে সাঙ্গু নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। খরস্রোতা পাহাড়ি নদী সাঙ্গু বিপদজনক এবং ঝুকিপূর্ণ হয়ে ওঠায় থানচি থেকে ট্যুরিস্ট স্পট রেমাক্রি, তিন্দু, বড়মদক, ছোটমদকসহ নদীতে সব ধরনের নৌ-চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

থানচি উপজেলার দর্শনীয় পর্যটন স্পট রেমাক্রি, তিন্দু, বড়পাথর, নাফাখুম এবং রুমা উপজেলার তিনাপ সাইতার ঝর্না, বগালেক, কেওক্রাডংসহ দুর্গম অঞ্চলগুলোতে পর্যটকদের ভ্রমণ ও যাতায়াতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে স্থানীয় প্রশাসন।

থানচি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জুবায়েরুল হক জানান, থানচি উপজেলার জিননা পাড়াসহ আশপাশের এলাকাগুলোতে ১৬ জন পর্যটক আটকে পড়ার খবর পেয়েছি। বিজিবি’র মাধ্যমে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। সাঙ্গু নদীর পানি বেড়ে বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় পর্যটকরা ফিরতে পারেননি। তবে আটকে পড়া পর্যটকরা সবাই নিরাপদে আছেন।

আপনার মতামত লিখুন :